ব্রেকিং নিউজ
Home » জাতীয় » নৌকার বিজয় না হওয়া পর্যন্ত যুবলীগ নেতাকর্মীদের কেন্দ্র পাহাড়া দিতে বললেন নিখিল
নৌকার বিজয় না হওয়া পর্যন্ত যুবলীগ নেতাকর্মীদের কেন্দ্র পাহাড়া দিতে বললেন নিখিল
--প্রেরিত ছবি

নৌকার বিজয় না হওয়া পর্যন্ত যুবলীগ নেতাকর্মীদের কেন্দ্র পাহাড়া দিতে বললেন নিখিল

সিলেট প্রতিনিধি:
বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিল বলেছেন, আগস্ট বাঙালি জাতির কাছে শোক এবং বেদনার মাস। এ মাসে জাতির পিতাকে হারিয়েছি। হারিয়েছি এদেশের স্বাধীনতাকামী মানুষের স্বপ্নদ্রষ্টাকে। আরও হারিয়েছি বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুননেছা মুজিব, বঙ্গবন্ধুর তিন পুত্র, দুই পুত্রবধু এবং তার অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ স্বজনদেরও। আগস্ট মাস বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠপুত্র শেখ কামাল ও বঙ্গমাতা ফজিলাতুননেছার জন্মমাসও বটে। এছাড়াও ৫ আগষ্ট, ১৭ আগষ্ট, ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলা, সবই একই সূত্রে গাঁথা। তাই আগষ্টের শোককে শক্তিতে রূপান্তর করে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করতে হবে।

১৫ আগষ্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিবসহ সকল শহীদদের স্মরণে বালাগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের উদ্যোগে মঙ্গলবার (১৭ আগষ্ট) আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, সিলেট-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে বঙ্গবন্ধুর প্রতীক নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে বিজয়ী করতে হবে। নৌকা বঙ্গবন্ধুর প্রতীক, নৌকা শেখ হাসিনার প্রতীক। নৌকা হারতে পারেনা। এজন্য যুবলীগ নেতাকর্মীদের কেন্দ্র পাহাড়া দিতে হবে। নৌকার বিজয় নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত কেন্দ্র ছাড়া যাবেনা।

তিনি বলেন, বাঙালি জাতি হিসেবে আমাদের সবচেয়ে বড় অর্জন আমাদের স্বাধীনতা ও নিজস্ব ভূখণ্ড। বঙ্গবন্ধু, বাঙালি ও বাংলাদেশ একই সূত্রে গ্রথিত- একটি অন্যটির পরিপূরক। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের পর মুক্তিযুদ্ধবিরোধী শক্তি দেশকে বিপরীত স্রোতে নিয়ে যেতে চেষ্টা করে। পাকিস্তানি ভাবধারা পুনঃগ্রথিত করার প্রয়াসে রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে পুরনো মুল্যবোধকে পুনরুজ্জীবিত করার অপচেষ্টা চালায়।

তিনি বলেন, জাতি হিসেবে আমরা ভাগ্যবান যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মতো একজন মহান নেতাকে পেয়েছিলাম। স্বভাবতই বঙ্গবন্ধুর রক্ত অন্য যে কোনো রক্তের চেয়ে আলাদা। বঙ্গবন্ধুর অসাধারণ রক্ত বাঙালি জাতির মুক্তির অনিঃশেষ লড়াইয়ে চিরদিন প্রেরণা জোগাবে।

বালাগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম আহ্বায়ক শাইদুল ইসলাম চৌধুরী এবং গোলাম মোস্তফা বাচ্চুর যৌথ পরিচালনায় প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিলেট-৩ আসনের উপ-নির্বাচনের সংসদ সদস্য প্রার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য হাবিবুর রহমান হাবিব।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম মেম্বার এড. মামুনুর রশিদ ও মো. মোয়াজ্জেম হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বিশ্বাস মুতিউর রহমান বাদশা ও রফিকুল আলম জোয়ার্দ্দার সৈকত, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. সোহেল পারভেজ ও ড. মো. রেজাউল কবির, প্রচার সম্পাদক জয়দেব নন্দী, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মো. শামসুল আলম অনিক, উপ-সাংষ্কৃতিক সম্পাদক ফজলে রাব্বি স্মরণ, কার্যনির্বাহী সদস্য এড. মো. গোলাম কিবরিয়া, নুরুল ইসলাম নুর মিয়া, সিলেট জেলা যুবলীগের সভাপতি শামীম আহমদ ভিপি, কেন্দ্রীয় সদস্য গাজী মো. শাহেদ, এড. চৌধুরী হাসান মো. আব্দুল্লাহ রাজন, সিলেট জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমদ, কেন্দ্রীয় সদস্য এড. ওলিউল্লাহ সারোয়ার সৌরভ প্রমুখ।

এছাড়াও বক্তব্য রাখেন বালাগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোস্তাকুর রহমান মফুর, সাধারণ সম্পাদক আনহার মিয়া, মহানগর আওয়ামীলীগের সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য সেলিম আহমদ সেলিম, মহানগর যুবলীগের আহবায়ক আলম খান মুক্তি, সাধারণ সম্পাদক মুসফিক জায়গীরদারসহ নেতৃবৃন্দ।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*