Monday , 2 August 2021
ব্রেকিং নিউজ
Home » দৈনিক সকালবেলা » উপজেলার খবর » ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসক বরাবর ইউপি সদস্যের লিখিত অভিযোগ দায়ের!
ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসক বরাবর ইউপি সদস্যের লিখিত অভিযোগ দায়ের!

ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসক বরাবর ইউপি সদস্যের লিখিত অভিযোগ দায়ের!

সিরাজদিখান (মুন্সিগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ

মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার বয়রাগাদী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গাজী আলাউদ্দিনের নানা অনিয়মের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসক মুন্সিগঞ্জ বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। (২৫ মে) মঙ্গলবার বয়রাগাদী ৭,৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডের মহিলা ইউপি সদস্য মোসাঃ সাবিনা আক্তার বাদী হয়ে চেয়ারম্যান গাজী আলাউদ্দিনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এর আগে গত ২৯ এপ্রিল গাজী আলাউদ্দিনের বিরুদ্ধে সিরাজদিখান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ ফয়েজুল ইসলাম বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়েরের পর প্রতিকার না পেয়ে জেলা প্রশাসক (ডিসি) মনিরুজ্জামান তালুকদারের দারস্থ হন তিনি। ইউপি চেয়ারম্যানের লাগামহীন অনিয়ম ও অপকর্মের তদন্তপূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ এবং ইউপি সদস্যদের প্রাপ্য অধিকার আদায়ের দাবী লিখিত অভিযোগে জানানো হয়।

ভুক্তভোগী মহিলা ইউপি সদস্য মোসাঃ সাবিনা আক্তার দায়েরকৃত লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করেন, তিনি ইউপি সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার পর এ পর্যন্ত তিনিসহ বেশ কয়েকজন ইউপি সদস্যকে ইউনিয়ন পরিষদের নিয়ম অনুযায়ী কাজ না দিয়ে বিভিন্ন ভাবে কোনঠাসা করে রেখেছেন গাজী আলাউদ্দিন। পরিষদের নিয়ম অনুযায়ী সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্যদের ৩০% কাজ করার অনুমতি থাকলেও গাজী আলাউদ্দিন মহিলা ইউপি সদস্যদের কাজ না দিয়ে তাদের প্রাপ্য অধিকার থেকে বঞ্চিত করে রেখেছেন। সম্প্রতি চেয়ারম্যানের কাছে কাজ চাওয়া হলে তিনি সাবিনা আক্তারকে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে বের করে দেন। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে চেয়ারম্যান কর্তৃক টিআর প্রকল্পের আওতায় একটি রাস্তার কাজ সাবিনা আক্তারকে দেওয়া হলেও ওই কাজের টাকা থেকে ৫০ হাজার টাকা অন্য কাজে লাগানোর কথা বলে গাজী আলাউদ্দিন তার কাছ থেকে নিয়ে ফেরৎ না দেওয়ায় সাবিনা আক্তার তার স্বামীর জমানো টাকা দিয়ে রাস্তার কাজ সম্পন্ন করেন। অভিযোগে আরো উল্লেখ করা হয়, গাজী আলাউদ্দিন রাস্তার কাজসহ বিভিন্ন বরাদ্দের কাজ ইউপি সদস্যের নামে তিনি নিজেই করেন। প্রতিটি কাজ থেকে তাকে ১০% না দিলে তিনি কাজ নিয়ে ঝামেলার সৃষ্টি করেন এবং পছন্দের মেম্বার দিয়ে কাজ করান। ৪ বছর ধরে গাজী আলাউদ্দিন সাবিনা আক্তারসহ অন্যান্য ইউপি সদস্যদের বেতন ভাতা ঠিকমত পরিশোধ না করে নিজের ব্যক্তিগত কাজে লাগিয়েছেন। গাজী আলাউদ্দিন ইউপি সদস্যদের বেতনভাতা পরিষোধ করতে হবে বিধায় ২ বছর যাবৎ পরিষদে কোন মিটিং ডাকেন না মর্মে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।

এদিকে বয়রাগাদী ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ড ইউপি সদস্যদের সাথে আলাপ করে জনা যায়, চেয়ারম্যান গাজী আলাউদ্দিন গত দুই বছর যাবৎ সিংহভাগ ইউপি সদস্যদের বেতনভাতার টাকা ঠিকঠাক মত পরিষোধ করেন নি এমনটাই অভিযোগ তোলা হয়। এর মধ্যে বেশ কয়েকজন আক্ষেপ করে বলেন তার সব কাজ ঠিকঠাক মতো চলে কিন্তু আমাদের ভাতার টাকা দিতে গেলে তার মাথা ব্যথা শুরু হয়। আমরা এর সুষ্ঠ প্রতিকার চাই।

এ ব্যপারে বয়রাগাদী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গাজী আলাউদ্দিন সাংবাদিকদের সাথে এক সাক্ষাৎকারে তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সমূহ অস্বীকার করেন এবং যাচাই বাছাই করে সংবাদ প্রকাশে সাংবাদিকদের অনুরোধ করেন।

ভুক্তভোগী মহিলা ইউপি সদস্য মোসাঃ সাবিনা আক্তার বলেন, আমি আজকে ডিসি মহোদয়ের কার্যালয়ে হাজির হয়ে বয়রাগাদী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গাজী আলাউদ্দিন সাহেবের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেছি। ডিসি অফিসে আমার অভিযোগখানা আমলে নিয়েছেন। শিঘ্রই এ ব্যপারে তারা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবেন বলে আশ্বস্ত করেছেন।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*