Sunday , 20 June 2021
ব্রেকিং নিউজ
Home » জাতীয় » ভূয়া চাকুরীদাতা প্রতিষ্ঠানের এগারো প্রতারককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪
ভূয়া চাকুরীদাতা প্রতিষ্ঠানের এগারো প্রতারককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪

ভূয়া চাকুরীদাতা প্রতিষ্ঠানের এগারো প্রতারককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীর মিরপুর ও আশুলিয়া এলাকার দু’টি ভূয়া চাকুরীদাতা প্রতিষ্ঠান থেকে ১৫ জন ভুক্তভোগীসহ মোট এগারোজন প্রতারককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‌্যাব-৪ এর একটি আভিযানিক দল। গত ৩১/০১/২০২১ ইং তারিখ ১২.৩০ ঘটিকা হতে ১৫.০০ ঘটিকা পর্যন্ত দুটি প্রতিষ্ঠানে অভিযান পরিচালনা করা হয়। র‌্যাব- ৪ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া অফিসার) এর পক্ষে সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ জিয়াউর রহমান চৌধুরী এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।
গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মিরপুর এক নম্বর এলাকার আনন্দ সিকিউরিটি সার্ভিস লিমিটেড ও আশুলিয়া এলাকার ক্যাপটর সিকিউরিটি (প্রাঃ) লিমিটেড থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা হল- আনন্দ সিকিউরিটি সার্ভিস লিমিটেডে কর্মরত নরসিংদীর শামিমা (২৬), রাজবাড়ীর রেশমা খাতুন (২০), ভোলার আকলিমা আক্তার আখি (১৮), লক্ষিপুরের মোঃ রায়হান হোসেন (১৯), ভোলার তুষার রহমান (২৩), রাজশাহীর মোঃ শ্রাবন হোসেন (১৮), দিনাজপুরের মোঃ সাকিব ইসলাম (১৮), জামালপুরের মোঃ জাকির হোসেন (২২) ও বি.বাড়ীয়ার মোঃ সোহেল মিয়া (২২)। ও ক্যাপটর সিকিউরিটি (প্রাঃ) লিমিটেডের মাগুড়ার মোঃ লিটন শিকদার (৩৬) ও ঢাকার মোঃ ওসমান গনি (৩৩)। গ্রেফতারকৃত প্রথম ০৯ জনের অফিস থেকে ১০০ টি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ফরম, ২০০ টি ভর্তি ফরম, ১২০ টি ভুয়া নিয়োগপত্র, ১৭৫ টি জরুরী নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, ০৪ টি ডিজিটাল সিল, ১৫ টি নিবন্ধিত বই এবং ৪৫০ টি ভিজিটিং কার্ড ও দ্বিতীয় ২ জনের অফিস থেকে ২০০ টি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ফরম, ২০ টি ভুয়া নিয়োগপত্র, ১০০ টি জীবন বৃত্তান্ত ফরম, ০৪ টি ডিজিটাল সিল, ২টি রেজিস্টার খাতা এবং ২টি চাকুরীতে যোগদানের অঙ্গীকারপত্র ফরমের বই উদ্ধার করা হয়।
র‌্যাব জানায়, উক্ত চক্রটি রাজধানীসহ ঢাকা জেলার বিভিন্ন এলাকায় অফিস ভাড়া করে ভিন্ন ভিন্ন নামে বেনামে ভূঁইফোড় প্রতিষ্ঠান খুলে দেশের বিভিন্ন স্থান হতে মধ্যশিক্ষিত বেকার ও আর্থিকভাবে অস্বচ্ছল যুবক/যুবতীদের আকর্ষণীয় ও উচ্চ বেতনের চাকুরীর প্রলোভনের মাধ্যমে ভুয়া নিয়োগপত্র দিয়ে দীর্ঘদিন যাবত ভুক্তভোগী জনসাধারণের কাছ থেকে বিপুল পরিমান টাকা হাতিয়ে নিচ্ছিলো। এছাড়াও তারা ট্রেনিং এর নামে টাকা নিয়ে এবং চাকুরীপ্রার্থী অন্য সদস্য সংগ্রহ করে দিলে কমিশন দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে আসছিলো। উক্ত গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন এবং সংশ্লিষ্ট অন্যান্য প্রতারক সদস্যদের গ্রেফতার করার জন্য গোয়েন্দা নজরদারি অব্যাহত রয়েছে। অদূর ভবিষ্যতেও এরুপ অসাধু নব্য প্রতারক চক্রের বিরুদ্ধে র‌্যাব-৪ এর জোড়ালো অভিযান অব্যাহত থাকবে। এলিট ফোর্স হিসেবে র‌্যাব আত্মপ্রকাশের সূচনালগ্ন থেকেই আইনের শাসন সমুন্নত রেখে দেশের সকল নাগরিকের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার লক্ষ্যে অপরাধ চিহ্নিতকরণ, প্রতিরোধ, শান্তি ও জনশৃংখলা রক্ষায় কাজ করে আসছে। বর্তমান সময়ে প্রতারণার বিভিন্ন ফাঁদ, যেমন চাকুরী দেওয়ার নাম করে সাধারন জনগণের সরলতার সুযোগ নিয়ে বিপুল পরিমান টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে এক শ্রেণীর সুযোগ সন্ধানী নব্য প্রতারক চক্র। এ ধরনের প্রতারক চক্রকে আইনের আওতায় নিয়ে আসার জন্য র‌্যাব সদা সচেষ্ট।
এফএম আন/বাংলাদেশ সময়- ০৬:২০

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*