Saturday , 27 February 2021
E- mail: news@dainiksakalbela.com/ sakalbela1997@gmail.com
Home » দৈনিক সকালবেলা » বিভাগীয় সংবাদ » জেলার-খবর » বরগুনায় টিসিবি,র পন্য ভৈজ্য তেলের লেভেল উঠিয়ে উচ্চ মূল্যে বিক্রি হচ্ছে খুচরা দোকানে।। দেখার কেউ নেই
বরগুনায় টিসিবি,র পন্য ভৈজ্য তেলের লেভেল উঠিয়ে উচ্চ মূল্যে বিক্রি হচ্ছে খুচরা দোকানে।। দেখার কেউ নেই

বরগুনায় টিসিবি,র পন্য ভৈজ্য তেলের লেভেল উঠিয়ে উচ্চ মূল্যে বিক্রি হচ্ছে খুচরা দোকানে।। দেখার কেউ নেই

বরগুনা প্রতিনিধিঃ
বরগুনায় টিসিবি,র পন্য ভৈজ্য তেলের লেভেল উঠিয়ে উচ্চ মূল্যে বিক্রি করা হচ্ছে শহরের খুচরা দোকানে ।। দেখার কেউ নেই। শহরের বাকালি পট্টি টিসিবি,র পন্য ভৈজ্য তেলের লেভেল উঠিয়ে উচ্চ মূল্যে বিক্রি করা হচ্ছে এমনটি অভিযোগ পাওয়াগেছে। নিন্ম আয়ের মানুষের অধিকার ক্ষর্ব করে টিসিবি,র পন্য ভৈজ্য সয়াবিন তেলের লেভেল উঠিয়ে বেশি মূল্যে (২-লিটার ২শ ৬০) টাকা মূল্যে বিক্রি করছে কতিপয় অসাধু ব্যবসায়ী। মহামারি করোনা ভাইরাস দূর্যোগকালীন সময় পৌরসভাস্থ নিন্ম আয়ের মানুষে জন্য ন্যায্য মূল্যে টিসিবির পণ্য বিক্রি কার্যক্রম চালু করে সরকার। যেখানে সরকারি নিয়ম অনুযায়ী নিন্ম আয়ের মানুষে জন্য ভৈজ্য সয়াবিন তেল লিটার প্রতি -৮০ টাকা, চিনি-৫০ টাকা ও ডাল ৫০ টাকা পিয়াঁজ-২০টাকা কেজি ধরে বিক্রি করার কথা ডিলারদের । সেখানে নিন্ম আয়ের মানুষে জন্য ন্যায্য মূল্যে টিসিবির পণ্য কিভাবে খুচরা দোকানে লেভেল উঠিয়ে উচ্চ মূল্যে বিক্রি করা হচ্ছে এমন প্রশের উত্তর খুঁজে পাওয়া যায়নি।
ভুক্তভোগী আওয়ামীলীগ নেতা মো. আজিম মোল্লা প্রতিবেদককে বলেন, আমি শহরের বাকালিপট্টি তৈল কিনতে গেলে দোকানদার আমাকে ২ লিটার একটি তৈলের বোতল হাতে দেয় ,আমি দাম জিজ্ঞেস করলে ২শ৬০ টাকা চায়, বোতলের এক পাশের লেভেল ও গায়ে মূল্য না থাকায় আমার সন্দেহ হয় ,যে ইহা টিসিবির পন্য। আমি দোকানদারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমি গ্রাহকের কাছ থেকে কিনেছি। তিনি আরও জানান, বাজার নিয়ন্ত্রণে কোন তদারকি না থাকায় আমাদের আওয়ামীলীগ সরকারে সফলতা ও টিসিবি কর্মসূচির সূফল সঞ্চিত হচ্ছে নিন্ম আয়ের সাধারণ মানুষ। ডিলারদের নানা অনিয়ম ও অনৈতিক কর্মকান্ডে হয়রানির শিকার হচ্ছে নিন্ম আয়ের সাধারণ মানুষ। টিসিবি,র ডিলারগণ অন্যায়ভাবে টিসিবি,র পন্য খুচরা দোকানে লেভেল উঠিয়ে বিক্রি করছে যাতে ধরা না পরে। এতে আমাদের সরকারের বদনাম হচ্ছে।
তবে এর পূর্বে টিসিবির এক ডিলারে গোডাউনে অভিযানের সময় ৫ লিটারী ২০ কার্টুন সয়াবিন তৈল, ৯ বস্তা চিনি ও পিঁয়াজ নিয়ম বর্হিভূত ভাবে স্টক করে রাখতে দেখা যায়। প্রশাসন অভিযান করলেও দৃশ্যমান কোন ব্যবস্থা নিতে দেখা যায়নি আজ অবধি। এ ধরনের র্দূনীতি প্রতিরোধে ও নিন্ম আয়ের মানুষের অধিকার রক্ষায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ ও জেলার সংশ্লিষ্ঠ প্রশাসনের তেমন কোন তৎপরতাও দেখা যায়না।
বরগুনা-পটুয়াখালীর জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন এর সহকারি পরিচালক মো.সেলিম আহম্মেদ বলেন, টিসিবির পন্য খুচরা দোকান বেশি মূল্যে বিক্রি করা বে-আইনী এটা দন্ডনীয় অপরাধ । বিষয়টি জানলাম তদন্ত করে ব্যবস্থা নেব।
উল্লেখ্য মহামারি করোনা ভাইরাস দূর্যোগকালীন সময় পৌরসভাস্থ নিন্ম আয়ের মানুষে জন্য ন্যায্য মূল্যে টিসিবির পণ্য বিক্রি কার্যক্রম চালু করে অব্যাহত রেখেছে সরকার ।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*