Sunday , 27 September 2020
Home » খেলাধুলা » বাংলাদেশ সফরে নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কায় ইংল্যান্ড অধিনায়ক
বাংলাদেশ সফরে নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কায় ইংল্যান্ড অধিনায়ক

বাংলাদেশ সফরে নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কায় ইংল্যান্ড অধিনায়ক

নিরাপত্তার সব শঙ্কা উড়িয়ে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল বাংলাদেশে আসবে এমনই দৃঢ় বিশ্বাস ছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের।

কিন্তু তার সেই বিশ্বাসের কোনো মান রাখেনি ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। এবার ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফর নিয়ে তেমনই আশাবাদী বিসিবি সভাপতি।

কিন্তু ঢাকার গুলশানে আর্টিজান হোটেলে জঙ্গি হামলায়  দেশি-বিদেশি ২০ নাগরিকের ভয়ঙ্কর মৃত্যুর ঘটনায় আলোড়িত গোটা বিশ্ব।

এতে প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছে ইংল্যান্ডও। এরই মধ্যে দেশটির সরকারের পক্ষ থেকে বাংলাদেশে তাদের সব নাগরিকের চলাফেরায় সতর্কতার এলার্ট দেয়া হয়েছে। শুধু তাই নয়, ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট  বোর্ড (ইসিবি) এরই মধ্যে বাংলাদেশের পরিস্থিতি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করার ঘোষণা দিয়েছে।

সেই সঙ্গে বাংলাদেশে তাদের জাতীয় ক্রিকেট দল পাঠানোর আগে পাঠানো হবে অগ্রবর্তী নিরাপত্তা পরিদর্শক দল। তাদের রিপোর্টের ওপর নির্ভর করেই সিদ্ধান্ত নেবে বাংলাদেশে পূর্ণাঙ্গ ক্রিকেট সফরে আসবে কিনা ইংলিশ দল।

যেমনটি পাঠানো হয়েছিল অস্ট্রেলিয়া সিরিজের আগেও। সেবার অজি পর্যবেক্ষক দলকে সর্বোচ্চ নিরাপত্তার আশ্বাস দিলেও অস্ট্রেলিয়া সফর বাতিল করে। তবে নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘গুলশানে হামলার ঘটনায় ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফরের ওপর কোনো প্রভাব পড়বে বলে মনে করি না, আমরা উদ্বিগ্নও নই।

তবে এমন ঘটনার পর তাদের ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের উৎকণ্ঠিত হওয়া বা বিচলিত হওয়া সঠিক। আমরা সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দিতেই প্রস্তুত আছি।’

গতকাল গুলশানে তার নিজ বাসভবনে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে বারবারই সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দেয়ার বিষয়টি তুলে ধরেন নাজমুল হাসান পাপন।
তবে নাজমুল হাসান পাপন যতই শঙ্কা উড়িয়ে দেন, ইংল্যান্ড কিন্তু ঠিক সে শঙ্কার কথা বলছে জোরালোভাবে। তাই যতই নিরাপত্তার কথা বলা হোক ইংলিশরা শেষ পর্যন্ত যে সফর বাতিল করতে পারে এমন শঙ্কার কথা জানিয়েছে  বৃটিশ দৈনিকগুলো।

আসন্ন বাংলাদেশ সফরের শঙ্কা নিয়ে ‘দ্য গার্ডিয়ান’ তাদের খবরের শিরোনাম করেছে, ‘ঢাকায় সন্ত্রাসী হামলার পর ইংল্যান্ডের বাংলাদেশ সফর নিয়ে শঙ্কা’।

ভেতরে তারা লিখেছে, ‘হোলি আর্টিজান বেকারি ক্যাফে থেকে শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের দূরত্ব মাত্র ৫ মাইল।

ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের খেলোয়াড়রা সাধারণত থাকে প্যান প্যাসিফিক ও সোনারগাঁও হোটেলে। সন্ত্রাসী হামলার স্থান থেকে তার দূরত্ব ৬ মাইল।’ অন্যদিকে ‘দ্য গার্ডিয়ান’-এর মতো একই শিরোনাম করেছে ‘দ্য টেলিগ্রাফ’।

আর জনপ্রিয় ট্যাবলয়েড  ‘ডেইলি মেইল’ শিরোনাম করেছে, ‘ঢাকা হত্যাকাণ্ডের পর বাংলাদেশ সফর বাতিলের জন্য ইংল্যান্ড প্রস্তুত’।

তাদেরকে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, ‘আমাদের দলের খেলোয়াড় এবং ম্যানেজমেন্টের নিরাপত্তার বিষয়টা অনেক গুরুত্বপূর্ণ।

এই বিষয়টি সবার আগে মাথায় নিয়ে ইংল্যান্ড দল বিদেশে সফর করে। আমরা আগামী কয়েক সপ্তাহ ও মাস বাংলাদেশের নিরাপত্তার বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করবো।’
গত বছর নিরাপত্তার অজুহাতে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল বাংলাদেশ সফল বাতিল করে। এরপর অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপেও ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া যুব দল না পাঠিয়ে বিশ্বকাপ থেকে নাম প্রত্যাহার করে নেয়।

পরে দক্ষিণ আফ্রিকা মহিলা দলও বাংলাদেশে আসেনি নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে। প্রায় সাড়ে ছয় বছর পর বাংলাদেশে সিরিজ খেলতে আসার বিষয়টি নিশ্চিত করেছিল ইংল্যান্ড।

এই ঘোষণার চার দিন না কাটতেই সন্ত্রাসী হামলার কারণে অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়েছে সিরিজটি। সফরে ইংল্যান্ডের বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে ও ২ ম্যাচের টেস্ট সিরিজের কথা রয়েছে ঢাকা ও চট্টগ্রামের দুটি ভেন্যুতে।

সেই হিসেবে আগামী ৩০শে সেপ্টেম্বর বাংলাদেশে আসার কথা ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের। তবে  হাতে এখনও তিন মাস সময় থাকাতে পরিস্থিতি সহজ হয়ে আসবে বলেই আশা করছে বিসিবি

About Expert

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!