Tuesday , 9 March 2021
Home » দৈনিক সকালবেলা » রাজধানী » মিরপুরে ভোটার উপস্থিতি কম, বেশিরভাগ কেন্দ্রে এজেন্ট ছিল না বিএনপির

মিরপুরে ভোটার উপস্থিতি কম, বেশিরভাগ কেন্দ্রে এজেন্ট ছিল না বিএনপির

অনলাইন ডেস্কঃ 
রাজধানীর মিরপুরের অধিকাংশ ভোটকেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের খুব কম উপস্থিতি দেখা গেছে। অবশ্য কোথাও কোথাও ভোটারের লাই্ন দেখা গেলেও তাও সংখ্যায় কম ছিল।এদিকে, অধিকাংশ কেন্দ্রগুলোতে বিএনপির প্রার্থী ও পোলিং এজেন্টদের বের করে দিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।
ঢাকা উত্তর সিটির মিরপুর-১০ নম্বরের একটি ভোট কেন্দ্র আদর্শ নগর উচ্চ বিদ্যালয়। সকালের দিকে এ কেন্দ্রে ভোটার ছিল না বললেই চলে। শনিবার বেলা ১১টার দিকে এই কেন্দ্র পরিদর্শনে গিয়ে দেখা যায়, ভোটার শূন্য। আর পোলিং এজেন্টরা ভোটারদের অপেক্ষায় বসে আছেন।
তবে, মনিপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৪টি কেন্দ্রের মধ্যে কোনো কোনো কেন্দ্রে ভোটারদের লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দিতে দেখা গেছে। তবে একই বিদ্যালয়ের অন্য কেন্দ্রগুলোতে ভোটার শূন্য দেখা গেছে। আবার আঙ্গুলের ছাপ না মেলায় ভোট প্রদানে এদিক-ওদিক দৌড়াতে দেখা গেছে কাউকে কাউকে।
এই কেন্দ্রের প্রিজাইডিং কর্মকর্তা শংকর কুমার গণমাধ্যমকে বলেন, দুপুর ১২টা পর্যন্ত প্রায় ১৫ শতাংশ ভোট কাস্টিং হয়েছে। দুপুরের পর ভোটার উপস্থিতি আরও বাড়বে বলে মনে করেন তিনি।
পাশেই মনিপুর গার্লস শাখা কেন্দ্রে ভোটারের উপস্থিতি ছিল খুবই কম। অবশ্য সেখানে ভোটারের চেয়ে অধিক আওয়ামী লীগ প্রার্থীর কর্মী-সমর্থক ছিলেন। তবে ছিল না বিএনপি প্রার্থীর কোনো এজেন্ট। এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চারটি কেন্দ্রে ১০ হাজারের অধিক ভোটার রয়েছে। তবে অনেক বুথে ভোটারের অপেক্ষায় যেন প্রহর গুণছেন পোলিং এজেন্ট। দুপুর ১২টা পর্যন্ত এই কেন্দ্রে ১০ শতাংশের কম ভোট পড়ে।
এই কেন্দ্রে বিএনপির এজেন্টদের উপস্থিতি না থাকার বিষয়ে জানতে চাইলে প্রিসাইডিং কর্মকর্তা আবুল কালাম মঞ্জুরুল চৌধুরী বলেন, কেন্দ্র থেকে কাউকে বের করে দেয়া হয়নি, তবে বিএনপির এজেন্টরা প্রবেশ করতে না পারলে সেটি তার দায়িত্ব নয় বলে জানান তিনি।
দেখা গেছে, মিরপুরের অধিকাংশ কেন্দ্রগুলোতে আওয়ামী লীগের সমর্থিত প্রার্থী ও সমর্থকদের উপস্থিতি চোখে পড়ার মতো। কেন্দ্রের মধ্যে উপস্থিত থেকেই ভোটারদের তাদের সমর্থিত প্রার্থীকে ভোট দিতে নানাভাবে আহ্বান জানাচ্ছেন। তবে বেশিরভাগ কেন্দ্রে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীদের এজেন্ট দেখা যায়নি। তারা অভিযোগ করেছেন, তাদের এজেন্ট বের করে দেওয়া হয়েছে। আবার হুমকি-ধামকিতে অনেক এজেন্ট আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছ থেকে কোনো প্রতিকার না পেয়ে বের হয়ে গেছেন।

