Thursday , 4 March 2021
Home » দৈনিক সকালবেলা » উপজেলার খবর » ইটভাটার মাটিতে ক্ষতি হছে রাস্তা, বৃষ্টিতে সড়ক দুর্ঘটনার আশঙ্কা

ইটভাটার মাটিতে ক্ষতি হছে রাস্তা, বৃষ্টিতে সড়ক দুর্ঘটনার আশঙ্কা

বোয়ালমারী (ফরিদপুর) প্রতিনিধিঃ
ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলায় অবস্থিত বিভিন্ন ইটভাটায়  মাটি পরিবহনের কাজে নিয়োজিত ট্রাক থেকে মাটি উপচে পড়ে মাইজকান্দি-ভাটিয়াপাড়া আঞ্চলিক মহাসড়কসহ বিভিন্ন সড়কের বিভিন্ন স্থানের ক্ষতি সাধিত হচ্ছে। এছাড়া বৃষ্টিতে সড়ক কর্দমাক্ত হয়ে মারাত্মক দুর্ঘটনার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।
জানা যায়, নীতিমালার তোয়াক্কা না করে ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে মাঝকান্দি-ভাটিয়াপাড়া আঞ্চলিক মহাসড়ক দিয়ে টানা হচ্ছে ইট ভাটার মাটি। বৃষ্টি হলেই সড়কে ঝরে পড়া মাটি পিচ্ছিল হয়ে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা রয়েছে।
উপজেলার ১৬টি ইটভাটার মধ্যে ২টি অটোভাটাসহ ৬টি ইটভাটা  রয়েছে এই আঞ্চলিক মহাসড়কের পাশে।
এসব ইটভাটার মালিকেরা বর্ষা মৌসুমের কথা মাথায় রেখে ইট তৈরির জন্য ফসলি জমির মাটি কেটে এনে সড়কের পাশে স্তূপ করে রাখছেন। বৃষ্টির পানিতে এসব মাটির স্তূপ থেকে মাটি ধুয়ে সড়কের ওপর এসে পড়ে সড়ক পিচ্ছিল হয়ে দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা রয়েছে। প্রতি বছরই এ আঞ্চলিক মহাসড়ক দিয়ে চলাচলকারী মোটরসাইকেল আরোহী এবং পথচারীরা মারাত্মক ভোগান্তির শিকার হন এবং দুর্ঘটনার কবলে পড়েন।
উপজেলার শেখর ইউনিয়নের রামচন্দ্রপুর এলাকায় অবস্থিত আল আলী অটো ইটভাটার মাটি মাইজকান্দি-ভাটিয়াপাড়া আঞ্চলিক মহাসড়ক ঘেঁষে রাখা হয়েছে। ওই ভাটায় ২৫ থেকে ৩০ ফুট উচ্চতার মাটির স্তূপ রয়েছে। মাটি আনার সময় ট্রাক থেকে মাটি উপচে সড়কের উপর  পড়ে এবং ট্রাকের চাকায় লেগে থাকা মাটি সড়কে লেপ্টে আল আলী অটো ইটভাটার সামনের উভয় দিকের প্রায় আধা কিলোমিটার পর্যন্ত সড়কে মাটির পুরু আস্তরণ পড়ে আছে। প্রতিদিন খুচনি (দেশীয় ছোট কোদাল) দিয়ে রাস্তা থেকে মাটি খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে তোলার চেষ্টা করে দুই জন শ্রমিক। এতে সড়কের বিটুমিন উঠে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সেই সাথে সড়কের কাঠিন্যও দুর্বল হয়ে পড়ছে।
একই অবস্থা মাইজকান্দি-ভাটিয়াপাড়া সড়ক ঘেঁষে উপজেলার সদর ইউনিয়নের সৈয়দপুর গ্রামের আরএমএস ব্রিকস নামের ইটভাটায়।
এছাড়া উপজেলার সাতৈর ইউনিয়নের জয়নগর বটতলায় অবস্থিত মেসার্স এসএমএ ব্রিকস, শেখর ইউনিয়নের মাগুরায় অবস্থিত মেসার্স শফি ব্রিকস, সদর ইউনিয়নে অবস্থিত গোল্ডেন ব্রিকস, ময়না ইউনিয়নের কান্দাকুলে অবস্থিত মেসার্স এমএমএস ব্রিকস, পরমেশ্বরদী ইউনিয়নের পুতন্তীপাড়ায় অবস্থিত মেসার্স ভাই ভাই ব্রিকস, ময়না ইউনিয়নের ঠাকুরপুরে অবস্থিত রাজ ব্রিকসে সড়কের পাশে মাটির স্তূপ করে রাখা হয়েছে। এসব ভাটার সামনের সড়ক মাটিতে লেপ্টে আছে।
এ ব্যাপারে এনজিও কর্মকর্তা মো. রবিউল ইসলাম বলেন, পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার জন্য সরকারের সিদ্ধান্ত এবং প্রচলিত আইন মেনে ভাটা পরিচালনা করা উচিত। ভাটায় সরবরাহকৃত মাটি রাস্তায় পড়ে রাস্তার যেমন ক্ষতি হচ্ছে তেমন সামান্য বৃষ্টিতে রাস্তা পিচ্ছিল হওয়ায় দুর্ঘটনার সম্ভাবনা বেড়ে যাচ্ছে।
এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম বলেন, রাস্তায় ভাটায় টানা ট্রাক থেকে পড়া ভেজা মাটির ফলে সড়কের বিটুমিন নষ্ট হয়ে যায়। এতে সড়কের ক্ষতি হয় ডেফিনিটলি। মাটি বোঝাই ট্রাকের উপরে কাপড় দিয়ে ঢেকে দিলে মাটি সড়কে পড়তে পারে  না। আমি প্রতিবারই উপজেলা পরিষদের মাসিক মিটিংয়ে এটা তুলি। কিন্তু কোন সুরাহা হয় না।
এ ব্যাপারে বোয়ালমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ঝোটন চন্দ বলেন, আমি মাস দুয়েক আগে উপজেলার সকল ভাটা মালিকদের ডেকে এ ব্যাপারে নির্দেশনা দিয়েছি। ট্রাকে মাটি টানার সময় ঢেকে রাখতে বলেছি। ভাটার সামনের সড়কে পড়ে থাকা মাটি প্রতিদিন অপসারণের জন্য ভাটা মালিকদের নির্দেশ দিয়েছি। কোন ভাটা মালিক এ নির্দেশনা অমান্য করলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*