Tuesday , 26 January 2021
E- mail: news@dainiksakalbela.com/ sakalbela1997@gmail.com
Home » 2019 » December » 29

Daily Archives: December 29, 2019

গোয়ালন্দে শুকনো মৌসুমেও পদ্মা নদীতে ভাঙ্গন

রাজবাড়ী প্রতিনিধি ঃ রাজবাড়ী জেলার বিভিন্ন উপজেলায় শুকনো মৌসুমেও হঠাৎ পদ্মা নদীতে ভাঙন দেখা দিয়েছে। নদী ভাঙনের কারণে বিলীন হয়ে যাচ্ছে ফসলি জমি। ছোট হয়ে আসছে জেলার আয়তন। জানা যায়, রাজবাড়ী জেলার মধ্যে সদর, কালুখালী, পাংশা ও গোয়ালন্দ উপজেলা পদ্মানদী তীরবর্তী এলাকায় অবস্থিত। প্রতি বছর পদ্মা নদীর তীরবর্তী এলাকায় ভাঙন কবলে পরে শতশত পরিবার গৃহহীন হয়ে পড়ছে। নদী গর্ভে চলে ... Read More »

গোয়ালন্দে শুকনো মৌসুমেও পদ্মা নদীতে ভাঙ্গন

রাজবাড়ী প্রতিনিধি ঃ রাজবাড়ী জেলার বিভিন্ন উপজেলায় শুকনো মৌসুমেও হঠাৎ পদ্মা নদীতে ভাঙন দেখা দিয়েছে। নদী ভাঙনের কারণে বিলীন হয়ে যাচ্ছে ফসলি জমি। ছোট হয়ে আসছে জেলার আয়তন। জানা যায়, রাজবাড়ী জেলার মধ্যে সদর, কালুখালী, পাংশা ও গোয়ালন্দ উপজেলা পদ্মানদী তীরবর্তী এলাকায় অবস্থিত। প্রতি বছর পদ্মা নদীর তীরবর্তী এলাকায় ভাঙন কবলে পরে শতশত পরিবার গৃহহীন হয়ে পড়ছে। নদী গর্ভে চলে ... Read More »

 ঢাকা দক্ষিণের মনোনয়ন পেলেন তাপস, উত্তরে আতিক

 ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দক্ষিণের মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন সাংসদ শেখ ফজলে নূর তাপস।মনোনয়ন পাওয়ার পর দলের ঐক্য আর বর্তমান মেয়র মো. সাঈদ খোকনের সমর্থন চেয়েছেন। আর উত্তরের মেয়র পদে পুনরায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়া আতিকুল ইসলাম দলের সভাপতি শেখ হাসিনাসহ মনোনয়ন বোর্ডের সদস্যদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানানোর পাশাপাশি ভোটারদের সহযোগিতা চেয়েছেন। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের রোববার ... Read More »

বাগেরহাটে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত ১,আহত ৩

  বাগেরহাট প্রতিনিধি:বাগেরহাটে সড়ক দূর্ঘটনায় ক্রেজি জিমনেশিয়ামের পরিচালক কামরান হোসেন (২৩) নিহত হয়েছেন। এসময় শ্রমিকসহ আরও তিন জন আহত হয়। শনিবার রাত সাড়ে ১১ টার দিকে বাগেরহাট শহর রক্ষাবাঁধের কাচাঁ বাজার এলাকায় দাড়িয়ে থাকা পন্যবাহী ট্রাকের পিছনে মোটরসাইকেলটি ধাক্কা লেগে এদূর্ঘটনা ঘটে। নিহত কামরান হোসেন বাগেরহাট সদর উপজেলার গোটাপাড়া গ্রামের ইসারাত হোসেনের ছেলে।আহতরা হলেন,বাগেরহাট শহরের সরুই এলাকার ইসমাইল হোসেনের ছেলে ... Read More »

