Wednesday , 4 August 2021
ব্রেকিং নিউজ
Home » প্রচ্ছদ » ডেঙ্গু রোধে তিন দিনের জমানো পানি ফেলে দেওয়ার আহ্বান মেয়র আতিকের
ডেঙ্গু রোধে তিন দিনের জমানো পানি ফেলে দেওয়ার আহ্বান মেয়র আতিকের
--ফাইল ছবি

ডেঙ্গু রোধে তিন দিনের জমানো পানি ফেলে দেওয়ার আহ্বান মেয়র আতিকের

অনলাইন ডেস্ক:

ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া প্রতিরোধে এগিয়ে আসতে নগরবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম। এজন্য বাসায় তিন দিনে এক দিন, জমা পানি ফেলে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

আজ শনিবার (২২ মে) সকালে রাজধানীর মিরপুরের পল্লবীতে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলামকে সঙ্গে নিয়ে এডিস মশা নিধনসংক্রান্ত জনসচেতনতামূলক কার্যক্রম উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এই আহ্বান জানান ডিএনসিসি মেয়র।

আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘বাংলাদেশসহ সারাবিশ্ব আজ করোনা মহামারির মধ্যে রয়েছে। এই করোনাকালে যাতে ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়ায় কার‌ও মৃত্যু না হয়, সেজন্য‌ই আজ ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের সব অঞ্চলে এডিস মশা নিধন সংক্রান্ত জনসচেতনতামূলক এই কার্যক্রম একযোগে শুরু হয়েছে।’

মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, রোদের পর বৃষ্টি, বৃষ্টির পর রোদ- এরকম আবহাওয়া এডিস মশার বংশ বিস্তারে সহায়ক ভূমিকা পালন করে। তাই ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া প্রতিরোধে সকলকে সতর্ক থাকতে হবে। তিনি বলেন, ‘কার‌ও একার পক্ষে এডিস মশা দূর করা সম্ভব নয়, সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় বিশেষ করে নিজের ঘরবাড়ি ও আশপাশের পরিবেশ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার মাধ্যমে এডিস মশার বংশ বিস্তার রোধ করতে হবে।’

মেয়র বলেন, নগরসহ দেশকে রক্ষা করার দায়িত্ব সকলের, নিজ নিজ অবস্থানে থেকে এবিষয়ে সবাইকে দায়িত্ব পালন করতে হবে। তিনি বলেন, আজ যেসব বাসায় এডিসের লার্ভা পাওয়া গেছে, সাত দিন পর যদি পুনরায় একই বাসায় এডিসের লার্ভা পাওয়া যায় তাহলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জরিমানা আদায়সহ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

অনুষ্ঠানে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেন, ‘বিশেষজ্ঞদের মতে ২০২০ সালে ঢাকা মহানগরীতে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ২০১৯ সালের তুলনায় ৩ গুণ হওয়ার কথা থাকলেও ডিএনসিসির সুযোগ্য মেয়রের নেতৃত্বে ডেঙ্গু প্রতিরোধে সময়োপযোগী ও কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করায় তা মোকাবেলা করা সম্ভব হয়েছে এবং ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ছিল না বললেই চলে।’ 

তাজুল ইসলাম বলেন, ‘ডিএনসিসির মেয়রের নেতৃত্বে স্থানীয় কাউন্সিলরসহ সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করলে নগরীতে ডেঙ্গু মোকাবেলা করা সম্ভব।’ তিনি বলেন, ‘করোনা মহামারিতে সারা বিশ্ব যখন বিপর্যস্ত, উন্নত অনেক দেশ যখন করোনা মোকাবেলায় হিমশিম খাচ্ছে, ঠিক সেই সময় বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে বাংলাদেশ অত্যন্ত সফলভাবে করোনা মোকাবেলা করতে সক্ষম হয়েছে বলেই উন্নত অনেক দেশের তুলনায় বাংলাদেশ এখনও অনেক ভালো অবস্থানে রয়েছে।

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাঁর বক্তৃতার শেষে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে এডিস মশা নিধনসংক্রান্ত জনসচেতনতামূলক কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। 

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ, ডিএনসিসির প্রধান নিবার্হী কর্মকর্তা মো. সেলিম রেজা, অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*