Tuesday , 15 June 2021
ব্রেকিং নিউজ
Home » দৈনিক সকালবেলা » অপরাধ ও দূর্নীতি » কুষ্টিয়া লাহিনী এলাকার বিল্লালের বিরুদ্ধে শ্বাশুরীর জমি জালিয়াতি করে আত্মসাতের অভিযোগ

কুষ্টিয়া লাহিনী এলাকার বিল্লালের বিরুদ্ধে শ্বাশুরীর জমি জালিয়াতি করে আত্মসাতের অভিযোগ

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: কুষ্টিয়া শহরতলীর লাহিনী বটতলের পশ্চিম পাড়া এলাকার মৃত মসলেম সেখের ছেলে বিল্লালের বিরুদ্ধে তার শ্বাশুরী অবেলা খাতুনের ২০ শতক জমি জালিয়াতি করে বউ লতার নামে মিউটেশন করার অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ সুত্রে জানা যায়,লাহিনী পশ্চিম পাড়া এলাকার মৃত আব্দুল হামিদ ও তার স্ত্রী অবেলা খাতুন দম্পত্তির বড় মেয়ে লতা খাতুনের সাথে বিয়ে হয় একই এলাকার মৃত মসলেম সেখের ছেলে বিল্লালের। সেই সুবাধে বাড়ির বড় জামাই বনে যায় বিল্লাল। বাড়ির বড় জামাই হবার কারনে শ্বশুর আব্দুল হামিদ জামাইয়ের নামে ২০ শতক জমি লিখে দেন আর সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে জামাই বিল্লাল ২০ শতকের জায়গার স্থানে অন্যপাশের আরেক দাগের ৮ কাঠা নিজের নামে লিখে নেয়।পরবর্তীতে শ্বশুর হামিদ এই বিষয় নিয়ে জামাই বিল্লালকে বললে বিল্লাল বলে ভুলক্রমে অন্য দাগের জমি রেজিস্ট্রি হয়ে গেছে আপনি আগের দাগের ২০ শতক আমাকে পুনরায় লিখে দেন তাহলে আমি আপনাকে ৮ কাঠা জমি ফেরত দিয়ে দিবো। বিশ্বাস করে শ্বশুর হামিদ পুনরায় ২০ শতক জমি লিখে দিলে জামাই দুই দাগের জমিই নিজের নামে নামকরন করে পরবর্তীতে আর শ্বশুরকে আগের ৮ কাঠা জমি ফেরত দেননি। জামাই বিল্লালের এমন বিশ্বাসঘাতকতার যন্ত্রনা সইতে না পেরে শ্বশুর হামিদ সেই শোকে ধুকতে ধুকতে মারা যায়। বর্তমানে বিল্লালের শ্বশুর মারা যাওয়ার ১ বছর অতিবাহিত হতে না হতেই শ্বাশুরীর ২০ শতক জমি জালিয়াতি করে বউ লতার নামে করে নিয়েছে বিল্লাল। এ বিষয়ে ভুক্তভোগী বিল্লালের শাশুড়ী অবেলা খাতুন বলেন,আমার স্বামী আব্দুল হামিদ মারা যাওয়ার পরে আমি আমার বড় জামাই বিল্লালকে লাহিনী ক্যানালের পাশে ১০৬৮ দাগের ২০ শতক জমি আমার স্মামীর নামের পরিবর্তে আমার নামে করার জন্য জমির দলিল প্রেরন করি। দীর্ঘ ৬ মাস পার হয়ে গেলেও জামাই বিল্লাল বিভিন্ন রকম মিথ্যা বানোয়াট কথা বলে আমাকে ঘুড়াতে থাকে। আমি এ বিষয়ে আমার বড় ছেলে ওলিউর রহমান ওলিকে খুলে বলার পর জায়গার খাজনা দেওয়ার জন্য ওলি ভুমি অফিসে গেলে সেখান থেকে জানায় ১০৬৮ দাগের ২০ শতক জমি বিল্লালের স্ত্রী আমার মেয়ে লতার নামে বিক্রয় করা হয়েছে। অথচ আমার জমি আমিই জানিনা কখন বিক্রি হয়ে গেলো ।এ বিষয়ে অবেলা খাতুনের বড় ছেলে ওলিউর রহমান ওলি জানান,আমার বড় বোনের স্মামী বিল্লাল জালিয়াতি করে আমার বাবার জমি লিখে নেওয়ার শোক সইতে না পেরে আমার বাবা মারা গিয়েছে। আর এখন সেই শোক কাটতে না কাটতেই আমার মায়ের জমিও জালিয়াতি করে ভোগ করার চেষ্টা চালাচ্ছে। ১০৬৮ দাগের ২০ শতক জমি কিভাবে বিল্লালের স্ত্রী আমার বোন লতার নামে মিউটেশন হয়েছে এলাকাবাসীসহ আমরা জানতে চাইলে বিল্লাল বলেছে আমার কাছে কাগজ আছে প্রমান আছে কিন্তু যার জমি সে জানতোনা যে সেটা অন্যের নামে মিউটেশন হচ্ছে। নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক স্থানীয় কয়েকজন বলেন,বিল্লাল লাহিনী এলাকায় ভুমি খেকো নামেই পরিচিত। অন্যের জমি জবর দখল, মারামারি,সন্ত্রাসী বাহিনী সহ নানান রকম অপকর্মের সাথে জড়িত বিল্লাল। কিছুদিন আগে লতিফ নামে এক ব্যাক্তির পৈত্রিক সম্পত্তি জবর দখল করে রেখেছিলো বিল্লাল কিন্তু পরবর্তীতে সাংবাদিকদের তোপের মুখে পড়ে তা দখল নিতে ব্যার্থ হয় বিল্লাল। এ ছাড়া এলাকাবাসী আরও বলেন,বিল্লাল এক কলম লেখাপড়াও জানেনা কিন্ত জায়গা জমি দখলের ব্যাপারে সে অনেক পাকা কারন তার সাথে রয়েছে মুখোশধারী কিছু ভদ্রব্যাক্তিরা জড়িত তাই এলাকার কেউ বিল্লালের বিরুদ্ধে মুখ প্রতিবাদ করতে ভয় পায়। এ বিষয়ে অভিযুক্ত বিল্লালের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে সম্ভব হয়নি। 

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*