ব্রেকিং নিউজ
Home » দৈনিক সকালবেলা » আইন ও আদালত » সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে ভগ্নিপতি খুনের মুল হোতা শ্যালক আহাদ আলীকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৬
সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে ভগ্নিপতি খুনের মুল হোতা শ্যালক আহাদ আলীকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৬
--প্রেরিত ছবি

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে ভগ্নিপতি খুনের মুল হোতা শ্যালক আহাদ আলীকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৬

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি:
সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে শ্যালকের কোদালের আঘাতে ভগ্নিপতি নিহতের ঘটনায় আপন
শ্যালক আহাদ আলীকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৬। রোববার র‌্যাব-৬ খুলনার
সিপিসি সাতক্ষীরা র‌্যাব ক্যাম্পের কর্মকর্তারা অভিযান চালিয়ে যশোর জেলার
মনিরামপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে। সে উক্ত মামলার ২নং আসামী।

নিহতের নাম সামসুর রহমান গাজী (৫৫)। তিনি জেলার কালিগঞ্জ উপজেলার
রঘুনাথপুর গ্রামের বাসিন্দা।

প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, গত ১৫ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুরে কালিগঞ্জ
উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের রঘুনাথপুর গ্রামের বিলে সামসুর রহমান গাজীর
মাছের ঘের রয়েছে। মঙ্গলবার রাতে মিজানুর রহমান নামের এক ব্যক্তি ওই ঘেরে
মাছ ধরতে গেলে পাহারাদারদের নজরে পড়ে। ওই স্থান থেকে তার জামা ও গেঞ্জিও
উদ্ধার করা হয়।

পরবর্তীতে মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে কৃষ্ণনগর ইউপি চেয়ারম্যান সাফিয়া
পারভিনের কাছে অভিযোগ জমা দেন ঘের মালিকরা। মিজানুরের নামে ইউপি
চেয়ারম্যানের কাছে নালিশ হওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে তার দুই মামা ফজর আলী ও আহাদ
আলী সামসুর রহমানের বাড়িতে এসে বচসা শুরু করেন। এসময় কথা কাটাকাটির জেরে
ফজর আলী কোদাল দিয়ে সামসুর রহমানকে আঘাত করে। ঘটনাস্থলে লুটিয়ে পড়ে
সামসুর রহমান। পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে গিয়ে আক্রমণকারীদের হামলায় গুরুতর
আহত হন সামসুরের স্ত্রী মাজিদা খাতুনও। গুরুতর আহত অবস্থায় সামসুর রহমান গাজী ও তার স্ত্রীকে কালিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সামসুর রহমানকে মৃত
ঘোষনা করেন।

এ ঘটনায় সামছুর গাজীর ছেলে মিজানুর রহমান বাদী হয়ে ওই রাতেই কালীগঞ্জ থানায়
০৬ জন সহ আরো অজ্ঞাতনামা ২/৩ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন। এই
ঘটনা জনমনে উদ্বেগের সৃষ্টি করে। বিষয়টি নিয়ে র‌্যাব-৬, সাতক্ষীরার একটি
আভিযানিক দল আসামীদের আইনের আওতায় আনার জন্য গোপনে ছায়া তদন্ত শুরু করেন
এবং তাদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রাখেন।

এরই ধারাবাহিকতায় ১৮ সেপ্টেম্বর র‌্যাব-৬, সাতক্ষীরা এর আভিযানিক দলটি
গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উক্ত চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার ২ নং আসামী আহাদ আলী
গাজী (৪০) যশোর জেলার মনিরামপুর থানা এলাকায় গোপনে অবস্থান করছে জানতে
পেরে অভিযান পরিচালনা করে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। প্রাথমিক
জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তারকৃত আহাদ আলী গাজী (৪০) উক্ত হত্যার সাথে জড়িত
থাকার কথা স্বীকার করে। তাকে জেলার কালীগঞ্জ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে
বলে জানিয়েছেন র‌্যাব-৬।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com