Saturday , 28 November 2020
E- mail: news@dainiksakalbela.com/ sakalbela1997@gmail.com
Home » ই-পেপার » জামালপুরে শিশু ও কলেজছাত্রীসহ তিন জনের লাশ উদ্ধার

জামালপুরে শিশু ও কলেজছাত্রীসহ তিন জনের লাশ উদ্ধার

জামালপুরঃ জামালপুর জেলার পৃথক পৃথক স্থান হতে এক কলেজছাত্রীসহ তিনজনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।এদের মধ্যে মেলান্দহ হতে এক কলেজছাত্রী, জামালপুর শহরের ছনকান্দা হতে  ফাঁসিতে ঝুলন্ত অবস্থায় এক শ্রমিকের এবং ইসলামপুর হতে অজ্ঞাত পরিচয় এক শিশুর গলিত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, আজ বুধবার সকালে জামালপুর পৌরসভার ছনকান্দা এলাকায় ওমর আলীর বাড়ির পাশে গাছে ঝুলে থাকা নজরুল ইসলাম (৩২) নামের এক শ্রমিকের লাশ উদ্ধার করেছে সদর থানা পুলিশ। নিহত ওই শ্রমিক ওমর আলীর মেয়ে রেখা বেগমের স্বামী এবং তিনি শেরপুর সদর উপজেলার বলাইয়ের চরের দুলাল মিয়ার ছেলে। পেশায় তিনি তোলার কারখানার শ্রমিক ছিলেন। গতকাল মঙ্গলবার রাতে তিনি শ্বশুর বাড়ি ছনকান্দায় এসে জানতে পারেন স্ত্রী তাকে তালাক দিয়েছে। আজ বুধবার ভোররাতে ওই বাড়ির পাশে একটি গাছের সাথে গলায় রশি বাঁধা ঝুলন্ত অবস্থায় তার লাশ দেখতে পেয়ে স্থানীয় এলাকাবাসী থানায় খবর দেন। পরে সদর থানা পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।অপরদিকে গতকাল মঙ্গলবার গভীর রাতে জেলার মেলান্দহ উপজেলার ফুলকোচা ইউনিয়নের তেলিপাড়া গ্রাম থেকে আকলিমা বেগম (১৭) নামের এক কলেজছাত্রীর লাশ উদ্ধার করে আজ বুধবার সকালে জামালপুর মর্গে পাঠিয়েছে মেলান্দহ থানা পুলিশ। ওই মেয়েটি উপজেলার হাজরাবাড়ী সিরাজুল হক ডিগ্রি কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী।
 নিহত কলেজছাত্রীর বাবা আলেফ উদ্দিন জানান, ঘরে ধরনার সাথে গলায় ওড়না পেচিয়ে তার মেয়ে আত্মহত্যা করেছে।মেয়ের আত্মহত্যার কারণ সম্পর্কে তার বাবা কিছুই বলতে পারছেন না। এ ব্যাপারে মেলান্দহ থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।এদিকে আজ বুধবার সকালে ইসলামপুর উপজেলার চিনাডুলি ইউনিয়নের যমুনা নদীতে ভাসমান অবস্থায় অজ্ঞাত পরিচয় এক শিশুর(১০) গলিত লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে ইসলামপুর থানা পুলিশ। লাশটি কয়েকদিন আগের বিধায় গলেপচে বিকৃত হয়ে গেছে।শিশুটি নদীতে পড়ে গিয়ে কিংবা তাকে হত্যা করে কেউ নদীতে ফেলে থাকতে পারে বলে পুলিশ এবং স্থানীয়রা ধারণা করছেন। এ ব্যাপারে ইসলামপুর থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের হয়েছে।জেলার ইসলামপুর, মেলান্দহ ও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার (ওসি) কার্যালয় সূত্র এসব তথ্য নিশ্চিত করেছে সদর, মেলান্দহ ও ইসলামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বৃন্দ। 

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*