Wednesday , 1 February 2023
E- mail: news@dainiksakalbela.com/ sakalbela1997@gmail.com
ব্রেকিং নিউজ
আ. লীগকে উৎখাত করবে এমন শক্তির জন্ম হয়নি : প্রধানমন্ত্রী
--ফাইল ছবি

আ. লীগকে উৎখাত করবে এমন শক্তির জন্ম হয়নি : প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক:

আওয়ামী লীগ সরকারকে উৎখাত করতে পারে বাংলাদেশে এমন কোনো শক্তির এখনো জন্ম হয়নি বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, কারো পকেট থেকে আওয়ামী লীগের জন্ম হয়নি। আইয়ুব খান, ইয়াহিয়া, জিয়া, এরশাদসহ অনেকেই চেষ্টা করছেন আওয়ামী লীগকে ধ্বংস করতে। কিন্তু পারেননি। এখনো কেউ পারবে না।

আজ বুধবার জাতীয় সংসদের অধিবেশনে প্রশ্নোত্তর পর্বে এ সব কথা বলেন।

জবাবে প্রধানমন্ত্রী ওই বক্তব্য তুলে ধরে বর্তমানে তেমন কোনো পরিস্থিতি নেই বলে উল্লেখ করেন। একইসঙ্গে আওয়ামী লীগের প্রতি আস্থা রাখার জন্য দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান।

আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য আহসানুল ইসলাম টিটোর প্রশ্নের লিখিত উত্তরে প্রধানমন্ত্রী জানান, সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগে মূল্যস্ফীতির প্রভাব হ্রাস পাওয়ায় জনমনে স্বস্তি ফিরে এসেছে। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ এবং এ কারণে রাশিয়ার উপর বিভিন্ন অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞার ফলে জ্বালানি তেল এবং প্রাকৃতিক গ্যাসের আন্তর্জাতিক বাজার অস্থিতিশীল হয়ে উঠে। এর প্রেক্ষিতে সরকারকে আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে মিল রেখে বাংলাদেশেও জ্বালানি তেলের মূল্য সমন্বয় করতে হয়েছে। মূল্যস্ফীতির চাপ সহনীয় পর্যায়ে রাখতে এবং গরিব ও নিম্নআয়ের মানুষের জীবনযাত্রাকে স্বাভাবিক ও সচল রাখতে আমরা বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করে চলেছি। পদক্ষেপগুলো হলো-আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগ গত বছরের ৫ আগস্ট গেজেট প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে স্থানীয় পর্যায়ে ডিজেল, কেরোসিন, অকটেন ও পেট্রলের মূল্য সমন্বয়/পুননির্ধারণ করা হয়।

প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া তথ্যানুযায়ী, বিরাজমান বৈশ্বিক সংকট সত্ত্বেও আপামর জনসাধারণের জীবনমান স্বাভাবিক রাখা ও দ্রব্যমূল্য সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে রাখার লক্ষ্যে গৃহিত পদক্ষেপগুলো হলো-বাজার মনিটরিং কার্যক্রম জোরদার করা হয়েছে। ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের তদারকি অভিযান এবং জেলা প্রশাসন কর্তৃক মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে মজুতকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে তিন দফায় নীতি সুদহার বা রেপো (রিপারচেজ এগ্রিমেন্ট) হার বৃদ্ধি করা হয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংক প্রথম দফায় গত ২৯ মে থেকে রেপো হার ৪ দশমিক ৭৫ শতাংশ থেকে ২৫ বেসিস পয়েন্ট বৃদ্ধি করে ৫ শতাংশে নির্ধারণ করা হয়, পরবর্তীতে ৩০ জুন থেকে তা আরো ৫০ বেসিস পয়েন্ট বৃদ্ধি করে ৫ দশমিক ৫ শতাংশ করা হয়। সর্বশেষ ২৯ সেপ্টেম্বর থেকে  তা আরও ২৫ বেসিস পয়েন্ট বৃদ্ধি করে ৫ দশমিক ৭৫ শতাংশে উন্নীত করা হয়। মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে গত ২ মার্চ আমদানি পর্যায়ে চিনির উপর প্রযোজ্য রেগুলেটরি ডিউটি ৩০ শতাংশ হতে কমিয়ে ২০ শতাংশে নির্ধারণ করা হয়।  ১৪ মার্চ সয়াবিন ও পাম তেলের উপর স্থানীয় উৎপাদন এবং ব্যবসায়ী পর্যায়ে প্রযোজ্য মূল্য সংযোজন কর সম্পূর্ণরূপে অব্যাহতি দেওয়া হয়। এছাড়াও ১৬ মার্চ সয়াবিন ও পাম তেলের উপর আমদানি পর্যায়ে আরোপণীয় মূল্য সংযোজন কর ১৫ শতাংশ হতে কমিয়ে ৫ শতাংশ করা হয়, যা ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত কার্যকর ছিল।

প্রধানমন্ত্রী সংসদকে জানান, বর্তমান পরিস্থিতিতে মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে আমাদের মূল লক্ষ্য হচ্ছে বিদ্যমান চাহিদার প্রবৃদ্ধি কমিয়ে সরবরাহ বৃদ্ধি করা। সে জন্য সরকারি ব্যয় হ্রাসের উদ্দেশে কতিপয় কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে। যেমন: বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিভুক্ত প্রকল্পগুলো এ/বি/সি ক্যাটাগরি নির্ধারণ করা হয়েছে। তন্মধ্যে ‘বি’ ক্যাটাগরি প্রকল্পগুলোর ক্ষেত্রে জিওবি অংশের অনূর্ধ্ব ৭৫ শতাংশ ব্যয় করা এবং ‘সি’ ক্যাটাগরি প্রকল্পগুলোর অর্থ ছাড় আপাতত স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ‘এ’ ক্যাটাগরির প্রকল্প দ্রুত সমাপ্তির পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

সূত্র: কালের কন্ঠ অনলাইন

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com