ব্রেকিং নিউজ
Home » দৈনিক সকালবেলা » উপজেলার খবর » বাউনবাইরার কতা’র বিনামূল্যে অক্সিজেন সেবা চালু
বাউনবাইরার কতা’র বিনামূল্যে অক্সিজেন সেবা চালু

বাউনবাইরার কতা’র বিনামূল্যে অক্সিজেন সেবা চালু

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ফেসবুকভিত্তিক গ্রুপ ‌’বাউনবাইরার কতা’ এর উদ্যোগে বিনামূল্যে অক্সিজেন সিলিন্ডার সরবরাহের কার্যক্রম শুরু হয়েছে ।
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ‘বাউনবাইরার কতা’ নামের একটি ফেসবুকভিত্তিক গ্রুপের উদ্যোগে বিনামূল্যে অক্সিজেন সেবা দেওয়া হচ্ছে। 
জেলায় করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় সংকটাপন্ন রোগীদের গত বৃহস্পতিবার থেকে এ সেবা দেওয়া হচ্ছে।
সকালে পৌর এলাকার দক্ষিণ মোড়াইলে ‘নিশ্বাস নিবে ব্রাহ্মণবাড়িয়া’ স্লোগানে ২০টি অক্সিজেন সিলিন্ডার দিয়ে ‘বাউনবাইরার কতা’ গ্রুপ এ কর্মসূচি শুরু করে। 
ওই সময় উপস্থিত ছিলেন ‘বাউনবাইরার কতা’ গ্রুপের অ্যাডমিন ও অক্সিজেন ব্যাংকের তত্ত্বাবধায়ক মাহবুবুর রহমান ও অক্সিজেন ব্যাংকের সমন্বয়কারী সোহেল রানা, ‘বাউনবাইরার কতা’ গ্রুপের অ্যাডমিন আরিফুল ইসলাম মোল্লা, রনি খান, সাইফুল ইসলাম, জুবায়ের হায়দার, মোশাররফ হোসেন, সাইফুল জুয়েল, মাহবুব আলম, আতিকুর রহমান, গোলাম কায়সার প্রমুখ।
‘বাউনবাইরার কতা’ গ্রুপের অ্যাডমিন ও অক্সিজেন ব্যাংকের তত্ত্বাবধায়ক মাহবুবুর রহমান ও অক্সিজেন ব্যাংকের সমন্বয়কারী সোহেল রানা জানান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় করোনার সংক্রমণ আশঙ্কাজনকভাবে বেড়েছে। এ ভয়াবহ পরিস্থিতিতে রোগী অনুপাতে হাসপাতালগুলোতে পর্যাপ্ত অক্সিজেন নেই। করোনায় আক্রান্ত জটিল রোগীদের যথাসময়ে বিনা মূল্য অক্সিজেন সিলিন্ডার সরবরাহ করার জন্য ‘বাউনবাইরার কতা অক্সিজেন ব্যাংক’ নামে এ সেবা চালু করা হয়েছে।
তারা জানান, প্রাথমিকভাবে আমরা ২০টি অক্সিজেন সিলিন্ডার ও ৫০ জন স্বেচ্ছাসেবী নিয়ে কার্যক্রম শুরু করেছি। আমাদের লক্ষ্য কমপক্ষে ১০০টি অক্সিজেন সিলিন্ডার দিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসীকে বিনা মূল্যে অক্সিজেন সেবা দেওয়ার।
তারা আরও বলেন, দেশ-বিদেশে থাকা গ্রুপের শুভাকাঙ্ক্ষী, দানশীল ব্যক্তি, পরিচিত ও অপরিচিত মানুষ সেবাদান কর্মসূচিতে অর্থের জোগান দিচ্ছেন। তাঁদের চারটি হটলাইন নম্বর ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকবে। হটলাইনে ফোন করে করোনায় আক্রান্ত যে কেউ বিনা মূল্যে অক্সিজেন সেবা নিতে পারবেন। এখন পর্যন্ত ১০টি অক্সিজেন সিলিন্ডার রোগীদের মাঝে হস্তান্তর করা হয়েছে। 

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*