Saturday , 15 June 2024
E- mail: news@dainiksakalbela.com/ sakalbela1997@gmail.com
ব্রেকিং নিউজ
সরকারের সামাজিক নিরাপত্তাবেষ্টনীর আওতায় স্বস্তি মানুষের
--প্রতীকী ছবি

সরকারের সামাজিক নিরাপত্তাবেষ্টনীর আওতায় স্বস্তি মানুষের

অনলাইন ডেস্ক:

দারিদ্র্য বিমোচন এবং ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত দেশ গড়ার লক্ষ্যে পাঁচ কোটি মানুষকে প্রতি মাসে ভাতা প্রদান করছে সরকার। এতে সরকারের ব্যয় হচ্ছে বছরে ৫৭ হাজার ২২৩ কোটি টাকা। বর্তমানে সামাজিক সুরক্ষা কার্যক্রমের ২৫টি নগদ সহায়তা কর্মসূচির মধ্যে ২২টির অর্থ সরকার থেকে ব্যক্তি (জিটুপি) পদ্ধতিতে দেওয়া হচ্ছে। সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় ছাড়াও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়, খাদ্য মন্ত্রণালয়, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় এবং বিভাগ নানা কর্মসূচির মাধ্যমে এসব ভাতা ও খাদ্য সহায়তা দিচ্ছে।

চলতি অর্থবছর (২০২২-২৩) দেশের দুই লাখ এক হাজার ৫৯৩ বীর মুক্তিযোদ্ধাকে ২০ হাজার টাকা হারে মাসিক সম্মানী ভাতা দিচ্ছে সরকার। এ খাতে সরকারের বরাদ্দ রয়েছে চার হাজার ৬৫৩ কোটি ৩৫ লাখ টাকা। আগে এ ভাতার পরিমাণ ছিল ১২ হাজার টাকা। সম্মানী ভাতার পাশাপাশি দুটি উৎসব ভাতা, জীবিত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বিজয় দিবস ভাতা এবং সবার জন্য বৈশাখী ভাতাও চালু রয়েছে। সাধারণ মুক্তিযোদ্ধার পাশাপাশি দেশের প্রায় ১৩ হাজার খেতাবপ্রাপ্ত, শহীদ পরিবার ও যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসা এবং সম্মানী ভাতা দিচ্ছে সরকার। ছয় হাজার ১৭৪ যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধাকে পঙ্গুত্বের ধরনভেদে ২৫ হাজার থেকে ৪৫ হাজার টাকা মাসিক সম্মানী ভাতা দেওয়া হচ্ছে। এ ছাড়া পাঁচ হাজার ৮১৬টি শহীদ পরিবারকে মাসিক ৩০ হাজার, মৃত ও যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধার পরিবারকে মাসিক ২৫ হাজার, সাত বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ পরিবারকে মাসিক ৩৫ হাজার, বীর-উত্তম খেতাবধারীদের মাসিক ২৫ হাজার, বীরবিক্রম খেতাবধারীদের মাসিক ২০ হাজার ও বীরপ্রতীক খেতাবধারীদের মাসিক ১৫ হাজার টাকা হারে ভাতা দেওয়া হচ্ছে।

এ ছাড়া সরকারি কর্মচারীদের অবসর ও পারিবারিক অবসর ভাতাও দেওয়া হচ্ছে। এসব কর্মসূচির সুবিধাভোগীর সংখ্যা এক কোটি ২৮ লাখ ৪৭ হাজার। এসবের বাইরে ১১টি কর্মসূচির মাধ্যমে এক কোটি ৬২ লাখ ৯৭ হাজার মানুষকে বিভিন্নভাবে খাদ্য সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। নগদ অর্থ ও খাদ্য সহায়তার সুবিধাভোগীর সংখ্যা চার কোটি ৯১ লাখ ৪৪ হাজার। এর মধ্যে ভিজিএফে এক কোটি ৮০ লাখ, খাদ্যবান্ধব কর্মসূচিতে ৬২ লাখ ৫০ হাজার, ওএমএসে ৩৭ লাখ ৩৫ হাজার, জিআরে (খাদ্য) ৩৩ লাখ, কাবিটায় ১৮ লাখ ২০ হাজার, কাবিখায় এক লাখ ৮০ হাজার এবং ভিডাব্লিউবি কার্যক্রমে সাড়ে ১০ লাখ মানুষ খাদ্য সুবিধা পাচ্ছেন। বর্তমানে সরকারের ২৪টি মন্ত্রণালয় ও বিভাগের মাধ্যমে দেশে সামাজিক নিরাপত্তাবেষ্টনী খাতের আওতায় ১২৩টি কর্মসূচি চলমান।

সমাজকল্যাণসচিব মো. জাহাঙ্গীর আলম গতকাল গণমাধ্যমকে বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা দুস্থ, বয়স্ক, অসহায়, প্রতিবন্ধী, বিধবা, নির্যাতিতা নারী ও অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের জন্য ভাতা চালু করেছেন।’ তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান গ্রামীণ ও দুস্থ মানুষের ভাগ্য ও জীবন-জীবিকার পরিবর্তনের জন্য ‘সেফটি নেট কর্মসূচি’র সূচনা করেছিলেন। এখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জনকল্যাণে বঙ্গবন্ধুর সেই অসমাপ্ত কর্মসূচি এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন।

সৌজন্যে : বাংলাদেশ প্রতিদিন

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply