অনিয়ম দেখতে চাইনাঃ সিইসি

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের নির্বাচনে অনিয়ম কিংবা বিচ্যুতির বিষয়ে কর্মকর্তাদের সতর্ক করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা। ভবিষ্যতে কারো বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ এলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

আজ (বুধবার) সিইসির সভাপতিত্বে আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত আলোচনা সভার বৈঠকে নির্বাচন কমিশনার এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এসময় নূরুল হুদা বলেন, “আন্তর্জাতিক মহল থেকে দেশের জনগণ ভোটের দিকে তাকিয়ে রয়েছেন। অবারিত তথ্য প্রযুক্তির যুগে সব সংবাদ ছড়িয়ে পড়ে সবখানে। ইসির কার্যক্রম গণমাধ্যমের মাধ্যমে দেখছেন। আমরা কঠোর অবস্থানে রয়েছি। ভোটে সবাই মহা উৎসবের আমেজে রয়েছে। এর যথাযথ গুরুত্ব অনুধাবন করে নিজ নিজ অবস্থান থেকে সঠিক দায়িত্ব পালন করতে হবে।”

সিটি নির্বাচন কেন্দ্র করে আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় ভোটের দুই দিন আগে থেকে মোবাইল ও স্ট্রাইকিং ফোর্স মোতায়েনের পরিকল্পনা নিয়েছে ইসি। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অর্ধ লক্ষ সদস্য মোতায়েনের পরিকল্পনাও হয়েছে।

রিটার্নিং ও প্রিজাইডিং কর্মকর্তাদের সহযোগিতা করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, “আমি চাই না, কোনো ধরনের অভিযোগ, অনিয়ম, বিচ্যুতি নির্বাচন কমিশন পর্যন্ত গড়াক। আশা করব মাঠ পর্যায়ে যারা কর্মকর্তারা রয়েছেন, তাদের  অধীনে যারা রয়েছে, তাদের কোনো অনিয়ম, গাফিলাতি আপনাদের মাধ্যমে তাৎক্ষণিকভাবে মোকাবেলা করবেন।”

এসময় বিএনপি মনোনীত প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের উপর হামলা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটে গেছে, ওসি ও নির্বাহী হাকিমদের চিঠি দিয়েছি। এটা অব্যাহত থাকবে। আমরা প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত দেখব। কোন অবস্থায় কার কতটুকু বিচ্যুতি দেখব, ছাড়ব না।”

এসময় উপস্থিত ছিলেন, নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার,  মো. রফিকুল ইসলাম ও কবিতা খানম। এছাড়া ঢাকা অঞ্চলের নির্বাচন কর্মকর্তা, ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটির রিটার্নিং কর্মকর্তা, সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরাও উপস্থিত ছিলেন।

সুষ্ঠু ভোট আয়োজনে নিজেদের পদক্ষেপ তুলে ধরে সিইসি বলেন, “সুষ্ঠু নির্বাচন পরিচালনার জন্যে আমাদের প্রত্যয়, দৃঢ়তা, নিষ্ঠা ও একাগ্রতা রয়েছে। ভোট পরিচালনায় আমরাই একমাত্র কর্তৃপক্ষ; যাদের নির্দেশে বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তারা দায়িত্ব পালন করছে।ঢাকা সিটির ভোটকে কেন্দ্র করে জনগণ, প্রার্থীর মধ্যে যে মহোৎসবের আমেজ তৈরি হয়েছে। তার গুরুত্ব দিয়ে যার ভোট যাকে দেবেন, তিনি নির্বাচিত হবেন; সেই অবস্থা সৃষ্টির জন্য অনুরোধ জানাবো। দায়িত্ববোধ আপনাদের রয়েছে।”

একইসাথে ভোটাররা যেন নির্ভয়ে কেন্দ্রে আসতে পারেন, সেই পরিবেশ নিশ্চিত করতেও দায়িত্বশীলদের প্রতি আহ্বান জানান সিইসি।