ব্রেকিং নিউজ
Home » দৈনিক সকালবেলা » বিভাগীয় সংবাদ » জেলার-খবর » সংস্থার কমিটি অনুমোদনে টালবাহানা ও গড়িমসি করায়, বরগুনায় এনজিও কর্তৃপক্ষের তোপের মুখে জেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা
সংস্থার কমিটি অনুমোদনে টালবাহানা ও গড়িমসি করায়, বরগুনায় এনজিও কর্তৃপক্ষের তোপের মুখে জেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা

সংস্থার কমিটি অনুমোদনে টালবাহানা ও গড়িমসি করায়, বরগুনায় এনজিও কর্তৃপক্ষের তোপের মুখে জেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা

বরগুনা প্রতিনিধি:
বে-সরকারি উন্নয়ন সংস্থার কমিটি অনুমোদন করতে টালবানা ও গড়িমসি করায় বরগুনায় এনজি কর্তৃপক্ষের তোপের মুখে পরেছে জেলা সমাজ সেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক কাজী মুহাম্মদ ইব্রাহীম ও সহকারি পরিচালক মো. ইউসুফ আলী। বুধবার (৩ নভেম্বর) দুপুরে সদর রোড চরকলোনী জেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তার কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।
জানাগেছে, বরগুনা জেলার স্থানীয় কয়েকটি এনজিওর কমিটি অনুমোদন নিয়ে রীতিমত ঘুরাচ্ছে জেলা সমাজ সেবা কার্যালয়। কোন এনজিওর কমিটির কাগজপত্র জমা দিয়েছে ১ বছর বা তার চেয়েও বেশি সময় আগে। কিন্তু সমাজ সেবা অফিস কর্তৃপক্ষ জমাকৃত কাগজপত্র ত্রুটিপূর্ণ অজুহাতে এনজিওর কমিটি অনুমোদন দিচ্ছে না। তাছাড়া সমাজ সেবা কর্তৃপক্ষ এনজিওর কাগজ সঠিক নেই এই মর্মে এনজিও কর্তৃপক্ষকে কোন চিঠিপত্র না দিয়ে এনজিওর কমিটি অনুমোদনে উদ্দেশ্য মূলকভাবে কালক্ষেপন করছে। কাগজপত্র জমা দেয়ার পরও মাসের পর মাস, মাস পেরিয়ে বছর কমিটি অনুমোদন না করায় বুধবার এনজিও কর্তাদের সাথে সমাজ সেবা অফিসে এ হট্রগোলের সৃষ্টি হয়।
কমলা সমাজ উন্নয়ন সংস্থার সভানেত্রী মনি দেবনাথ বলেন, অনেক আগে এনজিওর কমিটি অনুমোদনের জন্য জেলা সমাজ সেবা অফিসে কাগজ-পত্র জমা দিলেও তারা কমিটি অনুমোদন করে দিচ্ছে না। তাই আজ আমরা এনজিও কর্মকর্তারা জেলা সমাজ সেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক কাজী মুহাম্মদ ইব্রাহীম ,সহকারি পরিচালক মো. ইউসুফ আলী কাছে জানতে চাই অনেক দিন হল কাগজ পত্র জমা দিলাম কেন আমাদের কমিটি অনুমোদন হচ্ছে না ।
সঞ্চিত স্বপ্ন মহিলা সংস্থার নির্বাহী পরিচালক মাহবুবুর রহমান এর কাছে সমাজে সেবা অফিসে হট্রগোল বাজার কারণ জানতে চাইলে তিনি জানান, জেলা সমাজ সেবা অফিসে এনজিওর কমিটি অনুমোদনের জন্য কাগজ-পত্র জমা দিলেও সমাজ সেবা কর্তৃপক্ষ কমিটি অনুমোদন দিতে খালি ঘুরায় । অন্যসব অফিসে গেলে সাথে সাথে কাগজপত্র দেখে অনুমোদন করে দেয়। কাগজপত্র দেওয়ার পরেও কেন ঘুরায় সেটা জানতে অন্যান্য এনজিও কর্তৃপক্ষের সাথে সমাজ সেবায় গিয়ে ছিলাম।
মানবাধিকার কর্মী আসাদুজ্জামান সবুর মুঠোফোনে প্রতিবেদককে জানান, কয়েকটি এনজিওর কমিটি অনুমোদন নিয়ে জেলা সমাজ সেবা কার্যালয় ১ বছরের বেশি ঘুরাচ্ছে। তাই এনজিও কর্তৃপক্ষের তোপের মুখে পরেছে জেলা সমাজ সেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক কাজী মুহাম্মদ ইব্রাহীম ও সহকারি পরিচালক মো. ইউসুফ আলী। এ সময় এনজিও কর্তৃপক্ষ কমিটি অনুমোদন করা না হলে মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলনের হুমকি দিলে সমাজ সেবা কর্তৃপক্ষ কমিটি অনুমোদন করায় আশ্বস্ত করলে পরিস্থিতি শান্ত হয়।
এ বিষয়ে বরগুনা জেলা সমাজ সেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক কাজী মুহাম্মদ ইব্রাহীম এর কাছে জানতে চাইলে তিনি প্রতিবেদককে মুঠোফোনে জানান, এনজিও কর্তৃপক্ষের অভিযোগ সঠিক নয়। তাদের কাগজ পত্র ত্রুটিপূর্ণ থাকায় কমিটি অনুমোদন করা হয়নি। তবে ত্রুটি পূর্ণ কাগজের বিষয় এনজিও কর্তাদের লিখিত কোন চিঠি-পত্র দেওয়া হয়েছে কিনা জানতে চাইলে চিঠি-পত্র দেওয়া হয়নি স্বীকার করে তিনি বলেন তাদের ডেকে মৌখিক ভাবে বলেছে এডি সাহেব। তবে সরকারি অফিসের মৌখিক ভাবে বলা কতটা যুক্তিযুক্ত এমন প্রশ্ন পাঠকের কাছেই রইল।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com