Thursday , 4 March 2021
Home » শিক্ষাসংস্কৃতি » ক্যাম্পাস » ‘বিপথগামী’ কিছু শিক্ষার্থীর যোগসাজশে ক্যাম্পাসে ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটছে : ডাকসু জিএস

‘বিপথগামী’ কিছু শিক্ষার্থীর যোগসাজশে ক্যাম্পাসে ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটছে : ডাকসু জিএস

অনলাইন শিক্ষা ডেস্কঃ
‘বিপথগামী’ কিছু শিক্ষার্থীর যোগসাজশে ক্যাম্পাসে ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটছে বলে মন্তব্য করেছেন দুর্নীতির অভিযোগে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে অপসারিত হওয়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) জিএস গোলাম রাব্বানী। তিনি বলেন, অধিকাংশ ক্ষেত্রেই বিশ্ববিদ্যালয়সংলগ্ন আশপাশের এলাকার সংঘবদ্ধ বহিরাগত বখাটেরা ছিনতাইয়ে জড়িত থাকে। অনেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হিসেবে মিথ্যা পরিচয় ব্যবহার করে এসব অপকর্ম করছে, আবার বিশ্ববিদ্যালয়ের বিপথগামী কিছু শিক্ষার্থীর যোগসাজশেও ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটছে বলে প্রমাণ মিলেছে।
ডাকসু জিএস বলেন, ‘বিষয়টা অত্যন্ত দুঃখজনক এবং লজ্জার! ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় ছিনতাইচক্রের উপদ্রব বেড়েই চলেছে, যার দায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এবং আমরা কোনোভাবেই এড়াতে পারি না।

’এমতাবস্থায় ক্যাম্পাস এলাকার সব গেটে নিরাপত্তা বার স্থাপন, প্রহরী মোতায়েন, গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন, প্রক্টরিয়াল টহল বৃদ্ধিসহ সার্বিক নিরাপত্তা জোরদারে ডাকসু বারবার তাগিদ দিলেও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের ঠিকঠাক টনক নড়ছে না।’
প্রাণের ক্যাম্পাসকে ছিনতাইকারী মুক্ত করতে এবং শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার স্বার্থে ডাকসু কার্যকর সুপারিশ প্রেরণসহ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে অত্যন্ত দৃঢ়তার সঙ্গে কাজ করবে এবং দোষীদের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ শাস্তিমূলক ব্যবস্থাগ্রহণ নিশ্চিত করবে বলে প্রত্যয় ব্যক্ত করেন রাব্বানী।
ছিনতাই বন্ধে এ সংক্রান্ত যে কোনো তথ্য দিয়ে সহায়তা করার অনুরোধ করেন তিনি।

About Sakal Bela

‘বিপথগামী’ কিছু শিক্ষার্থীর যোগসাজশে ক্যাম্পাসে ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটছে : ডাকসু জিএস

অনলাইন শিক্ষা ডেস্কঃ
‘বিপথগামী’ কিছু শিক্ষার্থীর যোগসাজশে ক্যাম্পাসে ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটছে বলে মন্তব্য করেছেন দুর্নীতির অভিযোগে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে অপসারিত হওয়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) জিএস গোলাম রাব্বানী। তিনি বলেন, অধিকাংশ ক্ষেত্রেই বিশ্ববিদ্যালয়সংলগ্ন আশপাশের এলাকার সংঘবদ্ধ বহিরাগত বখাটেরা ছিনতাইয়ে জড়িত থাকে। অনেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হিসেবে মিথ্যা পরিচয় ব্যবহার করে এসব অপকর্ম করছে, আবার বিশ্ববিদ্যালয়ের বিপথগামী কিছু শিক্ষার্থীর যোগসাজশেও ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটছে বলে প্রমাণ মিলেছে।
ডাকসু জিএস বলেন, ‘বিষয়টা অত্যন্ত দুঃখজনক এবং লজ্জার! ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় ছিনতাইচক্রের উপদ্রব বেড়েই চলেছে, যার দায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এবং আমরা কোনোভাবেই এড়াতে পারি না।

’এমতাবস্থায় ক্যাম্পাস এলাকার সব গেটে নিরাপত্তা বার স্থাপন, প্রহরী মোতায়েন, গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন, প্রক্টরিয়াল টহল বৃদ্ধিসহ সার্বিক নিরাপত্তা জোরদারে ডাকসু বারবার তাগিদ দিলেও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের ঠিকঠাক টনক নড়ছে না।’
প্রাণের ক্যাম্পাসকে ছিনতাইকারী মুক্ত করতে এবং শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার স্বার্থে ডাকসু কার্যকর সুপারিশ প্রেরণসহ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে অত্যন্ত দৃঢ়তার সঙ্গে কাজ করবে এবং দোষীদের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ শাস্তিমূলক ব্যবস্থাগ্রহণ নিশ্চিত করবে বলে প্রত্যয় ব্যক্ত করেন রাব্বানী।
ছিনতাই বন্ধে এ সংক্রান্ত যে কোনো তথ্য দিয়ে সহায়তা করার অনুরোধ করেন তিনি।

About Sakal Bela

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*