ব্রেকিং নিউজ
Home » দৈনিক সকালবেলা » উপজেলার খবর » বিজয়নগরে দুই বেয়াইয়ের দ্বন্দ্বে যুবক নিহত, এক বেয়াইয় আটক
বিজয়নগরে দুই বেয়াইয়ের দ্বন্দ্বে যুবক নিহত, এক বেয়াইয় আটক

বিজয়নগরে দুই বেয়াইয়ের দ্বন্দ্বে যুবক নিহত, এক বেয়াইয় আটক

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি।।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে দুই বেয়াইয়ের দ্বন্দ্বে জিহাদ (৩২) নামের এক যুবক ছুরিকাঘাতে নিহত হয়েছেন।

এই ঘটনায় মালু মিয়া নামের এক বেয়াইকে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (১৫ জুন) বিকেল সোয়া ৩টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মারা যান।

এর আগে দুপুর ১টার দিকে উপজেলার সিঙ্গারবিল ইউনিয়নের কাশিনগর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

নিহত জিহাদ ওই এলাকার মালেক মিয়ার ছেলে। সে মালু মিয়ার বেয়াই ইব্রাহীমের গৃহকর্মী ছিলেন। 

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার কাশিনগরের প্রভাবশালী মাদক ব্যবসায়ী ইব্রাহিম মিয়ার মেয়ে নিপা আক্তারকে বিয়ে করেন একই এলাকার মালু মিয়ার ছেলে প্রবাসী সেলিম মিয়া। সম্প্রতি নিপার সাথে তার স্বামীর মনোমালিন্য চলছিল। এই নিয়ে দুই পরিবারের মাঝে দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। গতকাল সোমবার প্রবাসে থাকা সেলিমের সাথে মুঠোফোনে স্ত্রী নিপার তর্কবিতর্ক হয়। তর্কবিতর্ক চলাকালে সেলিম তার স্ত্রী নিপাকে বলে, তোমার বাবা মাদক ব্যবসায়ী। একথা নিপা তার বাবা ইব্রাহীমকে জানালে তার লোকজন শ্বশুর বাড়িতে গিয়ে হামলা করে। মঙ্গলবার সকালে ইব্রাহীমের লোকজনকে স্থানীয় বাজারে পেয়ে মালু মিয়ার লোকজনের উপর হামলা করে। এনিয়ে গ্রামের সড়কে দুই বেয়াইয়ের পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এসময় ইব্রাহীমের পক্ষের জিহাদ মিয়া ছুরিকাহত হলে তাকে উদ্ধার করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসে।

হাসপাতালের সার্জারী বিভাগে বিকেল সোয়া ৩টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। পরে মরদেহটি হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

বিজয়নগর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) লোকমান হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। ইব্রাহীম মিয়ার বেয়াই মালু মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক আছে। মরদেহ ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের মর্গে ময়নাতদন্তের রাখা আছে।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*