Saturday , 27 February 2021
E- mail: news@dainiksakalbela.com/ sakalbela1997@gmail.com
Home » জাতীয় » রপ্তানি ও শিল্পে আলুর আবাদ বৃদ্ধিতে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে- কৃৃষিমন্ত্রী
রপ্তানি ও শিল্পে আলুর আবাদ বৃদ্ধিতে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে- কৃৃষিমন্ত্রী

রপ্তানি ও শিল্পে আলুর আবাদ বৃদ্ধিতে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে- কৃৃষিমন্ত্রী

এস.কে হিমেল, নীলফামারী প্রতিনিধিঃ রপ্তানিযোগ্য জাতের আলু উৎপাদনে অপার সম্ভাবনা রপ্তানি ও শিল্প ব্যবহারযোগ্য আলুর আবাদ বৃদ্ধিতে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে,কৃৃষিমন্ত্রী গতকাল দুপুরে জেলার ডোমার উপজেলায় বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশনের (বিএডিসি) বীজআলু উৎপাদন ডোমার খামার পরিদর্শন শেষে কৃষিমন্ত্রী ড.মোঃআব্দুর রাজ্জাক, এমপি বলেন,বর্তমানে বছরে ১কোটি টনের বেশি উন্নত জাতের আলু উৎপাদন হয়।দেশে চাহিদা রয়েছে ৬০-৭০ লাখ টনের মতো।দেশে উৎপাদিত আলুতে পানির পরিমাণ বেশি হওয়ায় বিদেশে চাহিদা কম।সেজন্য বিদেশে চাহিদার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে রপ্তানি ও শিল্পে ব্যবহারযোগ্য আলুর আবাদ ও উৎপাদন বৃদ্ধিতে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। কৃষি মন্ত্রনালয় সে লক্ষ্যে নিরলসভাবে কাজ করছে।এসময় কৃষিমন্ত্রানালয়ের সচিব মোঃমেসবাহুল ইসলাম,অতিরিক্ত সচিব জনাব মোঃ মাহবুবুল ইসলাম, বিএআরসি নির্বাহী চেয়ারম্যান জনাব ড.শেখ মোহাম্মদ বখতিয়ার, বিএআরআই মহাপরিচালক জনাব ড.মোঃনাজিরুল ইসলাম,বিএআরআই মহাপরিচালক জনাব ড. মোঃ শাহাজাহান কবীর, নীলফামারী জেলা প্রশাসক জনাব মোঃ হাফিজুর রহমান চৌধুরী, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোখলেছুর রহমান ,বিএডিসির চেয়ারম্যান মোঃসায়েদুল ইসলাম, কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোঃআসাদুল্লাহ বারির মহাপরিচালক নাজিরুল ইসলাম, গম ও ভুট্টা গবেষণা ইন্সটিটিউটের মহাপরিচালক ড.মোঃএছরাইল হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও বিএডিসির মানসম্মত বীজ আলু উৎপাদন ও সংরক্ষণ এবং কৃষক পর্যায়ে বিতরণ জোরদারকরণ,প্রকল্পের আওতায় ডোমার খামারে ভিত্তি বীজআলু উৎপাদন করা হচ্ছে। পাশাপাশি নতুন জাতের উপযোগী যাচাইয়ের জন্য ট্র্যায়াল প্লট স্থাপন ও পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। এছাড়াও প্রকল্পের আওতায় সারাদেশে ২৮টি জোনে চুক্তিবদ্ধ চাষির মাধ্যমে কৃষক পর্যায়ে ব্যবহিত/প্রত্যায়িত বীজআলু উৎপাদন করা হচ্ছে। উচ্চ ফলনশীল, রপ্তানি ও শিল্পে ব্যবহার উপযোগী আলুর জাত পরিচিতি ও জনপ্রিয় করনের জন্য বিএডিসি আমদানিকৃত এবং বারি উদ্ভাবিত সম্ভাবনাময় ২০ টি জাত নিয়ে এ বছর সারাদেশে ৩০০টি প্রদর্শনী প্লট ও মাল্টিলোকেশন টেস্ট পরিচালনা করা হচ্ছে। ২০২০-২১ উৎপাদন বর্ষে বিভিন্ন মানের ৩৭ হাজার ৫০০ মে,টন বীজ আলু এবং ৫ হাজার মে,টন রপ্তানি উপযোগী আলুসহ সর্মোট ৪২ হাজার ৫০০ মে,টন আলু উৎপাদন কার্যক্রম চলমান রয়েছে। বর্তমানে সারাদেশে ২৮ টি জোনের ৩০ টি হিমাগার রয়েছে যার বর্তমান ধারণক্ষমতা মোট ৪৫ হাজার ৫০০ মে,টন।আরও প্রকল্পের মেয়াদে ২ হাজার মে,টন ধারণক্ষমতা সম্পন্ন ৪ টি হিমাগার নির্মাণ করা হবে। ফলে বিএডিসির বীজআলু সংরক্ষণ ক্ষমতা উন্নীত হবে ৫৩ হাজার ৫০০ মে,টন।এসডিজি লক্ষ্যমাএা অনুযায়ী ২০২৯-৩০ সালের মধ্যে বীজ আলু উৎপাদন ৬০ হাজার মে,টনে উন্নীত করা হবে।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*