Tuesday , 20 October 2020
E- mail: news@dainiksakalbela.com/ sakalbela1997@gmail.com
Home » জাতীয় » ‘গণতন্ত্রকে আজ খুন করলো বিজেপি’

‘গণতন্ত্রকে আজ খুন করলো বিজেপি’

ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীর বিশেষ মর্যাদা দেয়া সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল নিয়ে উত্তাল হয়ে উঠল দেশটির উচ্চকক্ষ (সংসদ)। প্রবল বিরোধিতার মুখেও অধিবেশেনে প্রস্তাবটি পাশ করিয়ে নিয়েছে ক্ষমতাশীন দল বিজেপি। ফলে এখন থেকে আর বিশেষ মর্যাদা থাকছে না জম্মু-কাশ্মীরের।

সোমবার দুপুরে রাজ্যসভায় ৩৭০ ধারা বাতিলের ওই প্রস্তাব উত্থাপণ করেন ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। এমন খবর প্রকাশ করেছে ভারতীয় সংবাদ সংস্থা আনন্দবাজার।
অমিত শাহ প্রস্তার উত্থাপণের সঙ্গে সঙ্গে কংগ্রেসের রাজ্যসভার গোলাম নবি আজাদ ক্ষমতাশীন দল বিজেপিকে তীব্র আক্রমণ করে বলেন, ‘এক ঝটকায় ৩-৪টি জিনিসকে শেষ করে দিলো বিজেপি। এক দিকে ওরা যেমন ৩৭০ ধারার অবলুপ্তি ঘটালো, সেই সঙ্গে ৩৫এ ধারাকেও শেষ করে দিলো। গণতন্ত্রকে আজ খুন করলো বিজেপি।’

এ সময় আজাদকে থামিয়ে দিয়ে অমিত শাহ পাল্টা জবাবে বলেন, ‘১৯৫২ ও ১৯৬২ সালে কংগ্রেস একই পদ্ধতিতে ৩৭০ ধারার সংশোধন করেছিলো। অতএব বিরোধিতা না করে আমাকে বলতে দিন। আপনাদের সব সন্দেহ এবং ভুল বোঝাবুঝির বিষয়টি পরিষ্কার হয়ে যাবে।’

কিন্তু তার পরেও বিরোধীদের তীব্র প্রতিবাদ দেখা যায় অধিবেশনে। কংগ্রেস, পিডিপি, তৃণমূল কংগ্রেস, ডিএমকে-র সাংসদরা প্রতিবাদ জানাতে রাজ্যসভার মেঝেতেই বসে পড়েন। পাশাপাশি এই প্রস্তাবের প্রবল বিরোধিতা করে আরজেডি ও সমাজবাদী পার্টি এবং সিপিএম। রাজ্যসভা থেকে ওয়াক আউট করে বিজেপির শরিক দল জেডি (ইউ)। নিজের জামা ছিঁড়ে প্রতিবাদ জানান রাজ্যসভায় পিডিপি সাংসদ ফৈয়াজ আহমেদ মীর। সংবিধানের কপি ছিঁড়ে ফেলার জন্য পিডিপি সাংসদ ফৈয়াজ ও নাজির আহমেদকে সংসদ ছেড়ে বেরিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেন রাজ্যসভার চেয়ারম্যান বেঙ্কাইয়া নায়ডু।
মোদি সরকারের এই সিদ্ধান্ত বা নীতির বিরোধিতা করলেও ৩৭০ ধারার বিষয়ে কিন্তু তাদের পাশেই দাঁড়িয়েছে বহুজন সমাজ পার্টি, বিজু জনতা দল, ওয়াইএসআর কংগ্রেস, তেলঙ্গানা রাষ্ট্র সমিতি, এআইএডিএমকে, আম আদমি পার্টি (আপ)।

এ বিষয়ে আপ নেতা অরবিন্দ কেজরীবাল বলেন, ‘জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে সরকারের এই সিদ্ধান্তকে আমরা সমর্থন করছি। আশা করি এই সিদ্ধান্তের ফলে রাজ্য শান্তি ফিরে আসবে। উন্নয়ন হবে।’

প্রধানমন্ত্রী এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রশংসা করে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অরুণ জেটলি বলেন, ‘একটা ঐতিহাসিক ভুলের সংশোধন হল। সংবিধানের ৩৬৮ ধারাকে না মেনে পিছন দরজা দিয়ে ৩৫এ ধারাকে আনা হয়েছিল।’

এদিকে কেন্দ্রের সিদ্ধান্তের প্রবল বিরোধিতা করেন পিডিপি নেত্রী ও কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি বলেন, ‘আজ ভারতীয় গণতন্ত্রের কালো দিন। ৩৭০ ধারাকে বাতিল করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের। এটা সম্পূর্ণ অসাংবিধানিক। কেন্দ্রের পরিকল্পনাটা এখন স্পষ্ট। রাজ্যের মানুষকে ভয় দেখিয়ে জম্মু-কাশ্মীর দখল করতে চাইতে তারা। কাশ্মীরকে যে কথা দেয়া হয়েছিল, তা রাখতে ব্যর্থ হয়েছে ভারত।’

ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতা ও সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লা এক বিবৃতিতে জানান, ‘এটা একটা হতাশাজনক সিদ্ধান্ত। কাশ্মীরের মানুষের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করা হল।’

About Sakal Bela

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*