ব্রেকিং নিউজ
Home » দৈনিক সকালবেলা » উপজেলার খবর » নাঙ্গলকোট পৌরসভা নির্বাচনের শেষ মুহুর্তে প্রচারণায় ব্যস্ত প্রার্থীরা
নাঙ্গলকোট পৌরসভা নির্বাচনের শেষ মুহুর্তে প্রচারণায় ব্যস্ত প্রার্থীরা

নাঙ্গলকোট পৌরসভা নির্বাচনের শেষ মুহুর্তে প্রচারণায় ব্যস্ত প্রার্থীরা

নাঙ্গলকোট প্রতিনিধি:

কুমিল্লার নাঙ্গলকোট পৌর নির্বাচনের শেষ মূহুর্তের চলছে উৎসব মূখর নির্বাচনী প্রচারণা, প্রচারণায় ব্যাস্ত সময় পার করছেন প্রার্থীরা। ভোটারদের ধারে ধারে গিয়ে ভোট প্রার্থনা করছেন ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী। বিভিন্ন দোকান পাঠে উৎসব মুখোর পরিবেশ বিরাজ করছে, প্রার্থীরা ভোটারদের দিচ্ছে নানা উন্নয়ন মূলক প্রতিশ্রæতি। প্রচার প্রচারণায় পিছিয়ে নেই মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থীরাও। তারা বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটারদের মাঝে ভোট প্রার্থনা করে যাচ্ছেন। বিভিন্ন ওয়ার্ডে সরজমিনে গুরে দেখাযায় স্থানীয় বাজার গুলোতে নির্বাচনী পোষ্টারে চেয়েগেছে এবং সর্বত্র নির্বাচনী আমেজ লক্ষ্য করা যায়। ভোটারদের সাথে মতবিনিময় করছেন। পৌরসভা নির্বাচনের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণা ততই জমে উঠেছে। চায়ের দোকানে আড্ডার ফাঁকে চলছে প্রার্থীদের নিয়ে আলাপ-আলোচনা। পোস্টার, ব্যানার, ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে পৌর শহর।

প্রতিদিনই প্রার্থীরা নিজ নিজ অবস্থান থেকে পরামর্শমূলক সভা, পথসভা, উঠান বৈঠক এবং মাইকিং করে যাচ্ছেন। রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় সূত্র জানিয়েছে, আগামী ২০ সেপ্টম্বর (সোমবার) নাঙ্গলকোট পৌরসভায় ভোটগ্রহণ চলবে। নাঙ্গলকোট পৌরসভায় সর্বমোট ৯টি ওয়ার্ড ও ১১টি ভোটকেন্দ্রে মোট ভোটার সংখ্যা ১৯৮১১, পুরুষ ভোটার ৯২২৬জন, মহিলা ভোটার ৯৮৮৫জন।  নাঙ্গলকোট পৌরসভায় প্রথমবারের মতো ইভিএমে ভোট হবে।

নাঙ্গলকোট পৌরসভায় মেয়র পদে নির্বাচন করছেন ১ জন প্রার্থী।  আওয়ামী লীগ বর্তমান মেয়র আব্দুল মালেক, পৌরসভা নির্বাচনে অংশ নিয়ে একক প্রার্থী হিসেবে বিনা প্রতিদন্ধিতায় আবারও মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়া সাধারণ কাউন্সিলর ৪৩জন এবং সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদপ্রার্থী রয়েছেন ১১ জন।

কাউন্সিলর প্রার্থীরা জানিয়েছেন, প্রতিদিনই ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রত্যেক  প্রার্থী প্রচার চালাচ্ছেন। ভোটাররা তাদের নিজ মেধায় যোগ্যতা সম্পন্ন প্রার্থীকে বেছে নেবেন, সেটাই তাদের বিশ্বাস। নির্বাচনি প্রচারে এখন পর্যন্ত কোনও প্রকার আপত্তিকর ঘটনা ঘটেনি। তাদের লক্ষ্য একটা নির্বাচনে বিজয়ী যেই হোক তাকে পৌরবাসীদের সেবায় একটি আধুনিক পৌরসভা গড়ে তুলতে হবে।

ভোটাররা জানান, প্রতিবারই নির্বাচনের আগে নানা প্রতিশ্রুতি দেন প্রার্থীরা। এবারও তার ব্যাতিক্রম নয়। তাই প্রার্থী বাছাইয়ের আগে জনমত ও মাঠ পর্যায়ে কাজ করে যাচ্ছেন এবং নাগরিক সেবায় যাকে যোগ্য মনে হবে তাকেই ভোট দেবেন।

নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাচন অফিসার সুফিয়া সুলতানা জানান, সুষ্টু পৌর নির্বাচনের লক্ষ্যে সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। আমরা সুষ্টু সুন্দর একটি নির্বাচন উপহার দিতে চাই।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*