Wednesday , 21 April 2021
Home » দৈনিক সকালবেলা » অপরাধ ও দূর্নীতি » ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তাণ্ডব: ৪৮ মামলায় নেই হেফাজতের কারো নাম!
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তাণ্ডব: ৪৮ মামলায় নেই হেফাজতের কারো নাম!

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তাণ্ডব: ৪৮ মামলায় নেই হেফাজতের কারো নাম!

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি।। 
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গত ২৬ থেকে ২৮ মার্চ হেফাজতে ইসলামের তাণ্ডবের ঘটনায় গতকাল বৃহস্পতিবার পর্যন্ত জেলার কয়েকটি থানায় মোট ৪৮টি মামলা হয়েছে। এসব মামলায় আসামি করা হয়েছে অজ্ঞাতনামা প্রায় ৩৩ হাজার ৫০০ জনকে। কিন্তু ওই মামলায় হেফাজতের কোনো নেতাকর্মীর নাম নেই।
এ প্রসঙ্গে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনিসুর রহমান দ্য জানান, আমরা অপরাধীদের কোনো দলের দৃষ্টিকোণ থেকে দেখতে চাই না। আমরা অপরাধীকে অপরাধী হিসেবেই বিবেচনা করতে চাই। কে কোন দলের তা বিবেচ্য বিষয় না। অপরাধী যে-ই হউক তাদেরকে আইনের আওতায় আনা হবে।
তিনি আরও বলেন, জেলায় যত জায়গায় তাণ্ডব হয়েছে সেগুলোর ভিডিও ফুটেজ যথাসম্ভব সংগ্রহ করেছি। আমরা সেগুলো দেখে ও বিশ্লেষণ করে অপরাধীদের ধরা চেষ্টা করছি। ইতোমধ্যে ভিডিও ফুটেজের ভিত্তিতে আমরা কয়েকজন অপরাধীকে ধরেছি। ভিডিও ফুটেজ দেখে সুনির্দিষ্টভাবে আমরা অপরাধীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিয়েছি।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবদুর রহিম জানান, গত সোমবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত শুধুমাত্র এই থানায় আরও ১৬টি মামলা হয়েছে।
জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. ইমতিয়াজ আহাম্মেদ জানিয়েছেন, এখন পর্যন্ত দায়ের হওয়া ৪৮টি মামলার মধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় ৪৩টি, আশুগঞ্জ থানায় দুটি, সরাইল থানায় দুটি ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলওয়ে স্টেশনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় আখাউড়া রেলওয়ে থানায় একটি মামলা রয়েছে।’
পুলিশের বিশেষ সূত্রে জানা যায়, গত ১ এপ্রিল পর্যন্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় দায়ের হওয়া ১১টি মামলার এজাহারে ২০৯ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। তবে তাদের কেউই হেফাজতে ইসলাম কিংবা কোনো মাদ্রাসার ছাত্র-শিক্ষক নন। বাকি সব মামলার কোনোটির এজাহারে কারো নাম উল্লেখ করা নেই। সেই মামলাগুলোতে ‘অজ্ঞাতনামা দুষ্কৃতিকারী’ ও ‘অজ্ঞাতনামা কওমি মাদ্রাসার ছাত্র-শিক্ষক ও তাঁদের অনুসারী দুষ্কৃতিকারীদের’কথা বলা হয়েছে।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ওসি মো. আবদুর রহিম বলেন, গত ৪৮ ঘণ্টায় ব্রাহ্মণবাড়িয়াস্থ যমুনা টিভির কার্যালয়ে হামলার ঘটনায় একটি, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সরকারের বাসভবন, তার শ্বশুরবাড়ি ও ব্যক্তিগত কার্যালয়ে হামলা, ভাঙচুর ও আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দেওয়ার ঘটনায় পৃথক তিনটি; জেলা ক্রীড়া সংস্থা কার্যালয়ে হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় একটি, শিল্পকলা একাডেমি ভাঙচুরের ঘটনায় একটি, বাংলাদেশ গ্যাস ফিল্ডস কোম্পানি লিমিটেডে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় একটি, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল হোসেন রুবেল ও সাধারণ সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন শোভনের বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় পৃথক দুটি, সুরসম্রাট দি আলাউদ্দিন সঙ্গীতাঙ্গন জ্বালিয়ে দেওয়ার ঘটনায় একটি, জেলা প্রশাসন আয়োজিত উন্নয়ন মেলায় হামলা ও মেলার সবগুলো স্টল আগুনে পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনায় একটি, ব্রাহ্মণবাড়িয়া শিশু একাডেমিতে হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় একটি ও বিজয়নগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জহিরুল ইসলাম ভূঁইয়ার ব্যক্তিগত ল’ চেম্বার ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনায় একটিসহ সংশ্লিষ্টরা মোট ১৬টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।
দায়েরকৃত ১৬টি মামলায় অজ্ঞাতনামা চার হাজার ৩২০ জনকে আসামি করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*