নিজ বন্দুকে পুলিশ কনস্টেবলের আত্মহত্যা, সুইসাইড নোট উদ্ধার

বরিশাল পুলিশ লাইন্সে নিজের বন্দুক দিয়ে গলায় গুলি চালিয়ে আত্মহত্যা করেছেন এক পুলিশ কনস্টেবল। তার নাম হৃদয় চন্দ্র দাস (২২)। নিহত হৃদয়ের পকেট থেকে নিজের হাতে লেখা সুইসাইড নোট ও এক তরুণীর ছবি উদ্ধার করা হয়েছে।
গতকাল শুক্রবার (৬ মার্চ) দুপুর ১টার দিকে বরিশাল জেলা পুলিশ লাইন্সের নবনির্মিত ছয় তলা ব্যারাক হাউসের ছাদ থেকে হৃদয় চন্দ দাসের গুলিবিদ্ধ রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়।
পুলিশ জানায়, আত্মহত্যার আগে বাবা ও ছোট ভাইয়ের উদ্দেশে সুইসাইড নোট লেখেন ওই পুলিশ কনস্টেবল। সুইসাইড নোটে তিনি লিখেন, ‘আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়।’ ওই নোটের বাইরে তার পকেটে থাকা ব্যাগে এক তরুণীর ছবি খুঁজে পাওয়া গেছে। ফলে প্রেমঘটিত করণে আত্মহত্যা করতে পারেন বলেন ধারণা করছেন পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।
জেলার পুলিশ সুপার (এসপি) মো. সাইফুল ইসলাম জানিন, নিহত পুলিশ কনস্টেবল হৃদয় চন্দ্র দাস ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার কুঞ্জেরহাট চকদুশ এলাকার বাসিন্দা। ১ বছর ৩ মাস আগে বরিশাল জেলা পুলিশে কনস্টেবল পদে নিয়োগ হয় তার। আত্মহত্যার বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

বরিশাল জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. নাইমুল হক জানান, গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১০টা থেকে ১২টা পর্যন্ত ব্যারাক হাউসের সামনে সেন্ট্রি ডিউটিতে ছিলেন হৃদয় চন্দ্র দাস। এরপর আজ দুপুর ১টার দিকে বরিশাল জেলা পুলিশ লাইন্সের নবনির্মিত ছয় তলা ব্যারাক হাউসের ছাদে তার গুলিবিদ্ধ রাক্তাক্ত মরদেহ পাওয়া যায়। মরদেহের পাশেই পড়েছিল তার নামে ইস্যু হওয়া বন্দুকটি।

বরিশাল মহানগর পুলিশের সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার (কোতোয়ালি) মো. রাসেল আহমেদ জানান, মৃরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।