আগে সাধারণ মানুষ যাবে, পরে ভিআইপিরা : মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

চলাচলের পথে পুলিশি নিরাপত্তায় ‘বাড়াবাড়ি’ দেখে একাধিকবার গাড়ি থেকে নেমে পড়েছিলেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কলকাতা বিমানবন্দর থেকে শহরে যাওয়ার পথে পুলিশকে সতর্ক করে দিয়ে তিনি বলেছেন, ‘প্রয়োজনে আমি দাঁড়াব। আমার জন্য সাধারণ মানুষের যাতায়াতে অসুবিধা হলে আমি মানব না।’
বৃহস্পতিবার মমতা চেন্নাই থেকে কলকাতায় ফেরেন। বিমানবন্দর থেকে শহরে ঢোকার পরে প্রথমে তেঘরিয়া মোড়ের কাছে তার নজরে পড়ে, সার্ভিস রোডে অনেক গাড়ি সার দিয়ে দাঁড়িয়ে। তখনই গাড়ি থেকে নেমে ট্রাফিক কর্মীদের মুখ্যমন্ত্রী জিজ্ঞাসা করেন, তিনি যাচ্ছেন বলেই কি রাস্তা বন্ধ করে গাড়ি দাঁড় করানো হয়েছে? এর পরে তিনি ঘটনাস্থলে হাজির পুলিশ কর্তাদের নির্দেশ দেন, আগে সাধারণ মানুষ, পরে ভিআইপি।

প্রায় ১০ মিনিট মুখ্যমন্ত্রী রাস্তায় দাঁড়িয়ে থেকে অন্য গাড়ির যাতায়াত চালু করে দেন। তাকে রাস্তায় দেখে ভিড় বাড়ে। তাদের সঙ্গে কথা বলে ফের রওনা দেন মুখ্যমন্ত্রী। এর পর তাপুরিয়াঘাটাতেও ট্রাফিক আটকানো হয়েছে দেখে রাস্তায় নেমে পুলিশ কর্তাদের নির্দেশ দেন তিনি।
পাইলট নিয়ে, হুটার বাজিয়ে একাধিক গাড়ির কনভয় নিয়ে যাতায়াত মমতার পছন্দের নয়। কিন্তু সাধারণের মতো চলতে গিয়ে তার কনভয়ের কাছে অনেক সময়েই গাড়ি চলে আসে। ফলে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন দায়িত্বে থাকা নিরাপত্তারক্ষীরা।
মুখ্যমন্ত্রীর অবশ্য স্পষ্ট নির্দেশ, প্রয়োজনে তিনি কিংবা অন্য ভিআইপিরা অপেক্ষা করবেন। ট্রাফিক স্বাভাবিক রাখতেই হবে। সাধারণ মানুষের যেন অসুবিধা না হয়। কিছু দিন আগে উত্তর ২৪ পরগনা জেলার প্রশাসনিক বৈঠকে যাওয়ার সময়েও জেলা পুলিশ কর্তাদের সতর্ক করে যান চলাচল স্বাভাবিক রাখার নির্দেশ দিয়েছিলেন তিনি।
তথ্যসূত্র : আনন্দবাজার