Wednesday , 30 September 2020
Home » অর্থনীতি » পিএইচপি অটোমোবাইল লিমিটেড দেশেই ‘টকিং গাড়ি’ তৈরি করছে

পিএইচপি অটোমোবাইল লিমিটেড দেশেই ‘টকিং গাড়ি’ তৈরি করছে

অনলাইন ডেস্ক:
মালয়েশিয়ার প্রোটন ব্র্যান্ডের এক্স৭০ মডেলের ‘টকিং গাড়ি’ দেশেই সংযোজন করা শুরু করেছে চট্টগ্রামের পিএইচপি অটোমোবাইল লিমিটেড।
গতকাল রবিবার (২১ জুন) নগরের শুলকবহর এশিয়ান হাইওয়ে সংলগ্ন পিএইচপি-প্রোটন শো রুমে এ সর্বাধুনিক সব প্রযুক্তির সংযোজনে তৈরি গাড়িটির পর্দা উন্মোচন করা হয়।
এদিকে প্রোটনের বিভিন্ন মডেলের গাড়ি দেশের বাজারে এনে সাফল্য পেয়ে আসছে পিএইচপি ফ্যামিলি। সর্বশেষ প্রোটন ব্র্যান্ডের এক্স৭০ মডেলের গাড়ি বাজারজাত শুরু করছে দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্প প্রতিষ্ঠানটি। এটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পাবে বলে আশা করা হচ্ছে। স্পোর্টস ইউটিলিটি ভেহিক্যালস (এসইউভি) ক্যাটাগরির প্রোটন এক্স৭০ গাড়িতে রয়েছে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি সংযোগ, যা গাড়ি প্রেমীদের দেবে নতুন ধরনের ড্রাইভিং অভিজ্ঞতা।
প্রোটন ব্র্যান্ডের এক্স৭০ মডেলের এই গাড়িটি টকিং গাড়ি হিসেবেও ইতিমধ্যে পরিচিতি পেয়েছে। গাড়িতে বসে মুখে নির্দেশনা দিলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে সে সব কাজ হয়ে যাবে। মুখে কোন বিষয়ে সাহায্য চাইলে জবাব দেবে গাড়িটি। বৃষ্টি আসলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে গাড়িটির উইপার্স কাজ করবে। এছাড়াও শ্রবণ প্রতিবন্ধী যে কেউ এ গাড়িটি চালাতে পারবেন। গাড়ি কোন লেনে চলছে, পথের নানা অসঙ্গতি শব্দের মাধ্যমে জানানো হবে চালককে।
এই গাড়িটিতে রয়েছে দেড় লিটারের টার্বো ইঞ্জিন, ম্যানুয়েল মোডসহ সেভেন-স্পিড ডুয়েল ক্লাচ ট্রান্সমিশন, প্যানারমিক সানপ্রুপ, ৩৬০ ক্যামেরা অ্যান্ড পার্কিং সেন্সর, অটো ডুয়েল জোন এয়ার-কন্ডিশনিং, ছয়টি এয়ারব্যাগ, টায়ার প্রেসার মনিটরিং সিস্টেম ও এয়ার পিউরিফায়ার সিস্টেম। এছাড়া দুর্ঘটনার সতর্কতা ও লেন ছাড়ার সতর্কতাও দেবে প্রোটন ব্র্যান্ডের এক্স৭০ মডেলের গাড়িটি। প্রোটন এক্স৭০ মডেলের ব্র্যান্ড নিউ ২০২০ মডেলের এ গাড়িটি কিনলে ৫ বছরের ওয়ারেন্টি ও ফ্রি সার্ভিস মিলবে। এছাড়া ৫ বছরের ‘বাই ব্যাক অফার’ ও ‘রিপ্লেস কার’ সুবিধাও আছে।
পিএইচপি ফ্যামিলির চেয়ারম্যান সুফি মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, বাংলাদেশে প্রথম প্রোটন এক্স৭০ গাড়িটি আমরা এনেছি। গাড়িটি দেখতে সুন্দর ও আরামদায়ক। আমরা আশা করছি সর্বসাধারণের কাছে এ গাড়িটি সূলভ মূল্যে আমরা পৌঁছাতে পারবো।
পিএইচপি ফ্যামিলির ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মহসিন বলেন, বিশ্বের সকল আধুনিক প্রযুক্তি গাড়িটিতে ব্যবহার করা হয়েছে। নিরাপত্তার বিষয়কে প্রাধান্য দিয়ে গাড়িটি তৈরি করা হয়েছে। পরিবেশ দূষণ কিভাবে কমানো যায় সেই ব্যবস্থাও এখানে রাখা হয়েছে।
তিনি বলেন, ভয়েস কমান্ড দিয়ে গাড়িটি পরিচালনা করা যায় বলে এটাকে টকিং গাড়িও বলা হয়। গাড়ি চালানোর সময় হাত ব্যবহার করতে অনেক সময় সমস্যা হয়। সেক্ষেত্রে মুখে কমান্ড করে গাড়ি পরিচালনা করাটা বিস্ময়কর ব্যাপার। আমার মনে হয় বাংলাদেশে এটি প্রথম, যা প্রোটন এক্স৭০ এ রাখা হয়েছে। আমরা আমাদের সন্তানদের সবসময় ভালো ও নিরাপদ জিনিস দিয়ে থাকি। এটা সন্তানদের জন্য অত্যন্ত নিরাপদ।

About Sakal Bela

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!