ব্রেকিং নিউজ
Home » জাতীয় » আটককৃত যানবাহন রক্ষণাবেক্ষণ ও অবমুক্তকরণ সফটওয়্যার চালু করল ট্রাফিক বিভাগ, এসএমপি
আটককৃত যানবাহন রক্ষণাবেক্ষণ ও অবমুক্তকরণ সফটওয়্যার চালু করল ট্রাফিক বিভাগ, এসএমপি

আটককৃত যানবাহন রক্ষণাবেক্ষণ ও অবমুক্তকরণ সফটওয়্যার চালু করল ট্রাফিক বিভাগ, এসএমপি

সিলেট ব্যুরো চীফ:

মেট্রোপলিটন ট্রাফিক বিভাগকর্তৃক আটককৃত যানবাহন রক্ষণাবেক্ষণ ও অবমুক্ত করনে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে “Towed vehicles management System” নামে একটি সফটওয়্যার চালু করেছে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ ট্রাফিক বিভাগ।
বছরের শুরুতে উক্ত সফটওয়্যার তৈরি, যাচাই বাছাই এর কাজ শেষ করে দুইমাস ট্রায়াল সম্পন্ন করে গত জুন’২০২১ সালে সফটওয়ার টি ব্যবহার করা শুরু হয়েছে। এর মাধ্যমে আটককৃত যানবাহন, চালক ও মালিকের তথ্যাদি ডাটাবেজে সংরক্ষণ করা হবে।
মহানগরীর গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টসমূহে দায়িত্বরত সার্জেন্টগন কাগজপত্রবিহীন, অবৈধ কোন যানবাহন আটক করলে উক্ত সফটওয়্যারে যানবাহন ও চালকের বিস্তারিত তথ্যাদি লিপিবদ্ধ করবেন এবং পুলিশ লাইন্সে প্রেরণ করবেন। পুলিশ লাইন্সে দায়িত্বরত অফিসার আটককৃত গাড়ী গ্রহণ করে উক্ত সফটওয়্যারে বিস্তারিত তথ্যাদি লিপিবদ্ধ করবেন। বর্নিত কার্যক্রম সম্পন্ন হওয়ার পর এডমিন নোটিফিকেশন পাবে।
ট্রাফিক বিভাগ কর্তৃক বিভিন্ন সময় কাগজপত্র বিহীন গাড়ি আটক করার পর জরিমানা আদায়ে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে এই সফটওয়্যারটি তৈরি করা হয়েছে। গাড়ি আটক করা থেকে শুরু করে অবমুক্ত করন পর্যন্ত সম্পূর্ণ কার্যক্রম পরিচালিত হবে এই সফটওয়্যার এর মাধ্যমে। 
এছাড়াও ওয়েব বেইজড সফটওয়্যারটিতে রয়েছে প্রসিকিউশন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম। যেসব গাড়ি ও চালকের বিরুদ্ধে সড়ক পরিবহন আইনে প্রসিকিউশন দাখিল করা হবে তার ডাটাবেজ তৈরি করা হচ্ছ। ফলে ট্রাফিক বিভাগের সিনিয়র অফিসার গন মোট মামলা, আটককৃত যানবাহন এর সংখ্যা এবং জরিমানার পরিমান তাৎক্ষণিক জানতে পারবেন। এর মাধ্যমে ট্রাফিক বিভাগে কর্মরত সার্জেন্ট ও টিআই দের পারফরম্যান্স নির্ধারণ সহজে সম্ভব।
পর্যায়ক্রমে এসএমপি ট্রাফিক বিভাগের সকল প্রশাসনিক কার্যক্রম এই সফটওয়্যারের মাধ্যমে পরিচালিত হবে বলে জানিয়েছেন ট্রাফিক বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার ফয়সাল মাহমুদ। তিনি জানান এই সফটওয়্যারে ফোর্সের ছুটি, ডিউটি বন্টন ও ফোর্স ম্যানেজমেন্ট সংক্রান্ত বিষয় গুলো যুক্ত করা হবে।
দুর্নীতিমুক্ত ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করে ট্রাফিক কার্যক্রম পরিচালনা করতে এই সফটওয়্যারটি চালু করা হয়েছে। এতে সিনিয়র অফিসারগন খুব সহজেই জরিমানা আদায়কারীদের কার্যক্রম তদারকি করতে পারবেন বলে জানিয়েছেন ট্রাফিক বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার ফয়সল মাহমুদ।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*