Wednesday , 20 January 2021
E- mail: news@dainiksakalbela.com/ sakalbela1997@gmail.com
Home » দৈনিক সকালবেলা » বিভাগীয় সংবাদ » জেলার-খবর » আধুনিক ও মডেল ওয়ার্ড গড়তে পুণরায় ভোট চান কুলাউড়ার কাউন্সিলর প্রার্থী হারুনুর রশীদ
আধুনিক ও মডেল ওয়ার্ড গড়তে পুণরায় ভোট চান কুলাউড়ার কাউন্সিলর প্রার্থী হারুনুর রশীদ
--প্রেরিত ছবি

আধুনিক ও মডেল ওয়ার্ড গড়তে পুণরায় ভোট চান কুলাউড়ার কাউন্সিলর প্রার্থী হারুনুর রশীদ

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি : আসন্ন আগামী ১৬ জানুয়ারি মৌলভীবাজারের কুলাউড়া পৌরসভার নির্বাচনে ৭নং ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলর মোঃ হারুনুর রশীদ পানির বোতল প্রতীকে পুনরায় কাউন্সিলর পদপ্রার্থী হয়েছেন। ইতিমধ্যে দলমত নির্বিশেষে সকলকে সাথে নিয়ে ওয়ার্ডকে একটি‌ উন্নত ওয়ার্ড হিসেবে গড়ে তুলতে চেষ্টা করেছেন। এবার তিনি মডেল ও আধুনিক ওয়ার্ড হিসেবে গড়ে তুলতে ৭নং ওয়ার্ডবাসীর দোয়া-আশির্বাদ ও সমর্থন চেয়েছেন এবং পানির বোতল প্রতীকে ভোট চেয়ে পুণরায় ব্যাপক ভোটের মাধ্যমে তাকে নির্বাচিত করে এলাকার উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে ওয়ার্ডবাসীর প্রতি আহবান জানান। 
দিনভর ও রাতের একটা অংশজুড়ে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ছুটে চলছেন, পাচ্ছেন ব্যাপক সাড়া।যারা ভোটার‌ নয় তারাও আন্তরিকতা থেকে বাদ পড়ছেন না।ওয়ার্ডের উন্নয়নের অগ্রণী ভূমিকা পালন কারী, প্রতিটি পরিবারের সুখে-দুঃখে, বিপদে-আপদে পাশে থাকা মানুষটির নাম হারুনুর রশীদ। 

৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদপ্রার্থী মোঃ হারুনুর রশীদ বলেন,বিগত ৫ বছর আমি নাগরিকের সেবক হিসেবে পাশে ছিলাম,চলার পথে সবসময় চেষ্টা করেছি মূল্যবান ভোটের আমানত সম্মান রক্ষা করতে। সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ও মাদকমুক্ত করে দল-মত নির্বিশেষে একটি সুন্দর ও বাসযোগ্য ওয়ার্ড হিসেবে গড়ে তুলতে চেষ্টা করেছি। ওয়ার্ডের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড  রাস্তাঘাট, ড্রেনেজ ব্যবস্থা, জলাবদ্ধতা দূরীকরণ ও সড়কের বাতিসহ এলাকার উন্নয়ন করবো ।সুবিধাবঞ্চিত গরীব-অসহায় এর নিকট সরকারী সুযোগ-সুবিধা পূর্বের ন্যায় দোড়গোড়ায় পৌঁছে দেব।
তিনি বলেন,আমি পুনরায় নির্বাচিত হলে ৭ নং ওয়ার্ডের অসমাপ্ত উন্নয়ন কর্মকান্ড সমাপ্ত করব এবং এই ওয়ার্ডকে আধুনিক ও মডেল ওয়ার্ড হিসেবে গড়ে তুলতে ভূমিকা পালন করব।এজন্য আমি ৭নং ওয়ার্ডের সকলের কাছে দোয়া -আশির্বাদ ও সমর্থন চাই ।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*