Monday , 28 September 2020
Home » দৈনিক সকালবেলা » পাচঁফোড়ন » আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই মানবতার সেবা, দেশের সেবা করে গেছে

আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই মানবতার সেবা, দেশের সেবা করে গেছে

অনলাইন ডেস্ক:
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ তার প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই মানবতার সেবা করে গেছে, দেশের সেবা করে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, জনগণের কল্যাণে সব সময় কাজ করে যাওয়ার জন্য আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা জাতির পিতার কাছে অঙ্গীকারবদ্ধ। তাই আজকের দিনে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে আমাদের এটাই প্রতিজ্ঞা—বাংলাদেশকে আমরা ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত করে গড়ে তুলে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করব।
গতকাল মঙ্গলবার বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর দিন জাতীয় সংসদের মুলতবি অধিবেশনের শুরুতে দেওয়া ভাষণে প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ নেতা এসব কথা বলেন। অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে দুঃখ-কষ্ট মানুষের থাকলেও আজ আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আছে বলেই মানুষ ভালো আছে।আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা প্রতিটি ঘরে ত্রাণ পৌঁছে দেওয়া থেকে শুরু করে লাশ দাফন করাসহ প্রতিটি কাজে মানুষের পাশে রয়েছে। প্রতিটি এলাকায় আওয়ামী লীগ এবং এর সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা কাজ করে যাচ্ছে। ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের সময়ও তারা সবাই সক্রিয় ছিল।
তিনি বলেন, যখনই আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসেছে তখনই বাংলাদেশের মানুষ কিছু পেয়েছে, দেশটা এগিয়েছে। অথচ অন্য সময় আমরা দেখেছি বাঙালিকে কিভাবে পিছু টেনে রাখবে সেই প্রচেষ্টাই চালানো হয়েছে।
করোনাভাইরাসের সমস্যা শুধু বাংলাদেশে নয়, বিশ্বব্যাপী সমস্যা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই ভাইরাসের যেন আর বিস্তার না ঘটে এবং আর মানুষ যাতে এতে সংক্রমিত না হয় সেদিকে দৃষ্টি রেখে তাঁর সরকার মুজিববর্ষ উদ্যাপনের সব কর্মসূচি যেমন স্থগিত করেছে, তেমনি আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী, যেটি বিশেষভাবে উদযাপনের কথা ছিল, সেটিও সীমিত করা হয়েছে।
জন্মের পর থেকে বেশির ভাগ সময় লড়াই-সংগ্রাম, হত্যা, ক্যু, ষড়যন্ত্র প্রত্যক্ষ করা উপমহাদেশের অন্যতম বৃহৎ ও প্রাচীন দল ‘বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ’ ১৯৪৯ সালের ২৩ জুন পুরান ঢাকার ঐতিহ্যবাহী রোজ গার্ডেনে আওয়ামী মুসলিম লীগ হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী, মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং শামসুল হকের নেতৃত্বাধীন দলটি পরে শুধু আওয়ামী লীগ নাম নিয়ে অসামপ্রদায়িক সংগঠন হিসেবে বিকাশ লাভ করে। আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী প্রতিবার ঘটা করে উদ্যাপিত হলেও করোনার কারণে এবারের কর্মসূচি সংক্ষিপ্ত করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় কমিটির কয়েকজন নেতা সীমিত আকারে টুঙ্গিপাড়া গেছেন (জাতির পিতার সমাধিসৌধে)। আর সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে হাতে গোনা কয়েকজনকে নিয়ে ধানমণ্ডি ৩২ নম্বরে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে ফুল দেওয়া হয়েছে।
বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী এবং প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক শামসুল হক এবং সে সময় কারাগারে থাকা দলটির তরুণ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং নিখিল পাকিস্তান আওয়ামী লীগের সভাপতি হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন। তিনি বলেন, প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই আওয়ামী লীগ এ দেশের মানুষের কথা, তাদের অধিকার, ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে সব অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্যই সংগ্রাম করেছে। এ দেশের মাটি ও মানুষের জন্য জাতির পিতা আজন্ম লড়াই-সংগ্রাম করেছেন।
জাতির পিতার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য তুলে ধরতে গিয়ে ১৯৭১ সালের ১৫ মার্চ জাতির পিতার দেওয়া একটি ভাষণের উদ্ধৃতি দেন শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘জাতির পিতা বলেছিলেন, জীবনের বিনিময়ে আমরা আমাদের ভবিষ্যৎ বংশধরদের স্বাধীন দেশের মুক্ত মানুষ হিসেবে স্বাধীনভাবে আর আত্মমর্যাদার সাথে বাস করার নিশ্চয়তা দিয়ে যেতে চাই।’
প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ তার প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই মানবতার সেবা করে গেছে। এ দেশের জনগণের সেবা করে গেছে। শোষিত-বঞ্চিত মানুষ, এ দেশের কৃষক, শ্রমিক, তাঁতি, কামার-কুমারসহ অগণিত মানুষ তাদের কথাই বলেছে এবং তাদের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্যই সংগ্রাম করেছে। তিনি বলেন, অনেকেই আত্মাহুতি দিয়েছেন এবং তাঁদের এই আত্মত্যাগের জন্যই আমরা স্বাধীনতা অর্জন করেছি। স্বাধীন জাতি হিসেবে মর্যাদা পেয়েছি।
শেখ হাসিনা বলেন, কিন্তু দুর্ভাগ্য জাতির পিতা যখন বাংলাদেশকে স্বাধীনতার পর গড়ে তোলার পথে অনেকদূর এগিয়ে নিয়ে গিয়েছিলেন, সে সময় খন্দকার মোশতাক, জিয়াসহ কুচক্রী মহলের ষড়যন্ত্রের ফলে জাতির পিতাকে নির্মমভাবে হত্যা করা হলো এবং বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা ব্যাহত হয়ে গেল।
জাতির পিতা আজ আমাদের মাঝে না থাকলেও তাঁর অস্তিত্ব বাঙালির রন্ধ্রে রন্ধ্রে রয়েছে উল্লেখ করে বঙ্গবন্ধুকন্যা বলেন, ‘তাঁর (বঙ্গবন্ধু) যে আকাঙ্ক্ষা, তা আমাদের পূরণ করতে হবে। শত বাধা উপেক্ষা করে আমরা সেই লক্ষ্যেই অগ্রসর হচ্ছি।’

About Sakal Bela

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!