Monday , 28 September 2020
Home » জাতীয় » পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শেষকৃত্য সম্পন্ন প্রণব মুখোপাধ্যায়ের
পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শেষকৃত্য সম্পন্ন  প্রণব মুখোপাধ্যায়ের
--সংগৃহীত ছবি

পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শেষকৃত্য সম্পন্ন প্রণব মুখোপাধ্যায়ের

অনলাইন ডেস্কঃ

পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শেষকৃত্য সম্পন্ন হলো ভারতের একমাত্র বাঙালি রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের। করোনার কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে গতকাল মঙ্গলবার দিল্লির লোদি রোডে গান স্যালুটের মাধ্যমে, চোখের জলে, ফুলেল শ্রদ্ধায় শেষবিদায় জানানো হলো বাংলাদেশের এই অকৃত্রিম বন্ধুকে। শ্রদ্ধা জানাতে ছুটে এলেন দেশের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে দল-মত-নির্বিশেষে সর্বস্তরের বিশিষ্ট ব্যক্তিরা। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে শ্রদ্ধা জানায় নয়াদিল্লিতে বাংলাদেশ হাইকমিশন।

একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে অনন্য ভূমিকা রাখা রাজনীতিক ও নড়াইলের জামাইবাবু প্রণব মুখোপাধ্যায়ের মৃত্যুতে আজ বুধবার রাষ্ট্রীয় শোক পালন করছে বাংলাদেশ। গতকাল মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানিয়ে বলা হয়েছে, আজ দেশের সব সরকারি, আধাসরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ সব সরকারি ও বেসরকারি ভবন এবং বিদেশে বাংলাদেশ মিশনগুলোতে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত থাকবে। একই সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে বিশেষ প্রার্থনার আয়োজন করা হবে। অন্যদিকে ভারতে সোমবার থেকেই পালিত হচ্ছে সাত দিনের রাষ্ট্রীয় শোক; সাত দিনই জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত থাকবে।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকাকালে পরীক্ষায় করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছিল ভারতের এই সাবেক রাষ্ট্রপতির। তাই দিল্লির রাজাজি রোডের বাড়ি থেকে শুরু করে লোদি রোড মহাশ্মশান—সব ক্ষেত্রেই কভিড-১৯ প্রটোকল মেনে শেষকৃত্য করা হয়। পিপিই পরেই অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন করেন তাঁর ছেলে অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়। পরিবারের অন্য সদস্যরাও পিপিই পরে শামিল হয়েছিলেন শেষকৃত্যে। এ ছাড়া কভিড প্রটোকল মেনে শ্মশানেও লোকসংখ্যা সীমিত রাখা হয়েছিল। অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন করার পর তাঁর অস্থিভস্ম বিসর্জন দেওয়া হবে হরিদ্বারে। প্রণবের এই শেষবিদায়ের মধ্য দিয়ে অবসান হলো পাঁচ দশকের বর্ণময় একজন বাঙালি রাজনীতিবিদের এক অধ্যায়ের।

এর আগে সকালে দিল্লির সেনা হাসপাতাল থেকে প্রণব মুখোপাধ্যায়ের মরদেহ নিয়ে আসা হয় তাঁর লোদি রোডের বাসভবনে। করোনার কারণে মরদেহ রাখা হয় বাড়ির একটি ঘরে। কিন্তু সেখানে কাউকে যেতে দেওয়া হয়নি। পরিবর্তে একটি বেদি তৈরি করে সামনে রাখা হয় তাঁর ছবি। সেই ছবির সামনে ফুল দিয়ে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে ছুটে এলেন দেশের বর্তমান রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। এলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এলেন উপরাষ্ট্রপতি ভেঙ্কাইয়া নাইডু। কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী যেমন এলেন, তেমনি এলেন বিজেপি সভাপতি জেপি নাড্ডা। একের পর এক নেতা এলেন। শ্রদ্ধা জানালেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং, লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লা, চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ বিপিন রাওয়াত, সস্ত্রীক সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং, কংগ্রেস লোকসভার দলনেতা অধীর চৌধুরী, দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল, কমিউনিস্ট নেতা সীতারাম ইয়েচুরিসহ বহু নেতা, মন্ত্রী ও বিশিষ্টজন।

স্থানীয় সময় সকাল ১১টার দিকে প্রণব মুখোপাধ্যায়ের সরকারি বাসভবনে তাঁর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান নয়াদিল্লিতে বাংলাদেশের হাইকমিশনার মোহাম্মদ ইমরান। পুষ্পস্তবক অর্পণকালে বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু ও শুভাকাঙ্ক্ষী এই নেতার প্রতি তিনি নীরবে দাঁড়িয়ে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। এ সময় তিনি প্রণবের ছেলে অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়, ইন্দ্রজিৎ মুখোপাধ্যায় ও মেয়ে শর্মিষ্ঠা মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে কথা বলেন। বাংলাদেশের পক্ষে গভীর শোক জানান হাইকমিশনার। এ সময় হাইকমিশনারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি তাঁদের পরিবারের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন শর্মিষ্ঠা মুখোপাধ্যায়।

আজ নয়াদিল্লিতে বাংলাদেশ হাইকমিশন প্রণব মুখোপাধ্যায়ের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে একটি শোকসভার আয়োজন করেছে। এতে বিশিষ্ট ব্যক্তিরা উপস্থিত থাকবেন।

এদিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ হাসপাতালে থাকায় শেষকৃত্যে আসতে পারেননি। এক ভিডিও বার্তায় তিনি বলেছেন, ‘সবাইকে নিয়ে চলার কলা তিনি (প্রণব) জানতেন। আমাদের জন্য তিনি ছিলেন অভিভাবক।’

বাসার বাথরুমে পড়ে গিয়ে মাথায় আঘাত পাওয়ার পর গত ১০ আগস্ট দিল্লির আর্মি হসপিটাল রিসার্চ অ্যান্ড রেফারেলে ভর্তি হয়েছিলেন প্রণব। অস্ত্রোপচার করতে গিয়ে তাঁর শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ে। একপর্যায়ে তিনি চলে যান গভীর কোমায়। সেখান থেকে আর ফিরতে পারেননি। সোমবার বিকেলে তিনি হাসপাতালেই শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!