Monday , 8 March 2021
Home » দৈনিক সকালবেলা » বিভাগীয় সংবাদ » দেশগ্রাম » গাইবান্ধায় ট্রেনে কাটা পড়ে এক মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যু

গাইবান্ধায় ট্রেনে কাটা পড়ে এক মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যু

অনলাইন ডেস্কঃ
গাইবান্ধায় ট্রেনে কাটা পড়ে আব্দুল কুদ্দুছ মিয়া (৮৩) নামে এক মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যু হয়েছে।গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে গাইবান্ধা রেল ষ্টেশনের দক্ষিণ আউটার সিগন্যালের কাছে কবরস্থান সংলগ্ন এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কুদ্দুছ জেলার ফুলছড়ি উপজেলার কঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের চন্দিয়া গ্রামের বাসিন্দা।
গাইবান্ধা রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার আবুল কাশেম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, সান্তাহার থেকে ছেড়ে আসা লালমনিরহাটগামী নাইনটিন আপ মেইল ট্রেনের নিচে কাটা পড়া অবস্থায় ওই মুক্তিযোদ্ধার লাশ পাওয়া যায়। গাইবান্ধা জিআরপি পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ মহিদুল ইসলাম জানান, লাশ উদ্ধার করে তার স্বজনদের কাছে হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে। এ বিষয়ে একটি ইউডি মামলা হয়েছে।নিহত মুক্তিযোদ্ধার ছেলে মিজানুর রহমান বলেন, আমার বাবা দীর্ঘদিন থেকে মানসিক রোগে ভুগছিলেন। সন্ধ্যার পরে তিনি বাড়ীর সকলের অগোচরে বাড়ী থেকে বের হয়ে যান। এরপর তার মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়। 

About Sakal Bela

গাইবান্ধায় ট্রেনে কাটা পড়ে এক মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যু

অনলাইন ডেস্কঃ
গাইবান্ধায় ট্রেনে কাটা পড়ে আব্দুল কুদ্দুছ মিয়া (৮৩) নামে এক মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যু হয়েছে।গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে গাইবান্ধা রেল ষ্টেশনের দক্ষিণ আউটার সিগন্যালের কাছে কবরস্থান সংলগ্ন এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কুদ্দুছ জেলার ফুলছড়ি উপজেলার কঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের চন্দিয়া গ্রামের বাসিন্দা।
গাইবান্ধা রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার আবুল কাশেম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, সান্তাহার থেকে ছেড়ে আসা লালমনিরহাটগামী নাইনটিন আপ মেইল ট্রেনের নিচে কাটা পড়া অবস্থায় ওই মুক্তিযোদ্ধার লাশ পাওয়া যায়। গাইবান্ধা জিআরপি পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ মহিদুল ইসলাম জানান, লাশ উদ্ধার করে তার স্বজনদের কাছে হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে। এ বিষয়ে একটি ইউডি মামলা হয়েছে।নিহত মুক্তিযোদ্ধার ছেলে মিজানুর রহমান বলেন, আমার বাবা দীর্ঘদিন থেকে মানসিক রোগে ভুগছিলেন। সন্ধ্যার পরে তিনি বাড়ীর সকলের অগোচরে বাড়ী থেকে বের হয়ে যান। এরপর তার মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়। 

About Sakal Bela

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*