গোয়ালন্দ শিশু সংসদে বড় পদ দেয়ার প্রোলভন দেখিয়ে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ

কামাল হোসেন, রাজবাড়ী প্রতিনিধিঃ

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ইউনিয়নে এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। ধর্ষিত ছাত্রী দৌলতদিয়া মজিদ শেকের পাড়ার বাসিন্দা ও মুক্তিযোদ্ধা ফকির আব্দুল জব্বার গার্লস স্কুল এন্ড কলেজর ৯ ম শ্রেণীর ছাত্রী। ধর্ষক জহিরুল মোল্লা,(২৪) হোসেন মন্ডল পাড়ার খবির মোল্লার ছেলে এবং গোয়ালন্দ শিশু সংসদের চেয়ারম্যান।

জহিরুল মোল্লা গোয়ালন্দ শিশু সংসদের চেয়ারম্যান। অতি সম্প্রতি এই সংগঠনের ইউনিয়ন কমিটি গঠিত হচ্ছিল এমতাবস্থায় ঐ কিশোরী স্কুল ছাত্রীকে মূল কমিটিতে বড় পদ দেয়ার কথা বলে প্রতিনিয়ত অনৈতিক কাজে লিপ্ত হচ্ছিল। তারই ধারাবাহিকতায় ১৯ (আগস্ট) সোমবার রাএে ঐ কিশোরীকে ধর্ষণের উদ্দেশ্যে মজিদ শেকের পাড়ায় আসলে এলাকাবাসী তাকে হাতে নাতে আটক করে।

ধর্ষিতার চাচা বলেন, জহিরুল মোল্লা গোয়ালন্দ শিশু সংসদের নাম ভাঙিয়ে এসব অনৈতিক কাজ করে আসছিল।

গোয়ালন্দ শিশু সংসদের প্রতিষ্ঠাতা মোঃ আমিনুল ইসলামের বুলবুলের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ ঘটনার সত্যতা শিকার করে বলেন, এ ঘটনা শোনা মাএই জহিরুল মোল্লাকে গোয়ালন্দ শিশু সংসদের চেয়ারম্যান পদ থেকে বহিস্কার করা হয়েছে।

গোয়ালন্দ শিশু সংসদের সাবেক দুইজন সাধারণ সম্পাদকের একজন মাদকসহ গ্রেফতার হয় আর একজন অন্যের বউ নিয়ে চলে যায় এই প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন যাকেই পদ দেই তারাই ক্ষমতার অপব্যবহার করে অনৈতিক কর্মকাণ্ডে জরিত হয়।