এমসিসির যাত্রা শুরু

সকালবেলা অনলাইনঃ খবরটা নিশ্চিত হয়েছিল গত মে মাসেই। ব্রিটেনের বাইরে প্রথম ব্যক্তি হিসেবে ঐতিহাসিক মেরিনিবোন ক্রিকেট ক্লাবের (এমসিসি) প্রেসিডেন্ট পদে মনোনীত হয়েছিলেন শ্রীলঙ্কান কিংবদন্তি ক্রিকেটার কুমার সাঙ্গাকারা। এবার আনুষ্ঠানিকভাবে বুঝে নিয়েছেন এই দায়িত্ব।

মঙ্গলবার প্রথম অফিসও সেরে ফেলেছেন ক্রিকেটের আইনকানুনের অভিভাবক সংস্থা হিসেবে পরিচিত অভিজাত এই ক্লাবের নবনিযুক্ত প্রেসিডেন্ট কুমার সাঙ্গাকারা। এমসিসির প্রেসিডেন্টের মেয়াদ এক বছর। ফলে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এ দায়িত্ব পালন করবেন সাবেক লঙ্কান অধিনায়ক।

আজ থেকে প্রায় ১৭ বছর আগে, ২০০২ সালে এমসিসির সঙ্গে যাত্রা শুরু হয় সাঙ্গাকারার। সে বছরে শ্রীলঙ্কা দলের সঙ্গে সফরে গিয়ে খেলেছিলেন এমসিসির বিপক্ষে। বছর তিনেক পরে সুনামি আক্রান্তদের জন্য তহবিল সংগ্রহের জন্য এমসিসির বিপক্ষে আন্তর্জাতিক একাদশের পক্ষে খেলেছেন সাঙ্গাকারা।

এভাবেই দারুণ সম্পর্কের জের ধরে ২০১২ সালে এমসিসির সম্মানসূচক আজীবন সদস্যপদ পান তিনি। একই বছর জায়গা পেয়ে যান এমসিসির ক্রিকেট কমিটিতে। এর আগে ২০১১ সালে এমসিসি স্পিরিট অব ক্রিকেট কাউড্রে লেকচারে অসাধারণ বক্তৃতা দিয়ে সবার মন জয় করেন তিনি।

সে ধারাবাহিকতায় এবার এমসিসির প্রেসিডেন্ট হলেন সাঙ্গাকারা। নিজের উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘এমসিসির প্রেসিডেন্ট হওয়ার সম্মান পেয়ে আমি সত্যিই গর্বিত। আগামী এক বছর ক্রিকেটের উন্নতির জন্য আমি কাজ করে যেতে চাই। আমাদের সামনে সুযোগ আছে খেলাটির দর্শক বাড়ানোর। আমরা প্রতিটি সুযোগ যথাযথ কাজে লাগাতে চাই।’