(চিলাহাটি -নীলফামারী) প্রতিনিধি: পৌষের শুরুতেই জেঁকে বসেছে হাড় কাঁপানো শীত। টানা কয়েকদিন ধরে শৈত প্রবাহে তীব্রতা বেড়ে যাওয়ায় জনজীবন বিপর্যয়। শীত মোকাবেলায় এবারও নীলফামারী জেলার ডোমার উপজেলার চিলাহাটির ফুটপাত ও শপিংমলের দোকান গুলোতে নতুন কালেকশনের হরেক রকমের পোশাক বাড়ছে। ফুটপাতের দোকানগুলোতে বিক্রেতারা শীতের পোশাক পসরা সাজিয়ে বসেছে। ফুটপাতগুলো জুড়ে দেখা যায় শীতের কাপড়ের সমহার। রেল রেলঘুনটি,কাছারি বাজার, সোনালী ব্যাংক রোড, ভাউলাগঞ্জ রোড, বউ বাজার রোড‌ সহ সকল ফুটপাত‌ ও নানা স্থানে বসেছে শীত নিবারক কাপড়ের দোকান। বিক্রিও জমে উঠেছে বেশ। শীতকে সামনে রেখে শহরের শপিংমল গুলোতে বেড়েছে শীতবস্ত্রের দাম।সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, শীতবস্ত্র ছাড়াও নানা ধরনের কাপড় উঠেছে শহরের বিভিন্ন দোকানে। ফুলহাতা শার্ট, টি -শার্ট, ট্রাউজার, মহিলাদের কাপড়, জ্যাকেডসহ টপস আর বিভিন্ন ডিজাইনের কার্ডিগান বা পশমী জামা এছাড়া হাতাকাটা সোয়েটার, লং জ্যাকেট, শাল, মাফলার, উলের মোটা কাপড়, জ্যাকেটসহ নতুন শীতের পোশাক ও পাওয়া যাচ্ছে। শীতবস্ত্রের দাম ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে থাকায় গ্রাম থেকে আসা লোকজন আনন্দের সাথে কাপড় চোপড় কিনতে স্বাচ্ছ্যন্দবোধ করছে।সাধারণত‌ ফুটপাতের দোকানগুলোতে শপিংমলের চেয়ে কাপড়ের দাম কম রাখায় সমাজের ছিন্নমূল ও দরিদ্র মানুষগুলো সহজে শীতবস্ত্রের চাহিদা মেটাতে পারছে। এ কারণে ফুটপাতের দোকানগুলোতে কম দামে কাপড় কিনতে তাদের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা যায়। বিক্রেতারাও ক্রেতাদের পছন্দের কাপড় তুলে দিচ্ছেন আনন্দের সাথে।এদিকে শীতের কাপড়ের সাথে মিল রেখে শীতের ব্যবহার উপযোগী জুতো, মোজা, বাহারী ডিজাইনের কম্বল কিনতে ব্যস্ত সময় পারছেন ক্রেতারা। বিলাসবহুল মার্কেটেরর গলাকাটা দামের ভয়ে যেতে চান না মধ্যবিত্ত ও নিম্ন মধ্যবিত্তের অনেকে। তাদের পছন্দ ফুটপাতের বাজার। ফুটপাতের দোকানগুলোতে বিভিন্ন ধরণের উলের তৈরি সোয়েটার বিক্রি হচ্ছে ১০০ থেকে ৩০০ টাকায়, কাপড়ের জুতো ১৫০ থেকে ৩০০ টাকা, জ্যাকেট ২০০ থেকে ৪০০ টাক, ট্রাউজার ১৩০ থেকে ৩০০ টাকা, গরম কাপড়ের তৈরি প্যান্ট ১৫০ থেকে ৩৫০ টাকা, পা-মোজা ৩০ থেক ৮০ টাকা,হাইগলা গেঞ্জি দাম ১২০ থেকে ১৫০ টাকা, টুপিওয়ালা গেঞ্জির দাম ২৫০ থেকে ৪০০ টাকা ও মাফলার পাওয়া যাচ্ছে ৪০ থেকে ৮০ টাকার মধো। এছাড়া হাত-মোজা জোড়া প্রতি ৫০ থেকে ৮০০ টাকা, কান-টুপি ছোটদের জন্য ৪০ টাকা এবং বড়দের জন্য ৬০ থেকে ১০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। সবুজ পাড়া থেকে আসা কাপড় ক্রেতার সাথে কথা হলে, আল ইমরান শুভ বলে আমরা দিন এনে দিন খাই। ভালো মার্কেটে গিয়ে কেনার মতো সামর্থ্য নেই আমাদের। আমরা গরীব মানুষ। আমাদের কম টাকা তাই আমাদের ফুটপাতের দোকানে অনেক ভালো। ফুটপাতের দোকানে কম দামে অনেক ভালো কাপড় পাচ্ছি।

নীলফামারী প্রতিনিধি: পৌষের শুরুতেই জেঁকে বসেছে হাড় কাঁপানো শীত। টানা কয়েকদিন ধরে শৈত প্রবাহে তীব্রতা বেড়ে যাওয়ায় জনজীবন বিপর্যয়। শীত মোকাবেলায় এবারও নীলফামারী জেলার ডোমার উপজেলার চিলাহাটির ফুটপাত ও শপিংমলের দোকান গুলোতে নতুন কালেকশনের হরেক রকমের পোশাক বাড়ছে।  ফুটপাতের দোকানগুলোতে বিক্রেতারা শীতের পোশাক পসরা সাজিয়ে বসেছে। ফুটপাতগুলো জুড়ে দেখা যায় শীতের কাপড়ের সমহার। রেল রেলঘুনটি,কাছারি বাজার, সোনালী ব্যাংক রোড, ভাউলাগঞ্জ ... Read More »