ব্রেকিং নিউজ
Home » জাতীয় » তৃণমূল সম্মেলন জুলাইয়ের মধ্যে শেষ করবে আ. লীগ
তৃণমূল সম্মেলন জুলাইয়ের মধ্যে শেষ করবে আ. লীগ

তৃণমূল সম্মেলন জুলাইয়ের মধ্যে শেষ করবে আ. লীগ

অনলাইন ডেস্ক:

আগামী জুলাইয়ের মধ্যে তৃণমূলের সম্মেলন শেষ করতে চায় আওয়ামী লীগ। এ লক্ষ্যে রমজানের পর দ্রুত জেলা, উপজেলাসহ সব পর্যায়ের সম্মেলন শুরু হবে। আগামী ডিসেম্বরে দলের ২২তম জাতীয় সম্মেলনের প্রস্তুতির জন্য প্রাথমিক কাজ হলো এই তৃণমূল সম্মেলন ও কমিটি গঠন।

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কয়েকজন নেতা বলেন, দলের বর্তমান কেন্দ্রীয় কমিটি গঠনের কয়েক মাসের মধ্যেই করোনা মহামারি শুরু হয়।

এতে তৃণমূলে দলের শাখা কমিটিগুলোর সম্মেলন আয়োজন বাধাগ্রস্ত হয়। ফলে বেশির ভাগ কমিটিই এখন মেয়াদ উত্তীর্ণ। আওয়ামী লীগের ৭৮টি সাংগঠনিক জেলার অর্ধেকের বেশি কমিটির মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে। ৬৫০ সাংগঠনিক উপজেলার মধ্যে পাঁচ শতাধিক কমিটিরই মেয়াদ নেই।

করোনা নিয়ন্ত্রণে আসায় গত দুই মাসে জেলা, উপজেলা, পৌরসভা, ইউনিয়নসহ সব পর্যায়ে সম্মেলন শুরু হয়। এর মধ্যে রাজশাহী বিভাগে তিনটি, রংপুর বিভাগে একটি, বরিশাল বিভাগে একটি জেলায় সম্মেলন হয়েছে। গত মার্চে খুলনা বিভাগের বিভিন্ন জেলার ১২টি উপজেলায় সম্মেলন করা হয়। আগামী মে মাসে খুলনা বিভাগের মাগুরা, মেহেরপুর, চুয়াডাঙ্গা, ঝিনাইদহ—এই চার জেলা কমিটির সম্মেলন হবে। সিলেট বিভাগের পাঁচ জেলার মধ্যে শুধু সুনামগঞ্জ জেলার সম্মেলন বাকি। আগামী মাসে সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের প্রস্তুতি শুরু হবে। ময়মনসিংহ বিভাগের এক ডজন উপজেলা কমিটির সম্মেলন হয়েছে। বাকি কমিটিগুলোর সম্মেলন প্রস্তুতি চলছে।

রাজশাহী বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন বলেন, গত দুই বছরে এ বিভাগের ৯টি সাংগঠনিক জেলার সব কটিরই সম্মেলন হয়েছে। ৮৩টি সাংগঠনিক উপজেলার ৬৬টির সম্মেলন হয়েছে। বাকি ১৭টির সম্মেলন এক-দুই মাসের মধ্যেই হয়ে যাবে। জাতীয় সম্মেলনের আগে সব সম্মেলন শেষ করা হবে।

সম্প্রতি দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন আগামী ডিসেম্বর মাসে হওয়ার কথা। তিন বছর পর পর আমাদের সম্মেলন হয়। সেই সম্মেলনের প্রস্তুতি আমরা নিচ্ছি। ’

গত মার্চে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা তিন মাসের মধ্যে দলের শাখা কমিটিগুলোর সম্মেলন শেষ করতে সাংগঠনিক দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাদের নির্দেশনা দেন। সে নির্দেশনার পর তৃণমূলের সম্মেলন বড় আকারে শুরু হয়। তবে রোজা শুরু হওয়ার পর সম্মেলনের কাজে ভাটা পড়ে।

কয়েকজন কেন্দ্রীয় নেতা জানান, জাতীয় সম্মেলনের আগে তৃণমূল সম্মেলনের পাশাপাশি নতুন সদস্য সংগ্রহ এবং সদস্য নবায়ন কার্যক্রম চলবে। আগামী আগস্টের আগেই দলের তৃণমূলের সম্মেলন শেষ করার লক্ষ্য নিয়ে কাজ চলছে। শোকের মাস আগস্টে দলের সব পর্যায়ের সম্মেলন বন্ধ থাকবে। এরপর আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন আয়োজনের মূল কাজ শুরু হবে।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম   বলেন, ‘ডিসেম্বরে জাতীয় সম্মেলন আয়োজনের প্রস্তুতি চলছে। এই সম্মেলনের মধ্য দিয়ে দক্ষ, ত্যাগী ও দুর্দিনে ভূমিকা রাখার সাহস আছে এমন নেতাদের সামনে আনা হবে। ’

২০১৯ সালের ২০ ও ২১ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের ২১তম জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এ সম্মেলনের মধ্য দিয়ে নবমবারের মতো সভাপতি নির্বাচিত হন শেখ হাসিনা এবং দ্বিতীয়বারের মতো সাধারণ সম্পাদক হন ওবায়দুল কাদের। তিন বছর মেয়াদি এ কমিটির কার্যক্রম শেষ হবে আগামী ডিসেম্বরে।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘জাতীয় সম্মেলনের মূল যে প্রস্তুতি, তা এখনো শুরু হয়নি। তবে আমরা আনুষঙ্গিক প্রস্তুতির কাজ করছি। দলের তৃণমূলের সম্মেলনগুলো চলছে। রমজানের পরে ব্যাপকভাবে তৃণমূলের সম্মেলন শুরু হবে। ’

সূত্র: কালের কন্ঠ অনলাইন

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com