Tuesday , 2 March 2021
E- mail: news@dainiksakalbela.com/ sakalbela1997@gmail.com
Home » দৈনিক সকালবেলা » বিভাগীয় সংবাদ » দেশগ্রাম » কর্মসূচী উদ্বোধনের এক সপ্তাহ পার হলেও মুজিববর্ষের ক্ষণগণনার ঘড়ি স্থাপন করেনি ইবি

কর্মসূচী উদ্বোধনের এক সপ্তাহ পার হলেও মুজিববর্ষের ক্ষণগণনার ঘড়ি স্থাপন করেনি ইবি

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি ঃ
স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে ২০২০ সালকে ‘মুজিববর্ষ’ ঘোষণা করেছে সরকার। আর এই মুজিববর্ষকে জাকজমকপূর্ণভাবে উদযাপন করার লক্ষে বছরব্যাপী হাতে নেওয়া হয়েছে নানা কর্মসূচী। গত ১০ জানুয়ারী বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে আনুষ্ঠানিকভাবে মুজিবর্ষের ক্ষণগণনা কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই কর্মসূচীর সঙ্গে মিল রেখে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ও (ইবি) বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনার উদ্বোধন করে। ওইদিন বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে ক্ষণগণনার ঘড়ি উদ্বোধন করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন উর রশিদ আসকারী। তবে ক্ষণগণনার জন্যে ওইদিন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে ঘড়ি স্থাপন করার কথা থাকলেও তা করেনি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। জানা গেছে, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে দেশের বিভিন্ন স্থানে ঘড়ি স্থাপনের মধ্য দিয়ে মুজিববর্ষের ক্ষণগণনা শুরু হয়। এ দিন ইবির প্রধান ফটকেও ঘড়ি স্থাপন করার কথা ছিল। কিন্তু ঘড়ি প্রস্তুত না হওয়ায় দু’দিন বাদে এটি স্থাপনের ঘোষণা দেয় কর্তৃপক্ষ।
এই দু’দিন পার হওয়ার প্রায় এক সপ্তাহ পরেও ক্ষণগণনার ঘড়ি স্থাপন করতে পারেনি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। নির্ধারিত সময় পার হওয়ার পরেও ঘড়ি প্রস্তুত না হওয়ায় এমনটি হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। এদিকে বিষয়টি শিক্ষক শিক্ষার্থীদের মধ্যে জানাজানি হলে তারা মিশ্র প্রতিক্রিয়া জানান। এছাড়া স্থানীয় ও অনলাইন নিউজ পোর্টালে সংবাদ প্রকাশের খবর ছড়িয়ে পরলে ভিসির নির্দেশে ঘড়ি স্থাপনে তোড়জোড় শুরু হয়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিশ্ববিদ্যালয়ের এক কর্মকর্তা জানান, সকাল থেকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে ঘড়ি স্থাপনে ব্যাপারে গুরুত্ব দিতে দেখা গেছে। তবে আজ শনিবার(১৮ জানুয়ারী) বেলা ২.৪০ মিনিট পর্যন্ত সংবাদ লেখার আগ পর্যন্ত ঘড়িটি স্থাপনের কোন খবর পাওয়া যায়নি।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার ও বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উদ্যাপন উপ কমিটির সদস্য সচিব নওয়ার আলী বলেন, ‘মুজিববর্ষের ক্ষণগণনার জন্য আমরা দুটি ঘড়ি অর্ডার করেছিলাম। কিন্তু কিছু সমস্যার কারণে তা হাতে পেতে একটু দেরি হয়েছে। আশা করছি, অতি দ্রুত ঘড়ি দু’টি লাগানো হবে। এদিকে উদ্বোধনের প্রায় এক সপ্তাহ পরেও ক্ষণগণনা ঘড়ি না লাগানোয় বিষয়টি নিয়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। তাদের দাবি, মুজিবর্ষের ক্ষণগণনার মত একটি জাতীয় বিষয়কে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন অবহেলা করছে। যার ফলে জাতীয়ভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের সুমান ক্ষুন্ন হচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয় মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সভাপতি অনিক হাসান বলেন, ‘মুজিববর্ষের ক্ষণগণনা শুধুমাত্র বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে নয়, এটি পুরো জাতির কাছে একটি গুরুত্ববহন করে। আর এটিতে অবহেলা কোনভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। আমরা চাই অতি দ্রুত সময়ের মধ্যে ক্ষণগণনার ঘড়ি লাগানো হোক।
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো ভিসি প্রফেসর ড. শাহিনুর রহমান পূর্বপশ্চিমকে জানান,বিশ্ববিদ্যালয়ে মুজিববর্ষের ক্ষণগণনার ঘড়ি স্থাপনের কাজ চলমান। আশা করি আজ সন্ধ্যার ভেতরে ঘড়িটি স্থাপনের কাজ শেষ হবে।

About Sakal Bela

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*