Tuesday , 29 September 2020
Home » বিশ্ব সংবাদ » রাম-রহিম ছেড়ে হঠাৎ বুদ্ধের চর্চা কেন?

রাম-রহিম ছেড়ে হঠাৎ বুদ্ধের চর্চা কেন?

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
রাম-রহিম ছেড়ে ভারতীয় রাজনীতিতে হঠাৎ বুদ্ধের চর্চা কেন?। আচমকা বুদ্ধের আদর্শের প্রচার শুরু করে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি থেকে শুরু করে বিরোধী নেতা রাহুল গান্ধী। একদিন আগেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি লাদাখে বুদ্ধের ‘শরণে’ গিয়েছিলেন। এবার কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীও গৌতম বুদ্ধের বাণীকে হাতিয়ার করেই মোদির সমালোচনা করলেন।
গতকাল শনিবার লাদাখে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘২১ শতকে একাধিক চ্যালেঞ্জের সামনে দাঁড়িয়ে বিশ্ব। সেই সমস্ত চ্যালেঞ্জের স্থায়ী মোকাবেলা করতে ভরসা বুদ্ধের দেখানো পথ।’ রবিবার গুরু পূর্ণিমা উপলক্ষে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে সেই বুদ্ধের ভাষাতেই মোদি একহাত নিলেন রাহুল গান্ধী। সাবেক কংগ্রেস সভাপতি বললেন, ‘চন্দ্র, সূর্য এবং সত্য। এই তিনটি জিনিস কখনো লুকিয়ে রাখা সম্ভব নয়।’
আসলে লাদাখ ইস্যুতে শুরু থেকেই সরকারের বিরুদ্ধে মিথ্যাচারের অভিযোগ করে চলেছেন রাহুল। তাকে বলতে শোনা গেছে, চীন সীমান্তের প্রকৃত পরিস্থিতির কথা দেশবাসীর কাছে গোপন করছে সরকার। চীন ভারতের জমি দখল করে বসে আছে, অথচ প্রধানমন্ত্রী তা স্বীকার করার সাহস দেখাচ্ছেন না।’ রবিবার গুরু পূর্ণিমা উপলক্ষে রাহুল যে সত্য গোপনের অভিযোগ করলেন, সেটাও যে লাদাখ নিয়ে মোদিকে কটাক্ষ, তা বুঝতে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ হওয়ার প্রয়োজন পড়ে না।
রাজনৈতিক মহল বলছে, আসলে লাদাখের বাসিন্দাদের একটা বড় অংশ বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বী। চীনের বিরুদ্ধে যুদ্ধের আবহে তাই লাদাখবাসীকে কাছে টানতেই সেখানে গিয়ে বুদ্ধের মন্তব্যকে হাতিয়ার করেছিলেন মোদি। ঠিক একই উদ্দেশ্যে রাহুলও গুরু পূর্ণিমায় বুদ্ধদেবের মন্তব্যকে ব্যবহার করলেন। মোদি অবশ্য গুরু পূর্ণিমার দিন কোনো রাজনৈতিক জটিলতায় যাননি। তিনি খুব সহজ ভাষায়, নিজের এবং দেশের সব গুরুদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

About Sakal Bela

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!