Tuesday , 27 July 2021
ব্রেকিং নিউজ
Home » শিক্ষাসংস্কৃতি » ক্যাম্পাস » ব্যাঙের নতুন প্রজাতি আবিষ্কার
ব্যাঙের নতুন প্রজাতি আবিষ্কার
--প্রেরিত ছবি

ব্যাঙের নতুন প্রজাতি আবিষ্কার



জবি প্রতিনিধি :  
নতুন প্রজাতির ব্যাঙ আবিষ্কার করেছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থী। প্রাণিবিদ্যা বিভাগের (২০১০-১১) শিক্ষাবর্ষের হাসান আল রাজি চয়ন ও একই বিভাগের (২০১৬-১৭) শিক্ষাবর্ষের মারজান মারিয়া ব্যাঙের এই নতুন প্রজাতিটি আবিষ্কার করেন। নতুন আবিষ্কৃত এ ব্যাঙটির নাম লেপটোব্র্যাকিয়াম সিলেটিকাম (Leptobrachium sylheticum)।

শনিবার বিষয়টি নিশ্চিত করছেন হাসান আল রাজি চয়ন ও মারজান মারিয়া।

জানা যায়, গত বছর জুনে সিলেটের মৌলভীবাজারের লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে গবেষণার কাজের জন্য যান চয়ন ও মারিয়া। সেখানে তারা এ ব্যাঙটিকে নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করে বুঝতে পারেন, এটি পরিচিত ব্যাঙ থেকে কিছুটা আলাদা প্রকৃতির। তারপর এটি নিয়ে তারা  বিস্তর গবেষণা করেন। ব্যাঙের এই প্রজাতিটি বিশ্বে একেবারেই নতুন বলে মনে করছেন তারা।

নতুন প্রজাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য তারা এ ব্যাঙের শারীরিক পরিমাপ, এদের মলিকুলার বিশ্লেষণের পাশাপাশি ডাকের বিশ্লেষণও করেন। তারা দেখতে পান, প্রজাতিটি ব্যাঙয়ের অন্য প্রজাতিগুলো থেকে একেবারেই ভিন্ন। এরপর তারা গবেষণাপত্রটি জার্নাল অব ন্যাচারাল হিস্ট্রির জার্নালে পাঠালে সেখান থেকে এটি প্রকাশিত হয় এবং তাদের এ আবিষ্কার বিশ্বের কাছে স্বীকৃতি লাভ করে বলে দাবি করছেন তারা।

ব্যাঙের নতুন এ প্রজাতি আবিষ্কার কাজের সার্বিক তত্ত্বাবধান ও সহযোগিতায় ছিলেন লোমোনোসোভ মস্কো স্টেট ইউনিভার্সিটির রাশিয়ান প্রফেসর নিক পয়ারকভ। তারা প্রাপ্তিস্থান সিলেটের নাম অনুযায়ী ব্যাঙটির নামকরণ করেছেন লেপটোব্র্যাকিয়াম সিলেটিকাম (Leptobrachium sylheticum)।

এ ব্যাপারে হাসান আল রাজী চয়ন বলেন, নতুন প্রজাতির এই ব্যাঙটি আমাদের দ্বিতীয় আবিষ্কার। নতুন কিছু আবিষ্কারের মাধ্যমে বাংলাদেশকে বিশ্বের কাছে উপস্থাপন করাটা আমাদের জন্য অনেক আনন্দদায়ক। ব্যাঙ নিয়ে  আমাদের আরো একটি গবেষণা চলছে।  

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*