Saturday , 28 November 2020
E- mail: news@dainiksakalbela.com/ sakalbela1997@gmail.com
Home » দৈনিক সকালবেলা » উপজেলার খবর » সিরাজদিখানে দূর্গা পূজার জন্য প্রস্তুত ১০৪ টি পূজা মন্ডপে প্রতিমা
সিরাজদিখানে দূর্গা পূজার জন্য প্রস্তুত ১০৪ টি পূজা মন্ডপে প্রতিমা

সিরাজদিখানে দূর্গা পূজার জন্য প্রস্তুত ১০৪ টি পূজা মন্ডপে প্রতিমা

সিরাজদিখান (মুন্সিগঞ্জ) প্রতিনিধি:
মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানে দূর্গা পূজার জন্য প্রস্তুত ১০৪ টি পূজা মন্ডপে প্রতিমা। সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মহোৎসকে সামনে রেখে সিরাজদিখানের পূজামণ্ডপগুলোতে কাদামাটি খড়-কাঠ দিয়ে দুর্গা, সরস্বতী, লক্ষ্মী, কার্তিক, গণেশ, অসুর ও শিবের মূর্তি নিখুঁতভাবে ফুটিয়ে তুলেছে মৃত্তিকা শিল্পীরা। আগামী ২২ শে অক্টোবর বৃহস্পতিবার মহাষষ্ঠী পূজার মধ্য দিয়ে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের এ মহোৎসব শুরু হবে। ২৬শে অক্টোবর বিজয়া দশমীতে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্যে দিয়ে শেষ হবে পাঁচদিনের উৎসব। গতকাল সোমবার সরেজমিন ঘুরে প্রতিমা শিল্পীদের শেষ সময় ব্যস্ততার চিত্র দেখা গেছে। প্রতিমা শিল্পীদের নিপুণ আঁচড়ে তৈরি হচ্ছে এক একটি প্রতিমা। প্রতিমা তৈরীর শিল্পীরা জানান প্রতিমা তৈরি করা অনেক কষ্টের। আর আগের মতো লাভ অয় না। তাপরও করতে হয়। সিরাজদিখান উপজেলার পূঁজা উদযাপন পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জ্ঞানন্দীপ ঘোষ জানান, সিরাজদিখান উপজেলার ১৪ টি ইউনিয়নের ১৩ টি ইউনিয়নে ১০৪ টি পূঁজা মন্ডপে পূঁজার্চনার আয়োজন করা হয়েছে যা গতবছরের তুলনায় ৮ টি কম । বালুচর ইউনিয়নের হিন্দুসম্প্রদায়ের লোক না থাকায় সেখানে কোন পূঁজা মন্ডপ নেই । এ বছর চিত্রকোট ইউনিয়নে ১৯ টি পূঁজামন্ডপ, শেখরনগর ১৪ টি, রাজানগর ৯টি,কেয়াইন ১৬ টি,বাসাইল ৪ টি,রশুনিয়া ৮ টি ,ইছাপুরা ৪ টি জৈনসার ৬ টি,মধ্যপাড়া ৫ টি,লতব্দী ৪ টি,মালখানগর ৯ টি,বয়রাগাদী ৫ টি এবং কোলা ইউনিয়নে ১ টি পুজামন্ডপে দুর্গাৎসব অনুষ্ঠিত হবে। উৎসাহ উদ্দীপনা ও সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে শারদীয় দুর্গোৎসব উদযাপনের লক্ষ্যে প্রশাসনের পক্ষ থেকে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। সনাতন ধর্মালম্বীদের বৃহৎ ধর্মীয় অনুষ্ঠান দুর্গোৎসব নিয়ে প্রতিটি পাড়া-মহল্লায় চলছে সাঁজ-সাঁজ রব। পূজার আনন্দকে ভাগাভাগি করে নিতে পুজারী থেকে শুরু করে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ও  আয়োজকদের মাঝে নেমে এসেছে মহা আনন্দের ছোয়া ।সিরাজদিখান থানার (ওসি) মোহাম্মদ রিজাউল হক বলেন, এবার যেকোন দূর্ঘটনা প্রতিহত করতে প্রতিমা তৈরী থেকে শুরু করে দেবী বিসর্জন পর্যন্ত সেচ্ছাসেবী টিমসহ প্রশাসনিক নজরদারি সার্বক্ষণিক থাকবে । প্রতিটি পূঁজামন্ডপের সভাপতি সাধারন সম্পাদকদের সাথে আমার কথা হয়েছে প্রতিটি পূজামন্ডবের জন্য টহল পুলিশ এবং ১০ টি পূজামন্ডবের জন্য ১ টি করে মোবাইল টিম থাকবে । সার্বক্ষণিক টহল পুলিশ ব্যবস্থাও জোরদার করা হবে।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*