Sunday , 17 January 2021
E- mail: news@dainiksakalbela.com/ sakalbela1997@gmail.com
Home » দৈনিক সকালবেলা » উপজেলার খবর » মুক্তাগাছায় প্রতারণা করে ব্যাংক থেকে টাকা আত্মসাৎ

মুক্তাগাছায় প্রতারণা করে ব্যাংক থেকে টাকা আত্মসাৎ

মুক্তাগাছা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি: ময়মনসিংহের মুক্তাগাছায় প্রবাসীর
ব্যাংকের মাধ্যমে পাঠানো টাকা প্রতারণা করে আত্মসাৎ করেছে। এ ব্যাপারে মুক্তাগাছা
থানায় মামলা হলে পুলিশ উপজেলার পলশা পশ্চিম পাড়া গ্রামের হারেজ আলীর পুত্র সাঈদ
(৩৫) কে গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠিয়েছে।
বিবরণে জানা যায়, পলশা পশ্চিম পাড়া গ্রামের মৃত হিলিম উদ্দিন এর ছোট মেয়ে
পারভীন আক্তার (৪০) ছয় বছর পূর্বে জীবিকার তাগিদে জর্ডানে যায়। কিছু দিন
পর বাড়িতে তার বড় বোন মোছাঃ রাশিদা বেগম কে মুক্তাগাছা ইসলামী ব্যাংক
শাখায় একটি হিসাব খুলতে বলে। রাশিদা তার পরর্শী সাঈদ কে বিষয়টি জানালে
সাঈদ জানায় তার ইসলামী ব্যাংকে একাউন্ট রয়েছে। রাশিদাকে হিসাব খুলতে
সহযোগিতা করবে। এই সুবাদে তাকে ইসলামী ব্যাংকে নিয়ে এসে হিসাব
খুলতে সহযোগিতা করেন এবং হিসাবের সনাক্তকারী হয়। যে হিসাবটি খোলা হয়
তার নম্বর- ২০৫০০১২০২০১০৩৯২০৬। পরবর্তীতে সাঈদ ব্যাংকের চেক বই থেকে
একটি চেকের পাতায় কৌশলে স্বাক্ষর করিয়ে তার কাছে রেখে দেয়। কিছুদিন পর
রাশিদার নামে ব্যাংক থেকে তার হিসাবের একটি এটিএম কার্ড নেন এবং
কৌশলে এটিএম কার্ডটি সাঈদের কাছে রেখে দেয়। পরবর্তীতে রাশিদার বোন
পারভীন বিভিন্ন সময় জর্ডান থেকে রাশিদার হিসাবে টাকা পাঠায়। রাশিদা সরল
বিশ^াসে বসে ছিল। কিন্তু প্রতারক সাঈদ গত ১৪/০৭/২০২০ ইং তারিখে রাশিদার
কাছ থেকে কৌশলে স্বাক্ষর করিয়ে নেয়া চেকের পাতা দিয়ে ব্যাংক থেকে ১ লক্ষ ৫
হাজার টাকা উত্তোলন করে নেয়। পরবর্তীতে বিভিন্ন সময় এটিএম কার্ডের
মাধ্যমে ১৭ বার বিভিন্ন অংকের টাকা উত্তোলন করে। এভাবে প্রতারণার মাধ্যমে
সর্বমোট ২ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা উত্তোলন করে নেন প্রতারক সাঈদ। গত
১২/১১/২০২০ ইং তারিখ পারভীন জর্ডান থেকে দেশে আসে। দেশে আসার পর বড়
বোন রাশিদাকে নিয়ে গত ১৫/১২/২০২০ তারিখে ইসলামী ব্যাংক মুক্তাগাছা শাখায়
টাকা উত্তোলনের জন্য চেকজমা দিলে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ জানান একাউন্টে কোন
টাকা নেই। বিষয়টি রাশিদা ও তার বোন পারভীন সাঈদকে টাকা উত্তোলনের বিষয়ে
জিজ্ঞাসাবাদ করলে সাঈদ তাদেরকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল ও বিভিন্ন প্রকার ভয় ভিতি
ও হুমকি প্রদান করে। এ বিষয়ে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে একাধিক শালিস
হয়। শালিসে টাকা আত্মসাতের বিষয়টি শিকার করে সাঈদ টাকা ফেরত দেওয়ার
প্রতিশ্রুতি দেয়। কিন্তু পরবর্তীতে টালবাহানা করে কালক্ষেপন করতে থাকে।
অবশেষে গত পহেলা জানুয়ারী শুক্রবার রাশিদা বাদী হয়ে মুক্তাগাছা থানায় মামলা
দায়ের করে। মামলা নং-২ তারিখ ০১/০১/২০২১ ইং। পুলিশ প্রতারক সাঈদকে গ্রেফতার
করে জেল হাজতে পাঠায়।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*