Wednesday , 31 May 2023
E- mail: news@dainiksakalbela.com/ sakalbela1997@gmail.com
ব্রেকিং নিউজ
৩০ বিলিয়ন ইয়েন দেবে জাপান
--সংগৃহীত ছবি

৩০ বিলিয়ন ইয়েন দেবে জাপান

অনলাইন ডেস্ক:

বাংলাদেশকে বাজেট সহায়তা দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে জাপান। গতকাল বুধবার টোকিওতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠকে জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা এই আশ্বাস দেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন গতকাল সন্ধ্যায় এক ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের বলেন, জাপানের প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশকে ৩০ বিলিয়ন ইয়েন (প্রায় দুই হাজার ৩৮৬ কোটি টাকা) সহায়তা দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন। এ ছাড়া দ্রুততম সময়ের মধ্যে অর্থনৈতিক চুক্তির বিষয়ে কাজ করতে উভয় পক্ষ সম্মত হয়েছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী গতকাল জাপানে যে বৈঠকগুলো করেছেন তার প্রতিটিই ফলপ্রসূ হয়েছে। এগুলো সুদূরপ্রসারী সম্পর্কের দ্বার উন্মোচন করবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল জাপানে তাঁর সরকারি সফরের দ্বিতীয় দিনে জাপানের সম্রাট নারুহিতোর সঙ্গে সম্রাটের বাসভবন ইম্পেরিয়াল প্যালেসে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। জাপানের সম্রাট প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান এবং দুই দেশের সম্পর্ক আরো গভীরতর হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, জাপানের সহযোগিতায় এরই মধ্যে মাতারবাড়ী আঞ্চলিক কানেক্টিভিটি বা যোগাযোগের কেন্দ্রে পরিণত হয়েছে। আগামী দিনে আরো বাড়বে। প্রধানমন্ত্রী এ জন্য জাপানকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন বাংলাদেশে গভীর সমুদ্রবন্দর নির্মাণে জাপানের সহযোগিতার কথা উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, গভীর সমুদ্রবন্দর চালু হওয়ায় আমদানি-রপ্তানি খরচ কমবে।

পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন বলেন, জাপান এই অঞ্চলে কানেক্টিভিটিকে নতুন করে সাজানোর পরিকল্পনা করছে। এটি বাস্তবায়ন করা গেলে পুরো অঞ্চলের পরিস্থিতি বদলে যাবে। এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ও জাপানের আগ্রহ আছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর এই সফরের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ ও জাপানের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক কৌশলগত অংশিদারিতে উন্নীত হয়েছে। এটি আগামী ৫০ বছরে দুই দেশের কূটনৈতিক সম্পর্কের রূপরেখা হিসেবে বিবেচিত হবে। এই বৈঠকে দুই দেশের মধ্যে দ্রুততম সময়ে অর্থনৈতিক অংশীদারি চুক্তি সম্পন্ন, বিগ-বি প্রকল্পের মাধ্যমে আঞ্চলিক যোগাযোগ জোরদারকরণ, অর্থনৈতিক অবকাঠামোর উন্নয়ন, বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টি, জাপান ওভারসিজ কো-অপারেশন ভলান্টিয়ার প্রকল্প আবারও চালুকরণ, বাণিজ্য, বাংলাদেশের বিশেষায়িত অর্থনৈতিক অঞ্চলে জাপানি বিনিয়োগ, মুক্ত ইন্দো-প্যাসিফিক, ঢাকা-টোকিও সরাসরি বিমান চলাচল ইত্যাদি বিষয়ে আলোচনা হয়।

মোমেন বলেন, প্রধানমন্ত্রী ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের সহযোগিতার জন্য জাপানকে ধন্যবাদ জানান এবং দ্রুত রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফেরত পাঠানোর জন্য দেশটির সহযোগিতা আশা করেন। বৈঠক শেষে একটি চুক্তি ও সাতটি সহযোগিতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে। পরে প্রধানমন্ত্রীর সম্মানে জাপানের প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে আয়োজিত নৈশভোজের মাধ্যমে শীর্ষ বৈঠকের আনুষ্ঠানিকতা শেষ হয়।

জাপান-বাংলাদেশ কমিটি ফর কমার্শিয়াল অ্যান্ড ইকোনমিক কো-অপারেশনের (জেবিসিসিইসি) চেয়ারম্যান ফুমিও কোকুবু, জাইকার প্রেসিডেন্ট তানাকা আকিহিকো, জেটরোর চেয়ারম্যান ও সিইও ইশিগুরো নরিহিকো এবং জাপান-বাংলাদেশ পার্লামেন্টারি ফ্রেন্ডশিপ লীগের (জেবিপিএফএল) প্রেসিডেন্ট তারো আসো গতকাল সকালে এবং জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইয়োশিমাসা হায়াশি বিকেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন আকাসাকা প্যালেসে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন এবং দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতার বিষয়ে আলোচনা করেন।

সূত্র: কালের কন্ঠ অনলাইন

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply