অষ্টগ্রামে নববধূ হত্যা; এখনো গ্রেফতার হয়নি ঘাতক স্বামী!

স্টাফ রিপোর্টার ঃ   এক সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও কিশোরগঞ্জের অষ্টগ্রামে নববধূ চায়না আক্তারের ঘাতক স্বামী ফায়েজ মিয়াকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ!পুলিশের ধারনা, আসামী এলাকার বাইরে আত্মগোপনে আছে, তাই তাকে গ্রেফতার করতে বিলম্ব হচ্ছে।
গত ৩১ জুলাই দুপুরে উপজেলার আলীনগর গ্রামের উত্তর পাড়া থেকে নববধূ চায়না আক্তারের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। দরিদ্র কৃষক আক্কাস আলী ও সাহেরা বেগম দম্পতির তিন ছেলে এবং চায়না ছিলো তাদের একমাত্র     মেয়ে।সে অষ্টগ্রাম আ’লীম মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেেণীর    ছাত্রী ছিলো।  গত ৮ ই জুলাই একই গ্রামের মধ্য পাড়ার সমির উদ্দিনের ছেলে ফায়েজ মিয়ার সাথে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়েছিল চায়না আক্তারের। বিয়ে হলেও চায়নাকে স্বামীর বাড়িতে নেওয়া হয়নি।ঈদের পর আত্মীয় স্বজনসহ ধুমধাম অনুষ্ঠান করে স্বামীর বাড়িতে যাওয়ার কথা থাকলেও ভাগ্যের কি নির্মম পরিহাস পালকিতে উঠার আগেই কবরস্থানের খাটে উঠতে হলো গ্রামের সহজ সরল মেয়েটির।

বিয়ের পর স্ত্রীকে নিজ বাড়িতে না নিলেও ফায়েজ প্রায়ই শ্বশুর বাড়িতে এসে রাত্রিযাপন করতেন।গত মঙ্গলবার (৩০.০৭.১৯) দিবাগত রাতেও সে শ্বশুর বাড়িতে এসেছিলো। পরদিন সকালে স্ত্রীকে ঘরে তালাবদ্ধ রেখে কেউ কোনোকিছু টের পাওয়ার আগেই সে পালিয়ে যায়।

চায়নার বাবা আক্কাস আলী বলেন,আমি ফায়েজ কে প্রধান আসামী করে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছি কিন্তু এক সপ্তাহ হয়ে গেলো এখনো আসামীকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ!