ব্রেকিং নিউজ
Home » দৈনিক সকালবেলা » উপজেলার খবর » বোয়ালমারীতে জেলা পরিষদ বানিজ্যিক ভবনের কক্ষ থেকে দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার

বোয়ালমারীতে জেলা পরিষদ বানিজ্যিক ভবনের কক্ষ থেকে দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার

 বোয়ালমারী (ফরিদপুর) প্রতিনিধি : ফরিদপুরের বোয়ালমারী পৌরসদরে অবস্থিত জেলা পরিষদের বানিজ্যিক ভবনের একটি কক্ষ থেকে রবিবার রাতে (০১/০৮/২১ইং) দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র ও ভবনের সামনের সড়ক থেকে মালিক বিহীন একটি মোটরসাইকেল উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ ।উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। এ ব্যাপারে বোয়ালমারী থানার উপপরিদর্শক মো. হাফিজুর রহমান মল্লিক বাদি হয়ে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী (জিডি) করেছেন।থানা সূত্রে জানা যায়, বোয়ালমারী পৌরসদর বাজারের ডাকবাংলো সড়কে জেলা পরিষদের মালিকানাধীন দুই তলা বিশিষ্ট বাণিজ্যিক ভবনের দ্বিতীয় তলার ১৩নং কক্ষে মাদক সেবন ও জুয়া খেলার অভিযোগ পেয়ে রবিবার দিবাগত রাত আনুমানিক ১০টার দিকে বোয়ালমারী থানা পুলিশ এ অভিযান পরিচালনা করেন।ওই ভবনের একাধিক ব্যবসায়ীর সাথে কথা বলে জানা যায়, জেলা পরিষদের বানিজ্যিক ভবনের দ্বিতীয় তলায় ১৭টি দোকান রয়েছে। সেখানে ৪টি দোকান বরাদ্দ দেওয়া হলেও বাকিগুলো বরাদ্দ এখন পর্যন্ত হয়নি। ভবনের ১৩ নম্বর বরাদ্দবিহীন ওই কক্ষটি এক সময় উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রান্ত সিদ্দিক তাঁর ব্যক্তিগত ও ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের কার্যালয় হিসেবে ব্যবহার করতেন। প্রায় সাত মাস আগে জেলা পরিষদের মালিকানায় থাকা পাশের আরেকটি একতলা বাণিজ্যিক ভবনের ভাড়া নেওয়া কক্ষে মেসার্স সিদ্দিক এন্টারপ্রাইজ নামে প্রান্ত’র স্থায়ী কার্যালয় রয়েছে।এ ব্যাপারে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রান্ত সিদ্দিকী বলেন, জেলা পরিষদ মার্কেটে ২য় তলায় কয়েকটি রুম খালি রয়েছে। তৎকালীন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রয়াত লোকমান হোসেনের মৌখিক অনুমতি নিয়ে ওই কক্ষে আমি ব্যবসার কাজ চালাতাম। কক্ষটি প্রায় এক বছর আগেই ছেড়ে দেওয়া হয়। তারপর থেকে কক্ষটি পরিত্যাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছে। সেখানে বহিরাগত কিছু ছেলেরা আসা যাওয়া করে বলে শুনেছি। সেখানে আমার একটি টেবিল ছাড়া এখন অন্য কোন আসবাবপত্র নেই। বর্তমানে আমার ভাড়া নেওয়া নিজের অফিসে ব্যবসার কার্যক্রম চালাই এবং ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বসেন।  অভিযান পরিচালনাকারী কর্মকর্তা থানার উপপরিদর্শক মো. হাফিজুর রহমান বলেন, জেলা পরিষদ মার্কেটের একটি  পরিত্যক্ত কক্ষ থেকে ৬টি রামদা, ১টি চাইনিজ কুড়াল, ১টি ছোরা, ৫ বান্ডিল তাস এবং বিয়ারের ৪টি খালি ক্যান উদ্ধার করা হয়েছে। এ বিষয়ে থানায় জিডি করা হয়েছে। জিডি নম্বার ৪৭। তবে এর সঙ্গে জড়িত কাউকে সনাক্ত করা যায়নি। পরিত্যাক্ত ওই কক্ষটি উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রান্ত সিদ্দিকী এক সময় ব্যবহার করতেন বলে জেনেছি। বোয়ালমারী থানার ওসি মোহাম্মদ নুরুল আলম  বলেন, অভিযান চালিয়ে একটি পরিত্যাক্ত কক্ষ থেকে রামদাসহ কিছু দেশীয় জিনিসপত্র উদ্ধার করা হয়েছে। এগুলো কে বা কারা রেখেছে তা জানা যায়নি। অভিযানের সময় ওই কক্ষেও কাউকে পাওয়া যায়নি। যারা এর সাথে জড়িত তদন্ত করে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*