Monday , 15 July 2024
E- mail: news@dainiksakalbela.com/ sakalbela1997@gmail.com
ব্রেকিং নিউজ
মহম্মদপুরে স্কুল ছাত্রীর অশ্লীল ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে চাঁদা দাবি , আটক -১

মহম্মদপুরে স্কুল ছাত্রীর অশ্লীল ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে চাঁদা দাবি , আটক -১

মহম্মদপুর উপজেলা প্রতিনিধি, মাগুরা:
মাগুরার মহম্মদপুরে এক স্কুলছাত্রীর ‘অশ্লীল’ ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে চাঁদা  দাবির অভিযোগে  কামাল হোসেন মিলন (২৫) নামের এক তরুণকে  উপজেলার কালিশংকরপুর বাজার থেকে আটক করেছে মহম্মদপুর থানা পুলিশ।
মিলন ওরফে কামাল হোসেন একই উপজেলার মহেশপুর গ্রামের তোতা মিয়ার ছেলে।
গতকাল  বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) সন্ধ্যায় ভুক্তভোগী ছাত্রীর মা মহম্মদপুর থানায় পর্নগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করেন।
পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন জানান, মিলন ওরফে কামাল হোসেন  এক সময় সেনাবাহিনীতে কর্মরত ছিলো। কিন্তু ২০১৪ সনে সেখান থেকে চাকুরিচ্যুত হওয়ার পর সে এলাকায় ফিরে বিভিন্ন মানুষের সঙ্গে প্রতারণা চালিয়ে আসছে।
সম্প্রতি মিলন তার পাশের গ্রামের  একটি মেয়ের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। সেই সম্পর্কের জেরে ঘনিষ্টতার সূত্রে সে মেয়েটির মোবাইল ফোন থেকে তার ব্যক্তিগত কিছু ছবি কৌশলে নিজের মোবাইল ফোনে নিয়ে নেয়। পরে ওইসব ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার কথা বলে মেয়েটির পরিবারকে ভয় ভীতি দেখায়। ৬ এপ্রিল মিলন তার অপর এক সঙ্গীকে নিয়ে মেয়েটির বাড়িতে গিয়ে তার চাচার কাছে একইরকম ভয় দেখিয়ে ২০ লক্ষ টাকা দাবি করে। কিন্তু তিনি রাজি না হওয়ায় অন্তত ২ লক্ষ টাকা দুইদিনের মধ্যে পরিশোধের হুমকি দিয়ে আসে। এ অবস্থায় মেয়েটির পরিবার প্রতিবেশিদের কাছে বিষয়টি জানালে তারা ৭ এপ্রিল বিকালে মহম্মদপুরের কালিশঙ্করপুর বাজারে ছেলেটিকে আটক করে পুলিশকে খবর দেয়।
এদিকে খবর পেয়ে মহম্মদপুর থানা পুলিশ, মিলন ওরফে কামালকে মোবাইলসহ আটক করে। যেখানে মেয়েটির কিছু ছবি পাওয়া যায়। এই ঘটনার বিষয় উল্লেখ করে মেয়েটির মা  গতকাল  বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) সন্ধ্যায়  মহম্মদপুর থানায়  পর্নগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করেন।
মহম্মদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) তারক বিশ্বাস জানান, এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত কামালের বিরুদ্ধে পর্নগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে এর আগে একাধিক মামলা রয়েছে। সে প্রেমের সম্পর্কসহ নানা কৌশলে নারীদের অশ্লীল ছবি ও ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে অর্থ আদায় ও প্রতারনা করে আসছে বলে অভিযোগ রয়েছে বলে তিনি জানান।
এদিকে  ওই মেয়েটির নামে একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে উঠেছে। যেখানে সে নিজের নাম পরিচয় প্রকাশ করে তার পরিবার ঘনিষ্ট অপর একজন ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ উত্থাপন করেছে।

নিজের ধারণকৃত ওই ভিডিওর মাধ্যমে মেয়েটি জানিয়েছে যে, তার উপর পরিবার ঘনিষ্ট ওই ব্যক্তি শারীরিক নিপীড়ন চালিয়ে আসছে। ওই ঘটনা থেকে সে মুক্তি চায় বলেও মেয়েটি তার আর্তি  জানিয়েছে।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply