Thursday , 18 July 2024
E- mail: news@dainiksakalbela.com/ sakalbela1997@gmail.com
ব্রেকিং নিউজ
কুষ্টিয়া আলামপুরের ওলিল ড্রাইভারের বিরুদ্ধে রাস্তার জায়গা দখল করে জোরপূর্বক পাকা ঘর নির্মানের অভিযোগ

কুষ্টিয়া আলামপুরের ওলিল ড্রাইভারের বিরুদ্ধে রাস্তার জায়গা দখল করে জোরপূর্বক পাকা ঘর নির্মানের অভিযোগ

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি :- কুষ্টিয়া সদর উপজেলার আলামপুর ইউনিয়নের আলামপুর বাজারের পাশে মৃত ভাদু মণ্ডলের ছেলে ওলিল ড্রাইভারের বিরুদ্ধে বাজারের সরকারি রাস্তার জায়গা অবৈধভাবে দখল করে  জোরপূর্বক পাকা ঘর নির্মান ও বাজারের ভুষি মাল ব্যবসায়ী শহিদুল ইসলাম সেন্টুকে হুমকি দেওয়ার  অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে ওলিল ড্রাইভারের বিরুদ্ধে  কুষ্টিয়া মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে শহিদুল ইসলাম সেন্টু। অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, আলামপুর বাজারের মৃত সেখ মহিউদ্দিনের ছেলে শহিদুল ইসলাম সেন্টু দীর্ঘ ১০ বছর যাবৎ আলামপুর বাজারে ভূষি মালের ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে।ব্যবসা করাকালীন প্রায় ৩ মাস আগে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের পাশেই সরকারী পরিত্যক্ত জমিতে হাট ইজারাদার ও ব্যবসায়ী বনিক সমিতির সকলকে অবগত করে একটি দোকান ঘর নির্মান করেন। উক্ত সরকারী জমিতে ঘর নির্মাণ করায় সেন্টুকে কেহ বাধা প্রদান করে নাই এবং বাজার কমিটি সহ ইজারাদারকে মাসিক চাঁদা প্রদান করে আসছে সেন্টু। গত ০৭/০৪/২০২১ ইং তারিখ সময় অনুমান বিকাল ৩.০০ টার সময় হঠাৎ ওলিল ড্রাইভার সেন্টুর দোকানে এসে বলে, তাের দোকান ঘর ভেঙ্গে নে, নইলে আমি দোকান ঘর ভেঙ্গে দেবো বলে হুমকি দেয়। তখন উক্ত দোকান ঘর ভাঙ্গতে সেন্টু রাজী না হওয়ায় সেন্টুকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ সহ বিভিন্ন ভয়ভীতি প্রদান করে চলে যায় ওলিল ড্রাইভার। পরবর্তীতে গত ১২/০৪/২০২১ ইং তারিখ আনুমানিক সকাল ৮.০০ টার সময় ওলিল ড্রাইভার সেন্টুর দখলকৃত দোকান ঘরের দরজার মাঝখানে জোরপূর্বক সীমানা খুঁটি স্থাপন করে।পরে নজরে আসলে সেন্টু  সীমানা খুঁটি তুলতে গেলে বা ওলিল ড্রাইভারকে  এমন কাজ করার বিষয়ে জানতে গেলে ওলিল ড্রাইভার তার বিভিন্ন রকম ক্ষতি করতে পারে। গোপন সুত্রে জানা যায়,ওলিল ড্রাইভার এলাকায় বিএনপি, জামায়াতের সাথে সক্রীয় রয়েছে। তাই তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে সবাই ভয় পাই।এ ব্যাপারে আলামপুর হাট ইজারাদার  মজিবুর রহমান বলেন , সেন্টু এখানে আমাদের সকলের অনুমতি  নিয়েই একটি ঘর করেছে। কিন্তু তার পাশে চলাফেরার রাস্তা জোরপূর্বক দখল করে ঘর নির্মাণ করছে ওলিল ড্রাইভার । যার ফলে বর্ষা মৌসুমে চলাচলের রাস্তা টি বন্ধ হতে যাচ্ছে । এ ব্যাপারে স্থানীয় এক বাসিন্দা মীর নাজির উদ্দিন বলেন , হাটের পশ্চিম পাশে আমি আমার বিল্ডিং এর সাথে নিজের জায়গায় হাটের বাজারের লোকজন চলাচলের জন্য একটি রাস্তা পাকা করে দিয়েছি । রাস্তাটির শেষে একটি নোংরা ভর্তি পুকুর ছিল সেটাও আমি ভরাট করে দিয়েছি যাতে বর্ষা মৌসুমে সাধারণ জনগণ বাজারে ঢুকতে কোন অসুবিধা না হয় । কিন্তু হঠাৎ করে সেই জায়গায় কারো  অনুমতি না নিয়েই  জোরপূর্বক ওলিল ড্রাইভার একটি পাকা ঘর নির্মাণ করতে যাচ্ছে যার ফলে এখানে যাতায়াতের অসুবিধা হবে এবং একেবারেই বন্ধ হয়ে যাবে চলাচলের রাস্তাটি। ভুক্তভোগীদের দাবি যথাযথ কর্তৃপক্ষ উপরোক্ত বিষয়গুলো সু বিবেচনা করে ব্যাবস্থা গ্রহন করে রাস্তাটি জনগনের সেবার জন্য বাচিয়ে রাখতে। 

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply