ব্রেকিং নিউজ
Home » দৈনিক সকালবেলা » উপজেলার খবর » বঙ্গবন্ধু ছিলেন প্রকৃতিপ্রেমিক উখিয়া প্রেসক্লাবের বৃক্ষ রোপন কর্মসূচীতে ইউএনও নিজাম
বঙ্গবন্ধু ছিলেন প্রকৃতিপ্রেমিক উখিয়া প্রেসক্লাবের বৃক্ষ  রোপন কর্মসূচীতে ইউএনও নিজাম

বঙ্গবন্ধু ছিলেন প্রকৃতিপ্রেমিক উখিয়া প্রেসক্লাবের বৃক্ষ রোপন কর্মসূচীতে ইউএনও নিজাম

এম.এ.রহমান সীমান্ত,উখিয়া,কক্সবাজারঃ

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬ তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে কক্সবাজারের উখিয়ায় বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি শুরু করেছে উখিয়া প্রেসক্লাব।১২আগষ্ট (বৃহস্পতিবার) সকাল ১১টায় উখিয়া প্রেসক্লাব ভবন প্রাঙ্গণের আঙ্গিনায় ফলদ গাছের চারা লাগিয়ে কর্মসূচির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন সংগঠনের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নিজাম উদ্দিন আহমেদ।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও)নিজাম উদ্দিন আহমেদ বলেন, “জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন একজন প্রকৃতি ও পরিবেশ প্রেমিক। পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় এ ধরনের কর্মসূচির গুরুত্ব অপরিসীম। ” তিনি আরও বলেন “সাংবাদিকদের কল্যাণে ভূমিকা রাখার পাশাপাশি প্রেসক্লাব পরিবেশ ও জনকল্যাণমুখী কর্মকাণ্ড অব্যাহত রাখবে আশা করি। ” এসময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন আহমেদ আরও বলেছেন,গাছ পরিবেশের অক্সিজেন।গাছ লাগিয়ে পরিবেশ কে প্রকৃতিগত ভাবে সমৃদ্ধ করতে হবে।একটি গাছ একটি সন্তান তুল্য মনে পরিচর্যা করতে হবে,গাছ আপনাদের ঠকাবেনা।মানুষের প্রয়োজনে গাছ,পরিবেশের প্রয়োজনে গাছ।পারিবারের আর্থিক সমৃদ্ধেও গাছের গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রয়েছে।তাই সবুজ বনায়নে প্রত্যেকেই একটি করে গাছ লাগিয়ে দেশকে সবুজ বিপ্লবায়নে আলোকিত করুন।তিনি সকলের প্রতি আহবান জানিয়ে আরও বলেন,গাছের শুণ্যতায় পরিবেশ মরুভুমিতে পরিণত হয়।এসব থেকে উত্তরণে গাছের বিকল্প নেই।

অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও রাজাপালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী বলেন, “বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা আজ সবুজায়নের চাদরে আচ্ছাদিত। প্রকৃতি ও পরিবেশ রক্ষায় জাতির জনকের পথেই হাঁটছে বর্তমান সরকার। “তিনি সাম্প্রতিক সময়ে ইয়াবা কারবারিদের বেপরোয়া উৎপাতে উদ্ধেগ প্রকাশ করে বলেছেন, রোহিঙ্গার কারণে ইয়াবা কারবার বেড়ে গেছে।মাদক প্রতিরোধে সাংবাদিকদের সাহসী লেখনি কামনা করেন তিনি।

রত্নাপালং ইউপির চেয়ারম্যান খাইরুল আলম চৌধুরী বলেছেন,রোহিঙ্গাদের মানবিকতায় আশ্রয় দিয়ে উখিয়া-টেকনাফের পরিবেশ-প্রতিবেশ আজ বিপন্নের পথে।ক্ষতিগ্রস্ত উখিয়া-টেকনাফের অনেক শিক্ষিত ছেলে-মেয়ে বেকার।এসব ছেলে-মেয়েদের কান্নার শব্দ শুনতে চাইনা।তাদের চাকরীর ব্যবস্থা করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করে তিনি সাংবাদিকদের লেখনি সহায়তা চান তারা।

অনুষ্ঠানটিতে সভাপতিত্ব করেন উখিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি সাঈদ মোহাম্মদ আনোয়ার এবং সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক কমরুদ্দিন মুকুল।

এ সময় উখিয়া উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম, উখিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সঞ্জুর মোরশেদ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

এসময় উখিয়া প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি রফিক উদ্দিন বাবুল,সহসভাপতি হুমায়ুন কবির জুসান,সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও কার্য নির্বাহী সদস্য ফারুক আহমদ,অর্থ সম্পাদক সুলতান মাহমুদ চৌধুরী,সাহিত্য ও প্রকাশনা সম্পাদক কাজী হুমায়ুন কর বাচ্চু,দপ্তর ও ক্রীড়া সম্পাদক মাহমদুল হক বাবুল,কার্য নির্বাহী সদস্য নুর মোহাম্মদ শিকদার,ওবায়দুল হক চৌধুরী আবু,সদস্য যথাক্রমে নুরুল আমিন সিদ্দিক, জসিম উদ্দিন চৌধুরী, শ.ম.গফুর,আবদুল্লাহ আল আজিজ,শফিউল শাহীন,ইব্রাহীম মোস্তফা ও এম.ফেরদৌস,উখিয়ায় কর্মরত সংবাদকর্মী মোঃশহীদ,শাহেদ হোছাইন মুবিন,কাজল আইচ ও শামীমুল ইসলাম ফয়সাল, রাজাপালং ইউপির মহিলা সদস্য খোরশিদা বেগম সহ প্রেসক্লাবের সদস্য ও বিভিন্ন শ্রেনীপেশার বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*