About Sakal Bela

মিরপুরে ভোটার উপস্থিতি কম, বেশিরভাগ কেন্দ্রে এজেন্ট ছিল না বিএনপির

অনলাইন ডেস্কঃ 
রাজধানীর মিরপুরের অধিকাংশ ভোটকেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের খুব কম উপস্থিতি দেখা গেছে। অবশ্য কোথাও কোথাও ভোটারের লাই্ন দেখা গেলেও তাও সংখ্যায় কম ছিল।এদিকে, অধিকাংশ কেন্দ্রগুলোতে বিএনপির প্রার্থী ও পোলিং এজেন্টদের বের করে দিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।
ঢাকা উত্তর সিটির মিরপুর-১০ নম্বরের একটি ভোট কেন্দ্র আদর্শ নগর উচ্চ বিদ্যালয়। সকালের দিকে এ কেন্দ্রে ভোটার ছিল না বললেই চলে। শনিবার বেলা ১১টার দিকে এই কেন্দ্র পরিদর্শনে গিয়ে দেখা যায়, ভোটার শূন্য। আর পোলিং এজেন্টরা ভোটারদের অপেক্ষায় বসে আছেন।
তবে, মনিপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৪টি কেন্দ্রের মধ্যে কোনো কোনো কেন্দ্রে ভোটারদের লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দিতে দেখা গেছে। তবে একই বিদ্যালয়ের অন্য কেন্দ্রগুলোতে ভোটার শূন্য দেখা গেছে। আবার আঙ্গুলের ছাপ না মেলায় ভোট প্রদানে এদিক-ওদিক দৌড়াতে দেখা গেছে কাউকে কাউকে।
এই কেন্দ্রের প্রিজাইডিং কর্মকর্তা শংকর কুমার গণমাধ্যমকে বলেন, দুপুর ১২টা পর্যন্ত প্রায় ১৫ শতাংশ ভোট কাস্টিং হয়েছে। দুপুরের পর ভোটার উপস্থিতি আরও বাড়বে বলে মনে করেন তিনি।
পাশেই মনিপুর গার্লস শাখা কেন্দ্রে ভোটারের উপস্থিতি ছিল খুবই কম। অবশ্য সেখানে ভোটারের চেয়ে অধিক আওয়ামী লীগ প্রার্থীর কর্মী-সমর্থক ছিলেন। তবে ছিল না বিএনপি প্রার্থীর কোনো এজেন্ট। এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চারটি কেন্দ্রে ১০ হাজারের অধিক ভোটার রয়েছে। তবে অনেক বুথে ভোটারের অপেক্ষায় যেন প্রহর গুণছেন পোলিং এজেন্ট। দুপুর ১২টা পর্যন্ত এই কেন্দ্রে ১০ শতাংশের কম ভোট পড়ে।
এই কেন্দ্রে বিএনপির এজেন্টদের উপস্থিতি না থাকার বিষয়ে জানতে চাইলে প্রিসাইডিং কর্মকর্তা আবুল কালাম মঞ্জুরুল চৌধুরী বলেন, কেন্দ্র থেকে কাউকে বের করে দেয়া হয়নি, তবে বিএনপির এজেন্টরা প্রবেশ করতে না পারলে সেটি তার দায়িত্ব নয় বলে জানান তিনি।
দেখা গেছে, মিরপুরের অধিকাংশ কেন্দ্রগুলোতে আওয়ামী লীগের সমর্থিত প্রার্থী ও সমর্থকদের উপস্থিতি চোখে পড়ার মতো। কেন্দ্রের মধ্যে উপস্থিত থেকেই ভোটারদের তাদের সমর্থিত প্রার্থীকে ভোট দিতে নানাভাবে আহ্বান জানাচ্ছেন। তবে বেশিরভাগ কেন্দ্রে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীদের এজেন্ট দেখা যায়নি। তারা অভিযোগ করেছেন, তাদের এজেন্ট বের করে দেওয়া হয়েছে। আবার হুমকি-ধামকিতে অনেক এজেন্ট আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছ থেকে কোনো প্রতিকার না পেয়ে বের হয়ে গেছেন।

About Sakal Bela

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*