ব্রেকিং নিউজ
Home » দৈনিক সকালবেলা » বিভাগীয় সংবাদ » চট্টগ্রাম বিভাগ » চট্টগ্রাম বন্দরে জীপ-পিকআপসহ ৬১ লট পণ্যের নিলাম ১৯ ডিসেম্বর

চট্টগ্রাম বন্দরে জীপ-পিকআপসহ ৬১ লট পণ্যের নিলাম ১৯ ডিসেম্বর

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:
চট্টগ্রাম বন্দরের বিভিন্ন ইয়ার্ডে পড়ে থাকা নিলামযোগ্য কনটেইনারের জট কমাতে প্রতিমাসে দুটি করে নিলামের আয়োজন করছে চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউস। এর অংশ হিসেবে দুটি মাইক্রোবাস, একটি করে জিপ ও পিক আপসহ বিভিন্ন কনটেইনারে থাকা ৬১ লট পণ্য নিলামে তোলা হচ্ছে। আগামী ১৯ ডিসেম্বর দুপুরে চলতি ডিসেম্বর মাসের প্রথম নিলাম অনুষ্ঠিত হবে। সুত্রে জানা গেছে, চট্টগ্রাম কাষ্টম হাউস এবারের নিলামে ২৩ লাখ ৭৮ হাজার ৭৬২ টাকা দামের জাপানি টয়োটা মাইক্রোবাস, ২১ লাখ ৩৩ হাজার ৮৫৬ টাকা মূল্যের নিশান মাইক্রোবাস, ৭১ লাখ ৯৮ হাজার ৩০৪ টাকা দামের নিশান এটলাস ব্র্যান্ডের পিক-আপ, এবং ১ কোটি ৪১ লাখ ৭৮ হাজার টাকা মূল্যের টয়োটা ব্রান্ডের জিপ নিলামে বিক্রি করবে।
উল্লেখ্য:বিভিন্ন কারনে বিদেশ থেকে আনা বিভিন্ন পণ্য খালাস করেন না আমদানিকারকরা। পাশাপাশি শুল্ক ফাঁকি দিয়ে আনতে গিয়ে কায়িক পরীক্ষায় আটক করা হয়। নিয়মনুযায়ী তাদের ৩০ দিনের মধ্যে এসব পণ্য খালাসের নির্দেশ দিয়ে নোটিশ দেওয়া হয়। নোটিশ দেওয়ার ১৫ দিনের মধ্যে পণ্য খালাস না নিলে এসব পণ্য নিলামে তোলে কাস্টমস হাউস কর্তৃপক্ষ।
সুত্রে প্রকাশ , মাইক্রোবাস, জিপ ও পিক আপ ছাড়াও জেন্টস আন্ডারওয়্যার, সালফিউরিক এসিড, টেক্সটাইল কেমিক্যাল, ড্রাগণ ফল, পেপার ট্যাগ, ল্যাবরেটরি সাপলাইস, হ্যান্ড স্যানিটাইজার প্রোডাক্টস, ফেব্র্রিক্স পণ্য, সুয়েটার, ট্রাউজার, হুডি, টি-শার্ট, টি-শার্ট (শ্লিভলেস), লেডি টি-শার্ট, বেবি ফ্রগ, বেবি ট্রাউজার, ২০৬ পিস বেবি টি-শার্ট, শর্টস, এপ্রোন, পলি ব্যাগ, সেলফ এডহেসিভ টেপ, ড্রাম, স্টিল রেক, কমপ্যাক্ট পেট্রোল জেনারেটর, এল-স্কেল, কটন ইয়ার্ন, বনেট, ইলেকট্রিক ভেহিক্যালস, গার্মেন্টেস এর মেশিনারি পণ্য, মেশিনারি এক্সেসরিজ, চশমা, সানগ্লাস, বেবি সানগ্লাস, প্যাসেঞ্জার লিফট, টেক্সটাইল স্ক্রিন প্রিন্টিং ইংক, ক্যাবল, মোটরসাইকেল পার্টস, প্লাস্টিসাইজার, সিরামিক ওয়াল টাইলস, পিভিসি শিট, পেপার তৈরির স্পেয়ার পার্টস, রাফ রেক্টেংগুলার কনক্রিট হলো ব্লক, রেডিমেড গার্মেন্টস পণ্য, কাটিং মেশিন, জুতা, তুলা, পোরলেইন পলিশড টাইলস মেটাল বিটন, মেটাল বাটন, এলিভেটর স্পেয়ার পার্টস, প্লাস্টিক বাটন পণ্য, জিপার পণ্য, মাছের খাবার, বেডশিড কাভার, মেডিকেল প্রোডাক্টস, এয়ার পিউরিফায়ার, ইঞ্জিন ও হাইড্রলিক তেল, রোলার পার্টস ও টেবিল ফ্যানের বিভিন্ন অংশ নিলামে উঠছে।
চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউসের তথ্যমতে, এবারের নিলামে ৩৯ হাজার পিস জেন্টস আন্ডারওয়্যার, ১৫২ কেজি সালফিউরিক এসিড, এক ব্যাগ টেক্সটাইল কেমিক্যাল, ১৫ হাজার ৫শ’ কেজি ড্রাগণ ফল, ৭ কার্টন পেপার ট্যাগ, ১ কার্টন ল্যাবরেটরি সাপলাইস, ১৩শ’ ৪১ কার্টন হ্যান্ড স্যানিটাইজার প্রোডাক্টস, ৯১০ রোল ফেব্রিক্স পণ্য, ২১শ ৬৪ পিস সুয়েটার, ২৭শ ১৪ পিস ট্রাউজার, ২৩শ ৫৮ পিস হুড, ৭১৩ পিস টি-শার্ট, ৯৭৯ পিস টি-শার্ট (শ্লিভলেস), ২৬৪ পিস লেডি টি-শার্ট, ১১শ ৭৩ পিস বেবি ফ্রগ, ৮৫৪ পিস বেবি ট্রাউজার, ২০৬ পিস বেবি টি-শার্ট, ৩৩৬ পিস শর্টস, ৮ কার্টন এফ্রোন, ১২ কার্টন পলি ব্যাগ, ৫২ কেজি ওজনের সেলফ এডহেসিভ টেপ, ৯১ পিস ড্রাম, ৬৫০ কেজি ওজনের স্টিল রেক, দুই ইউনিট ব্যবহৃত কমপ্যাক্ট পেট্রোল জেনারেটর, ৬ কার্টন এল-স্কেল, ৪শ কেজি ওজনের কটন ইয়ার্ন, ৩৪৮ পিস বনেট, ১১ ইউনিট ইলেকট্রিক ভেহিক্যালস, ১৭৪ কার্টন গার্মেন্টেস এর মেশিনারি পণ্য, ৯ হাজার ৫শ কেজি ওজনের মেশিনারি এক্সেসরিজ, ১০ কার্টন চশমা, ৫ কার্টন সানগ্লাস, ২ কার্টন বেবি সানগ্লাস নিলামে তোলা হচ্ছে।
তাছাড়া ৩৪ হাজার ৯৭১ কেজি ওজনের প্যাসেঞ্জার লিফট, ৬ হাজার ৩১০ কেজি ওজনের টেক্সটাইল স্ক্রিন প্রিন্টিং ইংক, ৬ হাজার কেজি ক্যাবল, ২৮০ কার্টন মোটরসাইকেল পার্টস, ১৯২ ড্রাম প্লাস্টিসাইজার, ১৪ বক্স সিরামিক ওয়াল টাইলস, ১৪ কেজি ওজনের পিভিসি শিট, ৭১৭ কেজি পেপার তৈরির স্পেয়ার পার্টস, ১ হাজার ব্যাগ রাফ রেক্টেংগুলার কনক্রিট হলো ব্লক, ৪৩৮ বক্স রেডিমেড গার্মেন্টস পণ্য, একটি কাটিং মেশিন, ৯৬ জোড়া জুতা, এক বেল তুলা, ২৮শ কার্টন পোরলেইন পলিশড টাইলস, ৯ কার্টন মেটাল বিটন, দুই লটে ৯২ কার্টন মেটাল বাটন, ৩৬ পিস এলিভেটর স্পেয়ার পার্টস, ২৮ কার্টন প্লাস্টিক বাটন পণ্য, ৫০ কার্টন জিপার পণ্য, ২০ ব্যাগ মাছের খাবার, ২৩ কার্টন বেডশিড কাভার, ২ কেস মেডিকেল প্রোডাক্টস, ২ পিস এয়ার পিউরিফায়ার, ১ কার্টন ইঞ্জিন ও হাইড্রলিক তেল, ১ কেস রোলার পার্টস, ২ হাজার ৫ কার্টন টেবিল ফ্যানের বিভিন্ন অংশ বিক্রি হবে নিলামে।
সরকারি নিলাম পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স কে এম করপোরেশন এই নিলাম পরিচালনা করছে। প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজার মোহাম্মদ মোরশেদ গণমাধ্যমকে বলেন, বৃহস্পতিবার (৯ ডিসেম্বর) থেকে নিলামের জন্য দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে। নিলামে অংশ নিতে হলে আগামী ১৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত অফিস চলাকালীন সময়ে ২শ টাকা দরে ক্যাটালগ ও ১শ টাকা দরে দরপত্র সংগ্রহ করা যাবে। আগামী ১৪ ও ১৫ ডিসেম্বর সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টার মধ্যে চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসের রাজস্ব কর্মকর্তা (প্রশাসন) ও চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে টেন্ডার বক্সে দরপত্র জমা দিতে হবে। পাশাপাশি আগামী ১২ ও ১৩ ডিসেম্বর সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত বিক্রয়যোগ্য পণ্য পরিদর্শন করতে পারবেন বিডাররা।
চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসের উপ-কমিশনার (নিলাম শাখা) আলী রেজা হায়দার গণমাধ্যমকে বলেন, বর্তমানে আমরা প্রতিমাসে দুটি করে নিলামের আয়োজন করছি। নিয়মিত কার্যক্রমের অংশ হিসেবে ও বন্দরের জট কমাতে আগামী ১৯ ডিসেম্বর ৬১ লট পণ্যের নিলাম অনুষ্ঠিত হবে। ওইদিন বেলা আড়াইটায় দরপত্র খোলা হবে। বন্দরে সুষ্ঠু কর্মপরিবেশ বজায় রাখতে প্রতি মাসেই আমাদের নিলাম কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com