ব্রেকিং নিউজ
Home » প্রচ্ছদ » ২৮ বছর পর নিউ ইয়র্কবাসী পেলেন একজন কৃষ্ণাঙ্গ মেয়র
২৮ বছর পর নিউ ইয়র্কবাসী পেলেন একজন কৃষ্ণাঙ্গ মেয়র
--সংগৃহীত ছবি

২৮ বছর পর নিউ ইয়র্কবাসী পেলেন একজন কৃষ্ণাঙ্গ মেয়র

অনলাইন ডেস্ক:

নিউ ইয়র্কের ১১০তম মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন এরিক অ্যাডামস। প্রায় ২৮ বছর পর নিউ ইয়র্কবাসী পেলেন একজন কৃষ্ণাঙ্গ মেয়র। নিউ ইয়র্কের ১০৬তম প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ মেয়র ডেভিড এন ডিনকিন্স-এর পর এরিক দ্বিতীয় কৃষ্ণাঙ্গ মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। গত মঙ্গলবার (২ নভেম্বর) অনুষ্ঠিত সিটি নির্বাচনে তার রিপাবলিকান প্রতিপক্ষ কার্টিস স্লিওয়ারকে বিপুল ভোটে পরাজিত করে মেয়র নির্বাচিত হন এরিক। রাত ৯টার পর নির্বাচন কমিশন ব্রুকলিন বরো প্রেসিডেন্ট এরিক অ্যাডামকেনিউ ইয়র্ক সিটির নির্বাচিত মেয়র হিসেবে ঘোষনা করেন। এ খবর জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম বাংলা প্রেস।
এরিক অ্যাডামস নিউ ইয়র্ক সিটির সাবেক পুলিশ ক্যাপ্টেন। ডেমোক্রেটিক দলের ব্রুকলিন বরো প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালনের আগে রাজ্য সিনেটর হিসেবেও নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি নিউ ইয়র্ক সিটির ইতিহাসে দ্বিতীয় কৃষ্ণাঙ্গ মেয়র হওয়ার রেকর্ড গড়লেন। তিনি মনোযোগ আকর্ষণকারী একজন ব্যক্তি। জাতিগত ন্যায়বিচারের প্রতি ছিল তার গভীর মনোযোগ। জনসাধারণের জন্য জীবনের এক দশকের দীর্ঘ কর্মজীবনকে উৎসাহিত করেছিল। তিনি মধ্যপন্থী ডেমোক্র্যাট হিসেবে পরিচিত। সাম্প্রতিক নাগরিক আন্দোলনে পুলিশের তহবিল কর্তনের বিরোধিতা করেছেন তিনি। তাঁর নেতৃত্বে পুলিশ ও নাগরিক আন্দোলনের সংগঠনের সমন্বয়ে নগরের অপরাধ দমনে কার্যকর থাকা সহজ হবে বলে মনে করা হচ্ছে। কৃষ্ণাঙ্গদের পক্ষ থেকে বর্ণবৈষম্যের অভিযোগও তিনি মোকাবিলা করতে পারবেন বলে মনে করা হচ্ছে।
ব্রুকলিন বরো হলের তার অফিসের ঠিক কোণে ব্রুকলিন ব্রিজের নিউ ইয়র্ক ম্যারিয়টে আয়োজিত তার প্রচারাভিযান উদযাপনে অ্যাডামস এক ঘণ্টারও কম সময় পরে জাদাকিসের “দ্য চ্যাম্প ইজ হিয়ার” মঞ্চে উচ্ছ্বসিতভাবে হেঁটে যান। তিনি নিউ ইয়র্কবাসীদের একত্রিত হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, “আমরা এখন অনেক বিভক্ত। আমরা আমাদের বৈচিত্র্যের সৌন্দর্য হারিয়ে ফেলছি,” তাই সবাইকে একত্রিত হয়ে কাজ করতে হবে। তিনি বলেন, “আজ আমরা অন্তর্মুখী জার্সি খুলে ফেলে একটি নতুন জার্সি পরলাম। যার নাম: টিম নিউইয়র্ক।”

অ্যাডামস আগামী ১ জানুয়ারীতে মেয়র হিসাবে দায়িত্ব গ্রহণ করবেন। একটি বিস্ময়কর চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হচ্ছেন তিনি। যখন দেশের বৃহত্তম শহরটি মহামারীর স্থায়ী পরিণতিগুলির সাথে লড়াই করছে, যার মধ্যে একটি অনিশ্চিত এবং অসম অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার এবং অপরাধ এবং গুণমান সম্পর্কে অব্যাহত উদ্বেগ রয়েছে শহরের জীবনের।

তার বিজয় আরও মধ্য-বাম গণতান্ত্রিক নেতৃত্বের সূচনার সংকেত দেয় যে তিনি প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন যে শ্রমজীবী এবং মধ্যবিত্ত ভোটারদের চাহিদা প্রতিফলিত করবে যারা তাকে দলের মনোনয়ন দিয়েছে এবং তার সাধারণ নির্বাচনী জোটের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ছিল।

অ্যাডামস তার রিপাবলিকান প্রতিপক্ষ কার্টিস স্লিওয়ার বিরুদ্ধে জয়ী হয়েছেন। তিনি গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক লিডারদের সাথে কাজ শুরু করবেন।

NEWS: Bangla Press ( USA )

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com