গ্যাস, বিদ্যুৎ, ডিজেল, পেট্রোলসহ জ্বালানির দাম বৃদ্ধির বিল প্রত্যাহার কর : বাম জোট

অনলাইন ডেস্ক:

গ্যাস, বিদ্যুৎ, ডিজেল, পেট্রোলসহ জ্বালানির দাম বছরে একাধিকবার পরিবর্তনের বিধান রেখে সংসদে ‘এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (সংশোধন) বিল-২০২০’ উত্থাপন করার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বাম গণতান্ত্রিক জোট। জোটের সভায় বলা হয়েছে, দফায় দফায় জ্বালানির দাম বৃদ্ধির অসৎ উদ্দেশ্যে ও জনগণের উপর মূল্যবৃদ্ধির বোঝা চাপানোর জন্য এই বিল তোলা হয়েছে। অবিলম্বে গণবিরোধী এই বিল প্রত্যাহার করতে হবে।

আজ শনিবার এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

অনলাইনে অনুষ্ঠিত ওই সভায় সভাপতিত্ব করেন জোটের সমন্বয়ক বজলুর রশীদ ফিরোজ। সভায় বক্তৃতা করেন সিপিবির সাধারণ সম্পাদক মো. শাহ আলম, প্রেসিডিয়াম সদস্য কাফি রতন ও সহকারী সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ জহির চন্দন, কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন নান্নু, বাসদ (মার্কসবাদী)’র নেতা মানস নন্দী, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা আকবর খান, গণসংহতি আন্দোলনের মুনীর উদ্দিন পাপ্পু, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির শহীদুল ইসলাম সবুজ, সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আহ্বায়ক হামিদুল হক প্রমূখ।

সভায় রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকল বন্ধের সরকারি সিদ্ধান্তের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলা হয়, পাটকল বন্ধ নয়, আধুনিকায়নের পাশাপাশি দুর্নীতি, লুটপাট ও ভুলনীতি পরিহার করে রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকল-পাট শ্রমিক ও পাট চাষীদের রা করতে হবে। সভা থেকে রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকল বন্ধের সরকারি সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে ২৮ জুন বিজেএমসি কার্যালয় অভিমুখে বিক্ষোভ মিছিল ও অবস্থান কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। সকাল ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সমাবেশ শেষে বিক্ষোভ মিছিল সহকারে মতিঝিলের আদমজী কোর্টস্থ বিজেএমসি কার্যালয়ের সামনে ওই অবস্থান কর্মসূচি পালিত হবে।

সভায় সরকারি হাসপাতালে করোনা পরীক্ষার জন্য ফি নির্ধারণ করা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্তের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলা হয়, করোনা পরীার ফি নির্ধারণ ‘মরার উপর খাড়ার ঘা’ হবে। প্রত্যেক নাগরিকের করোনা পরীক্ষা ও চিকিৎসা বিনামূল্যে রাষ্ট্রের উদ্যোগে করতে হবে।