বিখ্যাত উইজডেন অ্যালম্যানাকের দশক সেরা একাদশে সাকিব

বিখ্যাত উইজডেন অ্যালম্যানাকের নির্বাচিত দশক সেরা একাদশে জায়গা করে নিয়েছেন সাকিব আল হাসান। দলের একমাত্র বিশেষজ্ঞ অলরাউন্ডার হিসেবে রাখা হয়েছে তাঁকেগত দুই-এক মাসে সাকিব আল হাসানকে নিয়ে সুসংবাদ নেই বললেই চলে। জুয়াড়ির প্রস্তাব গোপন করায় এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছেন, ফলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট হোক বা ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট, সাকিবকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। তবে উইজডেন অ্যালমানাক তাদের দশকসেরা ওয়ানডে একাদশে ঠিকই রেখেছে সাকিবকে।গত এক দশকের সেরা খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্সের ওপর ভিত্তি করে দশকসেরা ওয়ানডে একাদশ ঘোষণা করেছে উইজডেন। তাতে রাখা হয়েছে সাকিবকে। গত অক্টোবরে জুয়াড়ির প্রস্তাব গোপন করার কলঙ্ক লাগার আগে বিশ্বকাপে অবিশ্বাস্য পারফরম্যান্স ছিল বাঁ হাতি এই অলরাউন্ডারের। গত এক যুগ ধরেই বাংলাদেশের ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় বিজ্ঞাপন হয়ে আছেন সাকিব।২০০৯ সাল থেকে ২০১৯— এই দশ বছরের পারফরম্যান্স বিশ্লেষণ করে ওয়ানডের এই দল বাছাই করেছে উইজডেন। এই সময়ে সাকিব খেলেছেন ১৩১ ওয়ানডে। বাঁ হাতি স্পিনে ৩০.১৫ গড়ে তাঁর উইকেট ১৭৭টি, স্পিনারদের মধ্যে যা সর্বোচ্চ। ব্যাট হাতেও দারুণ ছিলেন সাকিব, ৩৮.৮৭ গড়ে করেছেন ৪ হাজার ২৭৬ রান। দলে বিশেষজ্ঞ অলরাউন্ডার হিসেবে শুধু সাকিবকেই রাখা হয়েছে। অর্থাৎ ইঙ্গিতটা স্পষ্ট, গত এক দশকের মধ্যে সাকিবের চেয়ে কার্যকরী অলরাউন্ডার হিসেবে আর কাউকে মনে ধরেনি উইজডেনের।উইজডেনের লেখকদের প্যানেলে নির্বাচিত এই একাদশে ছয় ব্যাটসম্যান, চার পেসার ও একজন অলরাউন্ডার জায়গা পেয়েছেন। ভারতের আছেন তিনজন খেলোয়াড়, অস্ট্রেলিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে আছেন দুজন করে। এ ছাড়াও তালিকায় শ্রীলঙ্কা, নিউজিল্যান্ড ও ইংল্যান্ডের একজন করে ক্রিকেটার আছেন।উইজডেনের দশক সেরা ওয়ানডে একাদশটা দেখে নিন:১. ডেভিড ওয়ার্নার (অস্ট্রেলিয়া)২. রোহিত শর্মা (ভারত)৩. বিরাট কোহলি (ভারত)৪. এবি ডি ভিলিয়ার্স (দক্ষিণ আফ্রিকা)৫. জস বাটলার (ইংল্যান্ড)৬. মহেন্দ্র সিং ধোনি (ভারত)৭. সাকিব আল হাসান (বাংলাদেশ)৮. লাসিথ মালিঙ্গা (শ্রীলঙ্কা)৯. মিচেল স্টার্ক (অস্ট্রেলিয়া)১০. ডেল স্টেইন (দক্ষিণ আফ্রিকা)১১. ট্রেন্ট বোল্ট (নিউজিল্যান্ড)