নয় হাজার কর্মী এইচপি’র ছাঁটাই তালিকায়

অনলাইন ডেস্ক:
ব্যয় কমানো জন্য ১৬ শতাংশ কর্মী ছাঁটাই করতে যাচ্ছে কম্পিউটার নির্মাতা মার্কিন প্রতিষ্ঠান এইচপি। বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, কর্মীদের পক্ষ থেকে প্রতিষ্ঠান ছেড়ে যাওয়া এবং স্বেচ্ছায় অবসরের মাধ্যমে সাত থেকে নয় হাজার কর্মী ছাঁটাই করা হবে। এভাবে ২০২২ অর্থবছর নাগাদ প্রতিষ্ঠানটি অন্তত ১০০ কোটি মার্কিন ডলার ব্যয় কমাতে পারবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মার্কিন সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনে জমা দেওয়া নথি অনুযায়ী অক্টোবরের ৩১ তারিখ পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে প্রতিষ্ঠানটিতে কর্মরত রয়েছেন প্রায় ৫৫ হাজার কর্মী।

এইচপি’র পক্ষ থেকে জানানো হয়, ১০০ কোটির মধ্যে ১০ কোটি মার্কিন ডলার খরচ কমবে এই অর্থবছরের শেষ তিন মাসে।

প্রতিষ্ঠানটির আসন্ন প্রধান নির্বাহী এনরিকে লরেস বলেন, “পরবর্তী ধাপে আমরা আরও কার্যকরী সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছি। প্রতিষ্ঠানটির অংশীদারদের মান বাড়ানোর ক্ষেত্রে অনেক ভালো সুযোগ রয়েছে এবং আমরা আমাদের নেতৃত্বকে সামনে এগিয়ে নিয়ে এই সুযোগকে কাজে লাগাতে চাই। আক্রমণাত্মকভাবে হলেও প্রতিষ্ঠানটিকে ভেঙ্গে নতুন ধারায় কাজ শুরু করতে চাই।”

ডিওন ওয়াইসলারের পর আগামী নবেম্বরে লরেস প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী হিসেবে নিযুক্ত হবেন বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

ক্যালিফোর্নিয়ার পলো অল্টো ভিত্তিক এইচপি’র পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়, ৩০ সেপ্টেম্বর তাদের বোর্ড আরও ৫০০ কোটি ডলার মূল্যের শেয়ার বাইব্যকের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

প্রতিষ্ঠানটি আশা করছে ২০২০ অর্থবছরে অন্তত ৩০০ কোটি মার্কিন ডলারের নগদ অর্থ প্রবাহ তৈরি করতে পারবে এবং এর ৭৫ শতাংশ বিনিয়োগকারীর কাছে পৌঁছাবে শেয়ার বাইব্যক এবং প্রতি প্রান্তিকে ১০ শতাংশ বাড়তি লভ্যাংশ প্রদানের মাধ্যমে।

২০২০ অর্থবছরে প্রতি শেয়ার থেকে আয় ২.২২ থেকে ২.৩২ মার্কিন ডলার বৃদ্ধি করতে চায় প্রতিষ্ঠানটি। সেই হিসেবে প্রতিষ্ঠানটি এই অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিকে শেয়ার থেকে আয় ২.১৮ থেকে ২.২২ মার্কিন ডলার বৃদ্ধি করবে বলে আশা করছে।